এ ভারী অন্যায়, ভীষণ অন্যায়

রিমি রুম্মান ২১ জানুয়ারী ২০১৪, মঙ্গলবার, ১২:২৬:০৮অপরাহ্ন বিবিধ ২২ মন্তব্য

বিষধর সাপটি ক’দিন পরপরই ফনা তুলে দাঁড়ায়
বিষাক্ত দূষিত শ্বাস অবলীলায় চারপাশে ছড়ায়
কেউ বলে নাম তার সংখ্যালঘু, কেউ বলে সাম্প্রদায়িকতা।

তীব্র যন্ত্রণা, শঙ্কা আর অপমানবোধ নিখিলেশের চোখে মুখে
নিভুনিভু প্রদীপ শিখার মত ক্ষীণ স্বরে বলে উঠে__
দিদি, আর যে পারিনা, শেষবেলায় বুঝি চলে যেতেই হবে!
চম্‌কে উঠে বলি, এ দেশের জন্যে চড়ামূল্য দিয়েছিলি কেন একদিন
স্বপ্ন নিয়ে রক্ত বেঁচে স্বাধীনতা এনেছিলি কেন তবে সেদিন?

বুকের পাঁজর ভাঙ্গা দীর্ঘশ্বাস, অশ্রুসজল চোখে নির্বাক দাঁড়িয়ে
উক্তেজিত হই, চিৎকার করে উঠি, বলি, চেয়ে দেখ নিখিলেশ
ওই দূরে এখনো পত্‌পত্‌ করে উড়ে লাল সবুজের পতাকা
এখনো সবুজে ছেয়ে থাকে প্রকৃতি, পাখিরাও ডেকে যায় আপনমনে
এ যে তোরই জন্মভুমি, পূর্বপুরুষের ভিটেমাটি__ যাস্‌নে কোথাও
ডুকরে উঠে সে, বলে, দিদি এ আমার নিয়তি
নইলে নিজভুমে কেন আজ হলেম পরবাসী ?

মাথা নুইয়ে থাকি,
মনের কোনে বিষাদের আঁধার ঘনায়
এ ভারী অন্যায়, ভীষণ অন্যায়।

২০৬জন ২০৬জন
0 Shares

২২টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য