সুপর্ণা ফাল্গুনী

এ জীবন একবার চলে গেলে আর ফিরে পাবো না-তাই কেউ কাউকে কষ্ট না দেই, অপমান না করি। অহংকার, লোভ, হিংসা ত্যাগ করি।

সম্পর্কের টানাপোড়েন পর্ব-০৩

সুপর্ণা ফাল্গুনী ৫ মার্চ ২০২০, বৃহস্পতিবার, ০৬:২৭:৪২অপরাহ্ন গল্প ২২ মন্তব্য
তন্বী না পারছিলো তমালকে বেঁধে রাখতে, না পারছিলো বাঁধন খুলে দিতে। কথা না বললে তমাল তখন খুব আবেগ দেখায়। তন্বী আরো বেশী দুর্বল হয়ে পড়ে তমালের প্রতি। হঠাৎ তমাল বললো,’আমাকে ক্ষমা করো । আমাদের মধ্যে যা হচ্ছে সেটা অন্যায়। তুমি আমাকে পাবেনা তাই মায়া বাড়িয়ে লাভ নেই, কষ্ট পাবে তুমি। বন্ধু ছিলাম বন্ধুই থাকি। আমরা [ বিস্তারিত ]
হঠাৎ তন্বীর মধ্যে এক পরিবর্তন লক্ষ্য করা গেলো। তন্বী যেন উঠতে, বসতে, ঘুমাতে তমাল কে অনুভব করতে লাগলো। একদিন স্বপ্নে তমালকে আপন করে পেলো। তন্বী নিজেকে ভ্রম বলে সান্তনা দিলো। তন্বী যেন ঘোরের মধ্যে চলে গেলো। ভাবলো হয়তো কথা বলতে বলতে , ওর সবকিছু নিয়ে ভাবার কারণেই এমন হয়েছে। কিন্তু দ্বিতীয়বার যেদিন স্বপ্নে দেখলো সেদিন [ বিস্তারিত ]
তন্বী আজ অনেকক্ষণ নীরবে ঘরের দরজা বন্ধ করে কেঁদেছে। কাঁদতে কাঁদতে চোখ দুটো ফুলে গেছে। চল্লিশোর্ধ নারীর এমন আবেগ, আচরণ মানায় না তবুও সে নিজেকে কিছুতেই মানাতে পারলো না। বৃদ্ধ বাবা-মায়ের সংসারে থাকে, কিছুদিন হলো নতুন চাকুরীর চেষ্টা করছে। আগেরটা আর ভালো লাগছিলো না তার কাছে , তাই ছেড়ে দিলো। হঠাৎ একদিন স্কাইপে একজনের সাথে [ বিস্তারিত ]

অষ্টাদশী প্রেম

সুপর্ণা ফাল্গুনী ২ মার্চ ২০২০, সোমবার, ০৫:৫৬:১২অপরাহ্ন কবিতা ২২ মন্তব্য
স্মরণের বাতায়ন খুলে তোমারি অপেক্ষায়- কত শত কথার পংক্তিমালা সাজায় অবোধ্য,বেশরম মনটা। অহোরাত্র তোমারি বাসনায়; উত্তাল-পাতাল কুমারী যৌবন নেশার স্ফুলিঙ্গ ছড়ায়। প্রণয়ের অনুভূতিতে শিহরিত অষ্টাদশী কুমারী। সলাজে লজ্জাবতী যেন করমচা আদল পায়। স্নানঘরে জলস্পর্শে তোমারি চুম্বন- চুয়ে যায় কপোল বেয়ে বক্ষচূড়ায়। রজঃস্বলা জরায়ুতে তোমারি বীর্যপাতের অঙ্কুর ফোঁটাতে চায়। রেশমী বিকেলে সন্ধ্যার সোনা-রঙ যখন আলিঙ্গনে কম্পিত; [ বিস্তারিত ]

অভিনয়-শৈলী

সুপর্ণা ফাল্গুনী ১ মার্চ ২০২০, রবিবার, ০৪:১৫:৩০অপরাহ্ন কবিতা ১৮ মন্তব্য
ভাবনার রঙ্গমঞ্চে কত অভিনেতা-অভিনেত্রীরা অভিনয় করে গেলো হাসি-কান্না ঝরিয়ে। অভিনয় শেষে যে যার গন্তব্যে- চলে গেলো সময়ের স্রোতধারায়। নদী আর সময় কারো জন্য নয়, কেউ হয়তো -একটু আগের প্রিয়জন; একটু পরে নিমেষেই হতে পারে অন্য একজন। পথ চলতে চলতে নিত্যদিন- কত জনের সঙ্গে ভাবের আদান-প্রদান হয়, চেনা-জানা হয়- তারা কি সবাই চিরকাল মনের আয়নায় প্রতিফলিত [ বিস্তারিত ]

আত্মাহুতি

সুপর্ণা ফাল্গুনী ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২০, শুক্রবার, ০৫:২৭:২২অপরাহ্ন কবিতা ২৩ মন্তব্য
কৃষ্ণকালো জলে মেয়েটি আত্মাহুতি দিলো- তার সাথে তার সাজানো স্বপ্ন,ভালোবাসা ও ছিলো। মনের ব্যাস-ব্যাসার্ধের হিসাবটা তার জানা না ছিলো। তাইতো সূলভেই সবার আপন হয়ে যেতো; অন্ধের মতো সবাইকে বিশ্বাস করতো- পাপ-পূণ্যের খতিয়ানটা মেলাতে পারলো না। সমাজের কদর্যতা ধরতে পারলো না। ভালোবাসা, ঘৃণার জ্যামিতিক নকশা অবোধ্য রয়ে গেলো । হীরকখন্ড আর পাথরের কাঠিন্য অজানাই রয়ে গেলো। [ বিস্তারিত ]

কষ্টের বার্তা

সুপর্ণা ফাল্গুনী ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২০, বৃহস্পতিবার, ০৪:৫৮:১৭অপরাহ্ন কবিতা ২৬ মন্তব্য
সাঁঝের ছায়া নেমে আসে ধরণীর বুকে, কোলাহল মুখর এ ধরাকে ভরিয়ে দেয়- নিস্তব্দতার আঁধারে। আষাঢ়ের ঘনঘটা কালো মেঘ আসে- চঞ্চল, অশান্ত মনটাকে নিশ্চল করতে, আষ্টেপৃষ্ঠে বেঁধে রাখতে। আনন্দধারাকে অমানিশার কালোতে ভরিয়ে দেয়- কষ্টের আর্তনাদ। পাওয়ার আনন্দকে নিমেষেই ধূলিসাৎ,ছারখার করে- হারাবার শঙ্কিত ছায়া। এভাবেই দুঃখরূপী রাতের আঁধার সবার মাঝে দেয় ধরা।

পত্রকাব্য

সুপর্ণা ফাল্গুনী ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২০, বুধবার, ০৮:৩০:০৫পূর্বাহ্ন কবিতা ১৯ মন্তব্য
রুগ্ন, মরা পত্রবল্লবের কম্পনে বেদনার সুর , অন্তিম যাত্রায় শরিক হওয়া উলঙ্গিনী পাতাদের আর্তনাদে – প্রকৃতি ও নারী একাকার বিরহের সুর-মূর্ছনায়। নবপল্লবের আত্নচিৎকারে উড়ছে নতুনের কেতন; গাত্রে মাখামাখি আঁতুড়ীয় সুবাস- আকাশ-বাতাস সুমিষ্টতায় পরিপূর্ণ ,উদ্বেলিত। শুকনো পাতারা আড়মোড়া ভেঙে ঝরে পড়ছে মৃত্তিকা গহ্বরে। চরণে শিঞ্জিনীর ছন্দঝর্ণা- ব্যথার আকুলতা ছড়ায়। অমরাযুক্ত স্তন্যপায়ীরা কুড়িয়ে সযতনে মুঠি মুঠি ধরে [ বিস্তারিত ]

সোনেলার মিলনমেলা -২০২০

সুপর্ণা ফাল্গুনী ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২০, রবিবার, ১২:২৫:৪১অপরাহ্ন একান্ত অনুভূতি ৩৪ মন্তব্য
স্কুল জীবনেই লেখালেখির শুরু। বাবার বইপড়ার নেশা থেকেই আমার মধ্যেও সেই নেশাটা জন্মগতভাবে চলে আসে। বিভিন্ন ধরনের ম্যাগাজিন থেকে শুরু করে সেবা প্রকাশনীর সব বই, নিউজিপেপার সবকিছুই বাবা আনতো । আমিও পড়ার জন্য ব্যাকুল থাকতাম। ছোটবেলায় সবার মাঝেই কমবেশী যেটা হয় , আমার মধ্যেও সেটা হতো। যখন যে চরিত্র ভালো লাগতো সেটাই হবার ইচ্ছা হতো। [ বিস্তারিত ]

জীবনের বড়াই

সুপর্ণা ফাল্গুনী ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২০, শনিবার, ১০:২৬:৪৬পূর্বাহ্ন কবিতা ১০ মন্তব্য
আজ তোমার ঘরে সুখের প্লাবন, দুঃখরা নিয়েছে বিদায়। তাইতো করছো বড়াই অন্যের হতাশায়। প্রিয়জনদের ভীড়ে ভরে আছে জীবনতরী, অন্যের একাকীত্বে করেছো টিটকারী। অহংকারের মালা পড়ে হয়েছো উদাসীন, ভুলেছো আসতে পারে তোমার ও দুর্দিন। তোমার উঠোনে বসন্ত-বিলাস করছে লুটোপুটি, জেনো বসন্তের সীমান্তে থাকে চৈত্রের ছটফটানি। অবজ্ঞা,অবহেলায় নিঃসঙ্গতার কান্নাকে বলেছো বাড়াবাড়ি, তুমিও হতে পারো একদিন একাকীত্বের কান্ডারি‌। [ বিস্তারিত ]

ভাষা-আন্দোলন

সুপর্ণা ফাল্গুনী ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২০, শুক্রবার, ১২:০১:২৭পূর্বাহ্ন কবিতা ২৬ মন্তব্য
বায়ান্নর একুশে ফেব্রুয়ারি সালাম,বরকত, রফিক, শফিকের বুকের তাজা রক্তে রঞ্জিত ঢাকার রাজপথ। ঝরে গেলো এক একটি লাল পলাশের পাপড়ি। বন্দুকের গুলিতে ক্ষতবিক্ষত শবগুলো- আচ্ছাদিত লাল রক্তের চাদরে। পাখিদের কলকাকলি থেমে গেলো, অমাবস্যার শ্নশানের ভূতুড়ে নিরবতা সঙ্গী করে। শোকের মাতমে সিক্ত প্রতিটি বাঙালি। মায়ের আঁচল সজ্জিত হলো সন্তানের রক্তকালিতে। কপোল ভিজলো অগ্নিজলের ধারায়। বিখ্যাত কোনো চিত্রশিল্পী [ বিস্তারিত ]

ইচ্ছাপূরণ

সুপর্ণা ফাল্গুনী ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২০, মঙ্গলবার, ১২:২০:০০পূর্বাহ্ন কবিতা ৩২ মন্তব্য
আমার ও ইচ্ছা করে মাধবীলতার মতো বিপ্লবের আরেক নাম হই, আলোকস্তম্ভের মতো মাথা উঁচু করে ভালোবেসে আলো দিয়ে যাই তোমাকে। আমার ইচ্ছা করে দীপার মতো বৈধব্যকে নিয়েও আপোষহীন,অবিচল হয়ে ভালোবেসে যাই তোমাকে। ইচ্ছা করে শেষের কবিতার লাবণ্য হয়ে নিরবে, নিভৃত্যে যাই ভালোবেসে। আমার ও ইচ্ছা করে ইসল্ট ত্রিস্তানের মতো- মরনেও যুগলবন্দী হই তোমার অধরের সূধা [ বিস্তারিত ]

প্রত্যাশা পূরণ

সুপর্ণা ফাল্গুনী ১৫ ফেব্রুয়ারী ২০২০, শনিবার, ০১:৪৮:৩১অপরাহ্ন কবিতা ১৯ মন্তব্য
দুঃখের স্বাদ কেন এতো বিষাদময় লাগে? জীবনের আশা কেন পায় না পূর্ণতার আস্বাদন? নিরাশারই বালুচরে বাঁধে বাসা কতজনে। তবু হায় সুখ মেলে না এ ভুবনে। নষ্টনীড়ে গড়ে উঠে অনিশ্চিত- এক সুখ সংগ্রামের খেলা‌ । বেদনারই মাঝে বেঁচে থাকে স্বপ্নেরই আরেক বাসনা। নীড়হারা পাখির মতো- যাযাবর দিনলিপি অতিবাহিত করে। নদী যেমন সব অতীতকে পিছনে ফেলে- ছুটে [ বিস্তারিত ]

বসন্তের প্রত্যাবর্তন

সুপর্ণা ফাল্গুনী ১৪ ফেব্রুয়ারী ২০২০, শুক্রবার, ১২:০৭:৫৭অপরাহ্ন কবিতা ২৭ মন্তব্য
আম্রশাখে ফাগুন লেগেছে- তাই দেখে দোয়েল,শালিক,চড়ুই দল বেঁধেছে। তারি সাথে বুলবুলি,শ্যামা, টিয়ের নাচন লেগেছে। কলিকারাশির গন্ধে,বর্ণে,রূপে প্রকৃতি মেতেছে; কাক আলয়ে বসন্তের দূত উঁকি মেরেছে। সিঁদুর রাঙা শিমুল পলাশে রঙ লেগেছে- উলঙ্গিনী প্রকৃতির আবক্ষে। প্রেয়স- প্রেয়সী বাসনার বৃত্তে আবদ্ধ বসন্তের মলয়-সমীরে; অলিরা গুনগুনিয়ে যায় দখিনা বাতায়নে, প্রেমরস চুমে ছুঁয়ে যায় প্রকৃতির সিঁথিতে। শিশিরভেজা শিঞ্জিনী শরমে তরুণীর [ বিস্তারিত ]

কতোটা ভালোবাসলে

সুপর্ণা ফাল্গুনী ১২ ফেব্রুয়ারী ২০২০, বুধবার, ০৩:২৮:২৯অপরাহ্ন কবিতা ২২ মন্তব্য
এই ছেলে ! জানো আমি তোমাকে কতোটা ‘ভালোবাসি’? কতোটা ভালোবাসলে তাকে ‘ভালোবাসা’ বলে? এতোটা কেন ভালোবাসলাম? সে উত্তর আমার জানা নেই। শুধু জানি তোমাকে ভালোবাসি- পাগলের মতো, অশান্ত সাগরের বালুকাবেলায় উপচেপড়া ঢেউয়ের মতো, বাধা না বাধা নিয়মের বাইরে,উদ্ভ্রান্তের মতো। কতোটা ভালোবাসলে পাবোনা জেনেও তার জন্য অপেক্ষার প্রহর গোনা হয়, তার কথা শোনার জন্য চিত্ত অস্থির [ বিস্তারিত ]

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য