ভয় ও ভালবাসা

রেজওয়ান ২৫ নভেম্বর ২০১৮, রবিবার, ১১:৪৩:২২পূর্বাহ্ন একান্ত অনুভূতি ১০ মন্তব্য


😨অপমান১ঃ
ক্লাশ ওয়ানে পড়ি, মর্নিং শিফট। নিজেদের বাসা না থাকায় তখন থাকতাম এক আত্মীয়ের বাসায়। তো ক্লাশ শেষ করে বাসায় এসে ফ্রেশ হয়ে ডাইনিং টেবিলে বসে দেখি গত কালকের ডাল ও আলুভর্তা। এমন সময় নাকে লাগলো ডিম ভাজার গন্ধ, মনে হলো পাশের বাসায় ডিম ভাজছে। তাই চাচিকে একটা ডিমপোস করে দিতে বললাম। চাচির সোজাসাপটা উত্তর- “তুই কোন লাট সাহেবের ব্যাটা যে তোকে ডিম ভেঁজে দিতে হবে? যা আছে তাই দিয়েই খা” অগত্যা পাশের বাসার ডিম ভাজার গন্ধ শুঁকেই লাঞ্চ শেষ করছিলাম!!
✌#এখন বাসায় আর কিছু না থাকলেও ডিম টা থাকেই।

😑অপমান২ঃ
সময়টা ২০০৪ হয়তো!
-খালামণী নেক্সট উইকে স্কুল থেকে পিকনিকে যাবে, আমিও যাচ্ছি। তোমার দুইটা ক্যামেরা! পুরানোটা ১ দিনের জন্য ধার দিবা?
-আচ্ছা নিস! তবে ফিল্ম/রিল দিতে পারবো না, তর কিনে নিতে হবে।
মহা খুশিতে নাচতে নাচতে ৩ টা ফুজি ১ টা কোডাকের ফিল্ম/রিল কিনছিলাম। পিকনিকের আগের রাত্রে ক্যামেরা নেওয়ার জন্য তার বাসায় গেলাম! চাওয়া মাত্রই হিন্দীতে বলে দিলো “নেহি”!
-জিজ্ঞাসা করলাম কেন?
-আমার ইচ্ছা তাই, কেন কৈফিয়ত চাস?
কিছু না বলে চলে আসলাম। পরদিন সকালে কষ্টটা আড়াল করে সবার সাথে পিকনিকে গেলাম। তবে সারাদিনই মনটা প্রচন্ড খারাপ ছিলো।
😇#প্রথম ইনকামের অর্ধেক মা’কে এবং বাকিটা দিয়ে DSLR কিনেছিলাম! বেশি ভালবাসা দেখাতে গিয়ে অপাত্রে দান ও করে দিছি সখের ক্যামেরাটা।📷

💔অপমান৩ঃ
-অমুকের পায়ে ধোয়া পানি খা তাহলে যদি ভাল রেজাল্ট হয়।
-ভাল রেজাল্টের চেয়ে মানুষ হওয়া জরুরী, শিক্ষিত হওয়া জরুরী তাইনা?
-মুখে মুখে তর্ক করার জন্যই কি এত কষ্ট করতেছি? শুধু পাশ করার জন্য এত কষ্ট করা সম্ভব না!
-কি দরকার এত কষ্ট করার, জানোই তো আমি পেছনের বেঞ্চের শুধুমাত্র পাশ করা ছাত্র!
-পেছনের বেঞ্চে বসেই পড়াশুনা শেষ করলাম।
😎#গতমাসে সেই “অমুক” জবের জন্য নক দিয়েছিলো, ব্যবস্থা করে দিছি আগামী ১ম ডিসেম্বর জয়েনিং ডেট।📝

😭অপমান৪ঃ
সময়টা কলেজ উঠছি বা উঠবো তখনকার। কাভিখুশী কাভিগাম মুভিটা কোনো এক চ্যানেলে দেখাচ্ছিলো, অতীতের সকল অপমান ভুলে সেই খালামণির বাসায় আবার আমি! ঋত্বিকের গাড়িটা দেখে বললাম আমিও একদিন এমন একটা গাড়ি কিনবো। মুখের উপর বলে দিলো নিজের ফ্যামিলি স্ট্যাটাস দেখে তারপর স্বপ্ন দেখিস! উনার হাজবেন্ড জিজ্ঞাসা করলো কি নিয়ে কথা হচ্ছে! বলে দিলো রেজওয়ান BMW কেনার কল্পনায় ব্যস্ত।
😂#ওটা BMW না ওটা ferrari! অন্যকে অপমান করার আগে নিজের শিক্ষার দিকে নিজর দিন বলে চলে এলাম।📚

😤অপমান৫ঃ
HSC পরীক্ষার মাস তিনেক আগে। ইরেগুলার, পেছনের বেঞ্চের খারাপ ছাত্র এবং প্রিটেস্ট দেইনি বলে কলেজ থেকে গার্ডিয়ানদের ডেকে পাঠালো। আমাকে হয় পরের বছর পরীক্ষা দিত্র হবে নয়তো ৫০k বন্ধক রেখে পরীক্ষায় বসতে হবে। প্রিন্সিপ্যাল স্যার কে বললাম পাশ করবো সমস্যা নেই স্যার পরীক্ষা দিতে দিন। কোনো ভাবেই রাজি নয় পরে যখন বললাম বন্ধক দিতে রাজি কিন্তু পাশ করলে ডাবল টাকা দিতে হবে! শুনে টাকা না নিয়েই পরীক্ষা দিতে দিয়েছিলেন শ্রদ্ধেয় ও স্যার!
😍#ও-হ্যা আমি ভালমত পাশ করেই বেরিয়েছিলাম!🎓

♥উপরের সব ঘটনা গুলা আমার সাথে ঘটে যাওয়া হলেও এমন শত শত অপমানের সিচুয়েশন আমাদের প্রায় সবার সাথেই ঘটে প্রতিনিয়ত। আমি কোনো আনকমন মানুষ নই, তবে অনুরোধ ছোট-বড় ভাই/বোনেরা বাবা-মা’য়ের সাথে ভাল ব্যবহার করো, তাঁদের ভালবাসো! আমার মত সবকিছু মনে রেখো না! (আমি কোনো কিছু ভুলি না, এটা আমার দোষ)💜নিজেকে তথাকথিত মানুষ মনে হয়না বলেই আজকাল সব কিছুই ইজিলি নেওয়া শিখে গেছি!😜এখন আর গায়ে মাখি না অন্যের কটুক্তি বা খোচামারা কথাগুলা..😁

🌹নোটঃ ছোটদের বকা দিয়ে, অন্যের সাথে তুলনা করে অপমান করবেন না, এতে ওই সন্তানের মনে অন্যদের জন্য ভালবাসার থেকে ঘৃণা করাটাই বেশি জন্মে, ধরে নিবে ওই ভাল ছাত্রত্র/ছাত্রীরা নিজের শত্রু! ওদের চিন্তাধারাকে সাধুবাদ জানান, সাহায্য না করতে পারলেও হাতটা ধরে বুঝান পাশে আছি! কথা বলুন, ছোট হলেও গুরুত্ব দিন ওদের, ফিল করতে দিন যে ওরা ছোট হলেও পরিবারের ইম্পরট্যান্ট সদস্য। পরিবারের অন্যরা আপনার সন্তানকে অপমান করলে বাবা-মা হিসেবে সন্তানের পাশেই থাকুন! দেখবেন আপনার হাজারো অন্যায় শাসনের মাঝেও তারা বলবে আমার বাবা-মা ই শ্রেষ্ঠ!💞

🍷পরিশেষেঃ চিন্তা সক্ষম প্রতিটি মানুষই জানে সে কি বা কি করতে পারে। এর জন্য কারো সাথে কম্পেয়ার করার দরকার নেই, এতে ছেলে/মেয়েটার ট্যালেন্ট বিকাশে বাধা পায়! সেল্ফ কনফিডেন্ট হারায়। ভালবাসুন, ভালবাসাতে শিখুন🎈

১৩০জন ১৩০জন
0 Shares

১০টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য