আমি তোমার জন্য এসেছি (পর্ব-পাঁচ)

সুরাইয়া নার্গিস ২ এপ্রিল ২০২০, বৃহস্পতিবার, ০৪:৩৫:৩৩অপরাহ্ন গল্প ১৯ মন্তব্য
“আমি তোমার জন্য এসেছি (পর্ব-পাঁচ) মিরার বাবা আজাদ সম্পর্কে খোঁজ নেয় তখন কয়েক গ্রামের প্রায় সবাই আজাদ এর প্রশংসা করে সব দেখেই মিরার বিয়ে দেওয়া হয়। এই ১৫ বছরে মিরা আজাদকে আবিষ্কার করেছে তার জানার চেয়ে আজাদ অনেক বেশি ভালো মানুষ, একজন ভালো স্বামী, মেয়ের কাছে একজন ভালো বাবা বিয়ের পর থেকে সে খুব সুখি [বিস্তারিত]

ভুল ছিলো

এস.জেড বাবু ২ এপ্রিল ২০২০, বৃহস্পতিবার, ০৩:৩০:০৩অপরাহ্ন কবিতা ২৬ মন্তব্য
সবাই কি আর তেমনি করে সুখটা পায় কেউতো চড়ে, ইচ্ছে করে, দুঃখের না’য় কেউ ছুঁড়ে দেয়, ভাঙ্গা তরী, দড়িয়ায় কেউতো গড়ে, নতুন করে, আবার বায় সেই মেয়েটার কৃষ্ণ কালো চোখ ছিলো যেন মিঠা জলে পদ্মজোড়া ভাসছিলো কাজল রেখায় ওই চোখেতে মেঘ ছিলো রংয়ের নেশায় সাদা কালোয় ভাব ছিলো সেই মেয়েটার কুকিল বরণ চুল ছিলো ঢেউয়ের [বিস্তারিত]

এক মুঠো ভালোবাসা (৩০তম পর্ব)

ইঞ্জা ২ এপ্রিল ২০২০, বৃহস্পতিবার, ০২:২১:২৯অপরাহ্ন গল্প ২৯ মন্তব্য
অনিক ধীরে চোখ খুললো, কিন্তু চোখে প্রচন্ড আলোর ধাক্কা খেয়ে চোখ বন্ধ করে ফেললো, সাথে সাথে ওর মুখের উপর বালতি ভর্তি পানির ঝাপটা খেয়ে মাথা ঘুরালো একদিকে, সাথে সাথে গুঁগিয়ে উঠলো ঘাড়ের ব্যাথায়। চোখ খোল ইউ বাস্টার্ড (ইংরেজিতে) বলে কেউ গালি দিয়ে উঠলো। অনিক ধীরেধীরে চোখ খুলে দেখতে চাইলো, মাথা কাজ করছেনা ওর, ও কোথায় [বিস্তারিত]

দুরন্ত এপ্রিল

সাবিনা ইয়াসমিন ১ এপ্রিল ২০২০, বুধবার, ১১:৪১:৫৯অপরাহ্ন একান্ত অনুভূতি ৩২ মন্তব্য
আবদ্ধতার দিনগুলোতে জেগে উঠেছে অবাধ্য বাসনারা, ধুকপুক হৃৎপিণ্ড খানিতে ছলকে উঠছে নিরন্তর ব্যকুলতা, কাঁদামাটির নাজুক দেহ ক্রমাগত প্রণয়ে, পুড়ে-পুড়ে হলো পোড়ামাটির আবক্ষ! কামনার অনলে, বাস্পীত হয়েছে রসায়নের প্রতি বিন্দু; জোড়ালো আবেদনে ভস্মীভূত ছাই উড়ছে রঙীন হয়ে.. হায়! নিদারুন চৈত্র-প্রহর, নির্জন সম্মোহন কন্ঠে তৃষ্ণা, আরও কুন্ঠিত আণত নয়ন. ধ্বিকি ধ্বিকি জ্বলে উঠে নৈশব্দ-দহন। প্রিয়মুখ-প্রিয়তম, দুরন্ত এই [বিস্তারিত]

স্মৃতির নদী

জিসান শা ইকরাম ১ এপ্রিল ২০২০, বুধবার, ১১:৪০:৫৯অপরাহ্ন গল্প ৪২ মন্তব্য
আজকাল স্মৃতি গুলো কেমন যেন বাস্তব হয়ে চোখের সামনে দেখে তারা দুজনেই। স্মৃতি এমনই উজ্জ্বল যে এসব রঙ্গিন হয়ে থ্রি ডি মুভির মত চলমান। অনেক স্মৃতি আছে তাদের একটি নদী কেন্দ্রিক। নদীটার মালিক যেন তারা দুজনে। একদিন শান্তা বায়না ধরেছিল ‘ আমাকে একটি নদী দাও। ‘ এ নদী সে নদী দেখতে দেখতে প্রবাল অন্য একদিন [বিস্তারিত]

সময় ও প্রকৃতির প্রতিশোধ

সুপর্ণা ফাল্গুনী ১ এপ্রিল ২০২০, বুধবার, ০৯:৪৩:১৬অপরাহ্ন কবিতা ২৮ মন্তব্য
হায়রে মানুষ, রঙীন মানুষ, রঙীন ফানুস! সব বদ্ধঘরে মৃত্যু যন্ত্রণায় ছটফট করছে। এ-বেলা, ও-বেলা ছুটোছুটি, লুটোপুটি সব আজ জানালার কার্নিশে ঝুলে আছে। নিস্তব্ধতার কাফনে জড়িয়ে পড়েছে মৃত্যুপুরী। নেইকো চায়ের কাপে ঝড় তোলা, নেইকো কপোত-কপোতীর ম্যাচিং ম্যাচিং সাজের বাহার-ওড়াওড়ি , নেইকো অসহ্য যন্ত্রণার হাইড্রোলিক হর্ণের দাপাদাপি; নেইকো ন’টা পাঁচটা কর্পোরেট ছোটাছুটি, নেইকো কোমলমতি শিক্ষার্থীদের হুরোহুরি স্কুলের [বিস্তারিত]
এইযে! 😎 জ্বী, আপনাকেই বলছি। খেয়াল কইরা, ঘরে থাকতে থাকতে শরীর কিন্তু বসে যাচ্ছে। কাজেই হাত-পা নাড়াচাড়া করুন। বাইরে যেহেতু বের হতে পারছেন না, মানে হওয়া উচিত না, কাজেই হাঁটাহাঁটিও তো তেমন হচ্ছে না, তাই না? জরা কিন্তু গিলে খাবে, হুম। শরীরও যে একটা মেশিন। মেশিন চালু রাখতে হবে তো। চালু রাখলে ভালো থাকে, নইলে [বিস্তারিত]

বিদায়ী সংবাহন সুভাষণ

নৃ মাসুদ রানা ১ এপ্রিল ২০২০, বুধবার, ০৭:৩৪:২৮অপরাহ্ন অণুগল্প ১৬ মন্তব্য
  মেয়েটি হাসপাতালের বারান্দায় ঘুমিয়ে পরেছে। গুটিসুটি, জড়োসড়ো হয়ে ঘুম। যে ঘুমে আত্মা কাছে থাকে না। দূরে বহুদূরে, স্বর্গরাজ্যে চলে যায়। যে স্বর্গরাজ্যে বাস করে পুরনো অতীত ঘুমের আত্মারা। আধাঘন্টা খানেক পরে ডাক্তার এসে মেয়েটিকে খুঁজতে লাগলো। না, মেয়েটি যেখানে বসে ছিলো সেখানে নেই। তাহলে কি? না কোথাও যায়নি। বারান্দার কাছাকাছি যেতেই মেয়েটিকে দেখতে পেলো [বিস্তারিত]

এক প্রহরের নিমন্ত্রণ

কামরুল ইসলাম ১ এপ্রিল ২০২০, বুধবার, ০৬:১৫:৫৪অপরাহ্ন কবিতা ১৪ মন্তব্য
শান বাঁধানো ঘাট, কাঠাল গাছের ছায়া ~ শান্ত দীঘির জল, ঢেউ খেলে যায় মায়া ~ শাখে ডাকে দোয়েল, মাঠে ফসলের হাসি ~ কলসী কাঁধে গায়ের বঁধুর দল, তেলে ভেজা এলোকেশি ~ পড়ন্ত বিকেল, নিরবতা ভাঙে দুষ্ট ছেলের দল ~ নীলিমায় উড়ে সাদা বক, গন্তব্য অবিচল ~ নিবিড় টানে কাব্য বাণে প্রকৃতি পড়ে নেমে ~ ছায়ায় [বিস্তারিত]

উদ্বাস্তু জীবন

ইসিয়াক ১ এপ্রিল ২০২০, বুধবার, ০৫:৫৪:৪০অপরাহ্ন গল্প ১৪ মন্তব্য
[১] আজ প্রচন্ড গরম পড়েছে। সাথে বাতাসহীন একটি রাত। চৈত্রের এইসব দিনগুলিতে রাত নামার সাথে সাথে তাপমাত্রা কমে আসতে থাকে। আজ তাপমাত্রা কমার কোন লক্ষণ নেই। রাতে যে ঠিক মত ঘুম হবে না তা বোঝাই যাচ্ছে। সুলেখা ভাঙা পাখা দিয়ে ক্রমাগত জোরে বাতাস করে চলেছে। বাতাস গায়ে লাগছে বলে মনে হচ্ছে না।গরমে দম বন্ধ হয়ে [বিস্তারিত]

ভাঁওতাবাজি-২

সুরাইয়া পারভীন ১ এপ্রিল ২০২০, বুধবার, ০৫:০১:২৮অপরাহ্ন সমসাময়িক ২২ মন্তব্য
বউটি রাতে স্বপ্ন দেখলো  যে ভোরে ফজরের নামাজ পড়ে ডান পা সামনের দিকে বাড়িয়ে দিলে দেখাতে পাবে একটা সুরমাদানি। আর ঐ সুরমা চোখে দিলে আর করোনা ভাইরাস আক্রান্ত করতে পারবে না। ঘটনা নাকি এমনি সকাল হতে না হতেই এমন একটা খবরে সারাপাড়ার মানুষ ছুটে এলো ঐ বউটার বাড়িতে। সত্য মিথ্যা যাচায় না করেই চোখে সবাই [বিস্তারিত]

করোনালাপ….(২)

ছাইরাছ হেলাল ১ এপ্রিল ২০২০, বুধবার, ০৩:৩৯:৫৯অপরাহ্ন একান্ত অনুভূতি ২৫ মন্তব্য
  (আমার)মাথার বুদ্বুদেরা সারাক্ষণ ঘুরপাক খায় ঘুরপাক খায়, আত্মবিশ্বাসের ঝনঝন রোদ্দুরে, এ-কথা ও-কথা ভেবে-ভেবে, এ-দিকে ও-দিকে তাকায়; উড়তে থাকা উজ্জ্বল-রোদ ভেসে বেড়ায় রঙ-বেরঙে। নির্লিপ্ত আলসেমির লাল-চোখে ভাবতে-বসি স্তম্ভিত হওয়ার মত আতঙ্ক-ভাবনা কতটা জরুরী? আর জরুরী যদি হবেই, কেন-ই বা তা জরুরী! তাড়াহুড়োর জীবনী-শক্তি কী এতই প্রবল সামান্য ফুঁৎকারে উড়িয়ে দেবে বস্তা-বস্তা আলস্য? জোরে-জোরে জোর-করা হাসিটি [বিস্তারিত]

ভয়কে করো জয় !

সুপায়ন বড়ুয়া ১ এপ্রিল ২০২০, বুধবার, ০২:২৩:২১অপরাহ্ন একান্ত অনুভূতি ১৯ মন্তব্য
মা, কেমন আছ তুমি ? কতদিন তোমায় হয় না দেখা কষ্ট পাবে বলে ছবির আড়ালে মুচকি হেসে বলতে, ভাল থাকিস বাবা মা, আমি খুব ভয় পাচ্ছি আমার সর্দি কাশিটা আবার বেড়েছে বলে বাসা থেকে বের হই না মানুষ করোনা বলবে বলে। ৮ ফুট বাই ১০ ফুট বাসা একা থাকা বড় কষ্ট দম বন্ধ হয়ে আসছে [বিস্তারিত]

ব্যাচেলর চায়ের কাপ

এস.জেড বাবু ১ এপ্রিল ২০২০, বুধবার, ০১:৫৯:৩৮অপরাহ্ন কবিতা ১৩ মন্তব্য
আবারও ডাকে কুকিল, ভাঙ্গা সুরে, উড়ে উড়ে, দুরে দুরে। কুহুতানে- নিবিড় আলিঙ্গনে, ভাঙ্গে স্বপ্ন ভাঙ্গা ঘোর। কনকনে উষ্ণতায়, ভেজা বকুলের কাঁচা গন্ধ, ক্লান্ত ভোরের বাহুডোরে নিদ্রাভাঙ্গা চিরন্তন ষোড়ষী সকাল, আপন তিক্ষ্মতায় ঘনঘোর কুয়াশার বস্ত্র হরণ শেষে মুচকি পরশ বুলিয়ে, একুশের হাসি হাসে সোনালী কিরণ- যৌবনের বলিষ্ঠ, সুমিষ্ট স্বর্ণালী ইশারায়। কানামাছি খেলে নিস্তব্ধ ভেজা হাওয়া, দৈবাৎ [বিস্তারিত]

আমার আমি

নাফিছা সুলতানা ইলমি ১ এপ্রিল ২০২০, বুধবার, ১২:৪৫:১৩অপরাহ্ন একান্ত অনুভূতি ৭ মন্তব্য
মাঝে মাঝে মনে হয়,ইস যদি এমন হত আমি খুব ধনী পরিবারের মেয়ে হতাম, দেখতে খুব সুন্দরী। প্রাইভেট ভার্সিটিতে এডমিশন নিয়ে রোজ একটা মেচিং করা কার থেকে নেমে মাথার চুল উড়িয়ে প্রতিটি ছেলের একমাত্র ক্রাস হতাম।কি মজাটাই না হত।বন্ধু বান্ধবদের সাথে আড্ডা, রেস্টুরেন্ট এ প্রতিদিন করে খেতে যাওয়া,ফেইসবুকে ছেলেদের সাথে চেটিং করে টাইম পাস।আর চোখে স্বপ্ন [বিস্তারিত]

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

সাম্প্রতিক মন্তব্যসমূহ