বিভাগ: একান্ত অনুভূতি

ফোন ব্যবহার করছেন অথচ রং নাম্বার থেকে কল আসেনি এমন কোন ব্যবহারকারী হয়তো খুঁজে পাওয়া যাবেনা। রং নাম্বার থেকে পরিচয় অতঃপর প্রেম পর্ব সেরে ঘর সংসার করা জুটির অভাব নেই আমাদের দেশে। ২০০৫ থেকে নিয়মিত কিছু মানুষ আমাকে ফোন করে রঙ মিস্ত্রী বেলালের খোঁজ করতো। কারণ বেলাল নামের কোন এক রঙ মিস্ত্রী তার ভিজিটিং কার্ডে [ বিস্তারিত ]
বাইরে কালবৈশাখী ঝর আমি একা কেবল হেঁটে চলেছি ভিজে একাকার ,  কেউ নেই পাশে ! এক মুহূর্তের জন্য মনে হোল , আমার পাশে যদি সে থাকতো ? আমি কল্পনায় ডুবতে লাগলাম ক্যামন যেন একটা ঘোরের মতো তীব্র ঝরের সন্ধ্যায় রাস্তায় আমরা দুজন আমি ওর হাতটা একটু ধরতাম ধরে হেঁটে যেতাম নীরব রাস্তার উপর দিয়ে মৃদু [ বিস্তারিত ]
এখন দিব্যি বেঁচে আছি তোকে ছাড়া । অথচ এমন করে কি থাকার কথা ছিলো ? তোর ভালোবাসা ছাড়া আমি কি করে বাঁচি বল ? তোকে ছাড়া কি দুঃসহ জীবন আমি কাটাচ্ছি তা কি তুই জানিস ? ইচ্ছা করে পরম মমতায় তোর চুল আঁচরে দেই !! তুই যেদিন আমাকে ফেলে চলে গেলি ! মনে আছে তোর [ বিস্তারিত ]
কেউ বলছে দেশটা আমার বাপের টাকায় কেনা, কেউ বলছে না না আমার স্বামীর ষোল আনা। কেউ বলছে আমিই বন্ধু শহর এবং গ্রামে, দেশের দলিল হওয়া উচিত শুধুই আমার নামে। কেউ বলছে আমরা ডান দেশটা ডানে যাক, বামের জনও বলছে ঠিকই দেশটা বামেই থাক। রাজাকারের জারজ দল আজ জঙ্গীবাদে মদদবাদ, সোনার বাংলা না গেয়ে গায় পাক [ বিস্তারিত ]
বাবারা সব সময় নিষ্ঠুর হয়না। কড়া মেজাজের অন্তরালে চড়া ভালোবাসা সব সময় প্রকাশ করেন না বলেই বাবাদের বেশির ভাগ সময় নিষ্ঠুর বলে মনে হয়। ছোট্ট বেলায় বাবা ভীতির পাশা পাশি বাবা প্রীতি যে একদম ছিলোনা তা অস্বীকার করার কোন উপায় নেই। শৈশব কৈশর অতিক্রম করে এখন স্পষ্টতঃ বুঝতে পারছি যে বাবার সেই কড়া অনুশাসনের একমাত্র [ বিস্তারিত ]

লুকোনোর নেই কিছু

ছাইরাছ হেলাল ৯ অক্টোবর ২০১২, মঙ্গলবার, ০৭:৫০:১৯পূর্বাহ্ন একান্ত অনুভূতি ৮ মন্তব্য
এ আমার উন্মুক্ততা ধানসিঁড়ি নদীটির কাছে আমি সাঁতার কেটেছি বলে , বাতাসের কাছে আমি নিয়েছে বুকে তারে , সবুজের কাছেও অহর্নিশ আমার লেখাদের কাছেও লেখারাও আমাকে চোখে চোখে রাখছে বলে…… ভিজেছি আমি অমাবস্যার জ্যোৎস্নায় । আমি উন্মুক্ত……… চোখেরাও পেতেছে চোখ অপলক হাসছে আমার স্বপ্নেরাও মুখ টিপে , ছুটেছি ঊর্ধ্বলোক থেকে পাতালে স্থলভূম থেকে উত্তুঙ্গ এভারেস্টে [ বিস্তারিত ]
বাহিরে ভিতরে আছো আছো মন জুড়ে মাকড়সার জাল হওয়া চেনা এ শহরে, ফসলি সবুজ মাঠ অচেনা সেই গ্রামে ঝাঁকে ঝাঁকে স্বপ্নেরা যেখানে থামে; উড়ে যাওয়া সাদাকালো মেঘের আঁচলে আচমকা ভিজে যাওয়া শ্রাবণের জলে, আছো তুমি দৃষ্টিতে বৃষ্টিরও ছাটে সরে যাওয়া কালো টিপ ভরাট ললাটে; দশ আঙ্গুলের ফাঁকে হেয়ালী খেলাতে হাতে হাত রেখে সুদূর অদূর চলাতে। [ বিস্তারিত ]
পৃথিবীতে যত প্রাণীকূল আছে তার মধ্য সম্ভবত কুকুরই হচ্ছে সবচেয়ে জনপ্রিয় প্রভূ ভক্ত প্রাণী। সেই আদি কাল থেকে মানুষের সঙ্গে কুকুরের সখ্যতা এবং আজ অবদি তা বিদ্যমান। কুকুর নিয়ে প্রেম বিরহের নানান চিত্র আমরা পত্রিকার পাতায় পড়েছি। তার কয়েকটি চিত্র আমি তুলে ধরলাম। ১৯৭৯ সালের ফেব্রুয়ারীর প্রথম দিকে লন্ডনের সংবাদ পত্রে ফলাও করে প্রকাশ করে [ বিস্তারিত ]
যখন ক্লাস থ্রি অথবা ফোরে পড়ি তখন এখনকার মতো বিনোদনের এতো সুযোগ সুবিধা ছিলোনা। সেসময় রেডিও খুব চালু মাল ছিলো। ঘরে ঘরে তখন রেডিও বাজতো। বিয়ের শাদীতে যৌতুক হিসেবেও রেডিওর খুব ডিমান্ড ছিলো। যারা যৌতুক নিতে এক কাঠি উপরে থাকতেন তাদের জন্য কাঠের বাক্সের সাদা-কালো টেলিভিশনই পয়লা পছন্দ। কিন্তু দুঃখ জনক হলেও সত্য যে তখনকার [ বিস্তারিত ]
দৃশ্য একঃ ষোল বছরের এক বাড়ন্ত কিশোরী। শরীরের সাথে পাল্লা দিয়ে মনের বিশালতাও বাড়ছে ক্রমে ক্রমে। সদ্য ফেলে আসা শৈশবের স্মৃতিতে কৈশোরের স্বপ্ন স্থলাভিষিক্ত হচ্ছে রোজ রোজ। পরিবার কর্তা কর্ত্রীদের শাসনের বেড়াজালও সম্প্রসারিত হচ্ছে প্রতি নিয়ত তবুও স্বপ্ন বুনাতে কোন ভাটা পড়েনা। চিরচেনা চারপাশটাকে প্রতিদিনই নতুন মনে হয় নতুন নতুন অনুভূতির আগমনে। টেলিভিশনের পর্দায় নায়ক-নায়িকার [ বিস্তারিত ]
*এই চাঁদ…… এই ……ই…… চাঁদ চাঁদ……দ…. ডাকছি-তো… **হু… *হু…… কি? **শুনছি-তো……। *শুধু শুনলেই হবে,কথা বলছনা যে… **এখন ইচ্ছে করছেনা…… *রাত্রিরূপিনী…আমার আতপ্ততন্ময় অমৃতচক্ষে নরক জ্বেলে… নিশীথের নির্জনতায় ক্ষণভঙ্গুর অনুরাগে বিস্মরণের ক্ষমাহীন মাৎসর্যে…… জ্বল জ্বল করছ যে বড়… হয়ে বর্ণিলতায় বর্ণিল… ‘রাহু’ও তো ভড়কে যাবে,অমাবশ্যা ‘নাই’ হয়েছে কবেই ভালবেসে ভালবাসার আত্মসম্মোহন…… **ভরা পূর্ণিমা আজ,জাননা বুঝি? *ও তাই [ বিস্তারিত ]
আজকাল ভেতরটা শূন্যতায় পূর্ণ নিজেকে খুব দরিদ্র মনে হয় তোর সাথে অভিমান না করতে পারার দারিদ্রতায় ভুগি সারাক্ষন। তোকে ঘিরে থাকা হাজার মানুষের ভীড় আজকাল আমায় কষ্ট দেয়না এই যে আমি কষ্ট পাইনা সেটাও আমায় কষ্ট দেয় আমি কষ্ট পেতে চাই তোকে ভালবেসে শুন্য রিক্ত হতে চাই । অথচ আমার অনুভুতির মাঠ এখন সবুজ ঘাস [ বিস্তারিত ]
১. ট্রেনের ফ্ল্যাট ফর্মে দাঁড়িয়ে যে দুটো চোখ আমাকে গিলে খেতে চেয়েছিলো- ও দুটো চোখের বাহির দেখেছি শুধু, দেখিনি ভেতরের চঞ্চলতা। আমার উদাস দৃষ্টি সেই চঞ্চলতাকে সম্পূর্ণ অগ্রাহ্য করে  কাঁচের জানলা বেয়ে পৌছে গিয়েছিলো খুব কাছে থেকে বহুদূর। ২. আমি তার মুখোমুখি সেও আমার একই কম্পার্টমেন্টের ভেতর, আমার চঞ্চল হৃদয় তাকে গিলে খেতে চায় সে [ বিস্তারিত ]
আমাদের যেন আর বিড়ম্বনার শেষ নেই। ঘরে ও ঘরের বাইরে যেখানেই থাকিনা কেন বিড়ম্বনা প্রতি নিয়ত আমাদের পিছু ধাওয়া করে বেড়ায়, আমরা যতই পালিয়ে বাঁচতে চাই ততই যেন বিড়ম্বনার ফাঁদে আটকা পড়ি। আগেকার সময়ে ক্যাসেট প্লেয়ারে যখন গান শুনতাম তখন প্রিয় গান বাজাতে গেলেই ক্যাসেটের ফিতা হুইলে আটকে যেত সে এক মহা বিড়ম্বনা তারপর এলো [ বিস্তারিত ]
আবহাওয়াবিদ আর জ্যোতিষীর মধ্যে পেশাগত ভাবে আমি খুব একটা অমিল খুঁজে পাইনা। উভয়েই ভবিষ্যৎ বাণী করে থাকেন কিন্তু মানুষ মাত্রই জানেন তাদের ভবিষ্যৎ বাণী অধিকাংশ সময়ে মেলেনা। যদ্দুর মনে পড়ে আমার ছোট বেলায় এক জ্যোতিষীর আগমন ঘটেছিলো আমাদের বাড়িতে। জ্যোতিষী আমাকে দেখেই চমকে উঠে বলেছিলেন এই ছেলেটা একদিন অনেক বড় হবে। জ্যোতিষীর ভবিষ্যৎ বাণীতে বিগলিত [ বিস্তারিত ]

সাম্প্রতিক মন্তব্যসমূহ