71 (1)আজ ২০ মে,চুকনগর গণহত্যা দিবস।এই দিনে হানাদার পাকিস্থানী বাহিনী এবং তাঁদের সহযোগী রাজাকারদের দ্বারা খুন হওয়া কয়েক হাজার বাঙ্গালীকে জানাই আন্তরিক শ্রদ্ধাঞ্জলী।  -{@

চুকনগর গণহত্যা পাকিস্তান সেনাবাহিনী ও তাদের দোসররা ১৯৭১ মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে সংঘটিত করে।

এই বাঙালি গণহত্যাটি ১৯৭১ সালের ২০ মে খুলনার ডুমুরিয়া উপজেলায় ঘটে এবং বাঙালির মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম বৃহৎ হত্যাকাণ্ড।

চুকনগর ভারতীয় সীমান্তের নিকটবর্তী হওয়ায় স্বাধীনতাযুদ্ধ শুরু হবার পর বিভিন্ন স্থান থেকে লোকজন সীমান্ত অতিক্রমের জন্য এখানে এসে জড়ো হয়।

বাংলাদেশের খুলনা ও বাগেরহাট থেকে ভদ্রা নদী পাড়ি দিয়ে প্রায় ৩০- ৪০ হাজার মানুষ চুকনগরে এসে জড়ো হয়।

২০ মে বেলা ১১ টার সময় মিলিটারির দুটি দল ও তাদের দোসররা একটি ট্রাক ও একটি জিপ গাড়িতে এসে চুকনগর বাজারের উত্তর প্রান্তে “কাউতলা” নামক একটি স্থানে এসে থামে।

পাতখোলা বাজার থেকে তারা গুলি চালনা শুরু করে এবং পরবর্তীতে চুকনগর বাজারের দিকে অগ্রসর হয়। বিকেল তিনটা পর্যন্ত গোলাগুলি চলতে থাকে।

চুকনগরে মৃত ব্যক্তিদের সঠিক সংখ্যা নির্ণয় করা না গেলেও প্রতক্ষদর্শীদের মতে মৃতের সংখ্যা ৮ থেকে ১০ হাজার।

মৃতদেহগুলো পাক বাহিনী নদীতে নিক্ষেপ করে।

সেই নির্মম গণহত্যায় শহীদ হওয়া অনেকের পরিচয়, প্রত্যক্ষদর্শীদের সাক্ষাৎকার ও নানা দালিলিক প্রমাণ উপস্থাপন করা হয়েছে এই গ্রন্থে _ ১৯৭১: চুকনগরে গণহত্যা- মুনতাসীর মামুন। গ্রন্থটি প্রতিটি বাঙ্গালীর সংগ্রহে থাকা প্রয়োজন বিবেচনায় এই সোনেলায় ডাউনলোড লিংক দিয়ে দিলাম।

মুনতাসীর মামুন সম্পাদিত এই গ্রন্থটির পিডিফে এখান হতে ডাউনলোড করুন বা পড়ুন 

লেখা সুত্রঃ বাংলাদেশ মুক্তিযুদ্ধ পাঠাগার ও গবেষণা কেন্দ্র

৭১৫জন ৭১৫জন
0 Shares

২০টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ