প্রদীপ চক্রবর্তী

  • নিবন্ধন করেছেনঃ ১১ মাস ৩০ দিন আগে
  • পোস্ট লিখেছেনঃ ৮১টি
  • মন্তব্য করেছেনঃ ১৩৯৪টি
  • মন্তব্য পেয়েছেনঃ ১২৯২টি

অবতরণিকা

প্রদীপ চক্রবর্তী ৯ ফেব্রুয়ারী ২০২০, রবিবার, ০৬:১৪:৫৬অপরাহ্ন একান্ত অনুভূতি ৩১ মন্তব্য
এই বিশ্ব ব্রহ্মান্ডে মানুষ সাহিত্য চর্চা কখন থেকে শুরু করেছে বা সাহিত্যের গোড়াপত্তন কখন কোথায় আমি জানিনা। তবে আমার একান্ত ভাবনা স্রস্টার সৃস্টির প্রথম লগ্ন থেকেই সাহিত্যের বিচরণ। কারণ এই ধরণীর জন্মলগ্ন থেকেই যদি,চন্দ্র,সুর্য, সাগর নদী,ফুল,গাছ, পাহাড়,আকাশ,থাকে,তাহলে সাহিত্যও ছিলো। কারণ যুগে যুগে মহাকবিগণ সাহিত্যিকগণতো এইসব প্রকৃতি থেকেই আস্বাদন করেছেন সাহিত্যের রস। এক কথায় ঐসব প্রকৃতির [ বিস্তারিত ]
পৌষালী রৌদ্রে দিগন্তের আরক্তিমে আকাশপানে যখন মেঘের ভেলা উড়ে গোধূলি নদীর স্রোতে। উপায়ন্তরহীন মগ্নতায় মেঘেরা বৃদ্ধ হয় সমুদ্দুরের রাখালিয়া বাঁশির সুরে, খেয়ালি মাঝির অনুভূতির কবিতা তখন হাওরের বুক জুড়ে উষ্ণতা খুঁজে রক্তজবার রক্তবর্ণ আঁচে। আমাদের শহরে আজও পৌষালি সন্ধ্যার কুয়াশা ডাকা মাঠ জুড়ে কাবেরী ধানের গন্ধ নামে। কৃষকের ঘরে ঘরে ভরে উঠে পৌষসংক্রান্তির নবান্ন। পৌষালি [ বিস্তারিত ]

উত্তরায়ণ বা পৌষ সংক্রান্তি কি

প্রদীপ চক্রবর্তী ১৪ জানুয়ারী ২০২০, মঙ্গলবার, ০৮:২৮:৪২অপরাহ্ন বিবিধ ১৬ মন্তব্য
প্রায় ৫০০০ বৎসর পুর্বে দ্বাপর যুগে হস্তিনাপুর রাজ্য নিয়ে নিয়ে এবং অধর্মের বিনাশ ও ধর্ম প্রতিষ্টার লক্ষে কৌরব ও পান্ডব পক্ষের মধ্যে ধর্মক্ষেত্র কুরুক্ষেত্রে এক মহাযুদ্ধ হয়=এই যুদ্ধে কৌরব পক্ষের প্রধান সেনাপতি ছিলেন ব্রহ্মচারী চিরকুমার মহাবীর পিতামহ ভীষ্মদেব=পান্ডব পক্ষে প্রধান সেনাপতি ছিলেন মহাবীর অর্জুন=দশম দিনের যুদ্ধে পিতামহ ভীষ্মদেব মহাবীর অর্জুনের শরাঘাতে শরশয্যায় পতিত হন=পিতামহ ভীষ্মদেব [ বিস্তারিত ]
তোমায় নিয়ে আমার বড্ড একাকীত্বের ঘোর। কখনো হেমন্তের ব্যস্ত গোধূলিসন্ধ্যার দিগন্তে, কখনো বা কুসুমিত সৌরভের নিসর্গ উদ্যানে। অভিসারের শেষে উদিত সূর্যোদয়ের যমুনার গ্রন্থিবন্ধনে তুমি তো ছিলে আমার মর্মের মর্মাস্থল অন্তরজুড়ে প্রতিটি পদ্যের উচ্চারণে, তোমার প্রতিমূর্তি আজও ভাসে আমার দুনয়নে। অভ্রবেদী জুড়ে সারসের কান্না দূর করে, এসেছিলে তুমি প্রেমিক পাখি ডাহুক রূপে। ব্যস্ত শহরের কুয়াশা ডাকা [ বিস্তারিত ]
সহায় সম্বলহীন মৃন্ময়ী দেবী শোকে পাথর হয়ে উদাসীনভাবে দিকভ্রান্তে ছুটছেন। এমন করুণ শোক আর স্মৃতি আমায় বড্ড কাঁদায়। ঘড়িরকাটা দুপুর একটা ছুঁইছুঁই বিলাস চৌধরী এসেছেন পার্বতীকে নিয়ে বাড়ি চলে যেতে। চারপাঁচ দিন পর পার্বতীর বাগদান হওয়ার কথা। বিবাহের কথা শুনার পর থেকে পার্বতী দিনদিন কেমন হয়ে যাচ্ছে। চোখেমুখে বিষাদের কালোছায়া বহমান। তাকে একদন্ড হাসিমুখে দেখতে [ বিস্তারিত ]

ঈশ্বরী

প্রদীপ চক্রবর্তী ২০ ডিসেম্বর ২০১৯, শুক্রবার, ১০:০৬:১২অপরাহ্ন একান্ত অনুভূতি ২৪ মন্তব্য
হেমন্তের প্রতি প্রহরে রজনীগন্ধার গন্ধ শহরজুড়ে নামলেও মুহূর্তের মধ্যে সে গন্ধ বরাদ্দ হয়ে যায় ল্যাম্পপোস্টের আলোতে। এ নীলাদ্রির বুকে সেই কবে যে ঈশ্বর প্রেমের নিশানা উড়িয়ে দিয়েছিলেন তা আজ কিছু প্রেমিকের ধরা ছোঁয়ার বাইরে। জানো প্রমি মানুষ নিতান্তটুকু প্রেমে পেলে ভাবে পাহাড়সম রাজন হতে। আসলে কিছু মানুষ জন্ম থেকে এসব প্রেমে জন্মান্ধ। যে ছেলেটা বিপ্লবী [ বিস্তারিত ]

বিজয়

প্রদীপ চক্রবর্তী ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯, সোমবার, ০৮:২৩:০৮পূর্বাহ্ন কবিতা ২০ মন্তব্য
বিজয় তুমি উদিত সূর্যোদয়ের সোনালি ফুলের ঘ্রাণ, বিজয় তুমি লাখো শহীদের প্রাণ। বিজয় তুমি কবি বেশে জনসমুদ্র মঞ্চে শেখ মুজিবুর রহমান, সবুজের বুকে লাল তুমি মুক্তির সুরে গাও বিজয়ের গান। বিজয় তুমি গর্জে উঠা শহীদের একাত্তর মম অন্তরে গ্রথিত তুমি, বইছো নিরন্তর। বিজয় তুমি সোনালী মাঠে লাল সবুজের পতাকা, একখণ্ড সভ্যতার মাঝে তুমি চিরসাক্ষী হয়ে [ বিস্তারিত ]

বিবর্ণ বিরহে

প্রদীপ চক্রবর্তী ১২ ডিসেম্বর ২০১৯, বৃহস্পতিবার, ০৭:২৭:২১অপরাহ্ন একান্ত অনুভূতি ১৯ মন্তব্য
বিরহ মলিনে আমি কেঁদেছি যবে, নিঃসঙ্গতার তাপদাহনলে পুড়েছি তবে। অন্তরে রেখেছি তোমায় তব বিকশিত বিকাশে, রজনী কাটাব বলে চাহিয়া আকাশে আকাশে। ফল্গুর তীরে প্রভাত শিশিরে, কত শয়নেস্বপনে করেছি বপন মম অন্তর অন্তরে। দিয়েছ তুমি আমায় কত বেদনার বিধুর, তুমি অন্যতে করেছ নিজেকে বপন অন্যতে দিয়েছ সুর। আঁচলের খুঁটে রেখেছ বাঁধিয়া তারে, আমারে ঠেলিয়া তবে দিয়াছ [ বিস্তারিত ]

পর্বতকন্যের ইতিকথা

প্রদীপ চক্রবর্তী ৪ ডিসেম্বর ২০১৯, বুধবার, ০৬:০৮:১২অপরাহ্ন উপন্যাস ১০ মন্তব্য
পর্ব ৬৯ শীতের আদ্র সকাল। বারান্দায় বসে রোদের দিকে পিঠে পিঠ দিয়ে এলোচুল শুকিয়ে নিচ্ছে পাশের বাড়ির অরুণিমা দিদি। বয়স প্রায় আঠারো কুড়ি ছুঁই ছুঁই। বাড়িতে অরুণিমা দিদি ও তার মা মৃন্ময়ী দেবী ছাড়া তাদের আর কেউ নেই। অরুণিমা দিদির আদরের এক ভাই ছিলো,গতবছর বসন্ত রোগে মারা গিয়েছে। ভাইয়ের নাম অনুপম। লোকমুখে শুনেছি ছেলেটা লেখাপড়ায় [ বিস্তারিত ]

পর্বতকন্যের ইতিকথা

প্রদীপ চক্রবর্তী ২৯ নভেম্বর ২০১৯, শুক্রবার, ০৬:১৭:৪৭অপরাহ্ন উপন্যাস ৭ মন্তব্য
#পর্ব_৬৭ … ধুলোমাখা জীবনের পদে পদে রয়েছে কত বাঁক। কে জানতো এ বাঁক সহজের পথে উত্তরণ হবে। এ শহরে এসে কত রাত,কত প্রহর কাটিয়েছি একাকীত্বের নির্বাকে। যদিও এই একাকীত্বের উপসংহারের শেষবেলা পার্বতী  নামক ভালোবাসার মানুষটি কাছে এসেছিলো। আমরা একে অপরের বদ্ধপরিকরে বেসেছিলাম ভালো দুজন দুজনাকে। নিয়তিকে অগ্নিহোমে সাক্ষী রেখেছিলাম। আজও দুজন নিয়তির উপর নির্ভর করে [ বিস্তারিত ]

পর্বতকন্যের ইতিকথা

প্রদীপ চক্রবর্তী ২৫ নভেম্বর ২০১৯, সোমবার, ০৫:৫৯:২৬অপরাহ্ন উপন্যাস ১২ মন্তব্য
#পর্ব_৬৫ সুবর্ণ গ্রামে আমাদের শীতের স্নিগ্ধ সকাল। শিশির ভেজা ঘাসের ডগায় একে একে প্রজাপতির চিহ্নচাপ। অনুরাগ জমে আছে এই শিশির ভেজা ঘাসের ডগায়। শীত এলেই যে সন্ধ্যা এসে ঝাঁপিয়ে পড়ে সুবর্ণ গ্রামে। খানিকক্ষণ পর শুভ মধ্যাহ্ন। পুরো গাঁ ঘুরে বেড়ালাম আমি আর বিনোদ। ভালো একটা সময় অতিবাহিত করলাম আমরা। এ গ্রামের ঐতিহ্যবাহী কুটিরশিল্পের সাথে অনেক [ বিস্তারিত ]

পর্বতকন্যের ইতিকথা

প্রদীপ চক্রবর্তী ২৩ নভেম্বর ২০১৯, শনিবার, ০৬:৫৪:৫৩অপরাহ্ন উপন্যাস ১৫ মন্তব্য
#পর্ব_৬৩ বৃষ্টিভেজা হেমন্তের রাত্রি। চোখে ঘুম নেই। চাদর গায়ে দিয়ে বারান্দায় একলা বসে জোনাকি দেখছি। রাত যত গভীর হচ্ছে কুয়াশা ততো শহরে নিমজ্জিত হচ্ছে। কনকনে শীতের আমেজ বেড়ে চলছে। দুচোখ চিন্তার ঘুমে মগ্ন। পাহাড়ের গা বেয়ে নামছে বৃষ্টি। যতদূর চোখ যায় ততো দূর দৃষ্টি মোহাচ্ছন্ন। কয়েকদিন থেকে ঘুম নেই। তবুও অতন্দ্র প্রহরীর সাজে পার্বতীর ভালোবাসায় [ বিস্তারিত ]
হেমন্তের আগমনে যমুনাতীর ধরে আজকাল শরতের কাশফুল দেখা যায়না। কাশফুল অনেকটা মৃত্তিকাভেদে নিমজ্জিত। শহর জুড়ে শীতের রাজত্ব আর ভেজা ফুলের গন্ধে মাতাল প্রজাপতির দলছুট। সকাল থেকে বৃষ্টি নামছে কার্নিশ বেয়ে। রোদের আভাস নেই। হেমন্তের এই ভরা যৌবনে গঙ্গা,যমুনা দুই’ই স্রোতস্বিনী নয়। তবুও অনেকটা বহমান স্রোত। ঋতুরাজ বসন্তের ন্যায় হেমন্ত আমার বেশ প্রিয়। মাঠেঘাটে সোনালি ধান [ বিস্তারিত ]

ওগো হুনছো নি!

প্রদীপ চক্রবর্তী ৭ নভেম্বর ২০১৯, বৃহস্পতিবার, ০৬:৪৩:০০অপরাহ্ন চিঠি ১৫ মন্তব্য
এরে হুনরায়নি গো? বাক্কা কতদিন অইগেছে তোমারে দেখছি না। আমার জানে বড়ো আনচান আনচান করে তোমারে দেখার লাগি। যেমনে ঢাকা শহর গিয়া বইলায়,বউবাইচ্চার খবরও নেও না এ কি আবস্তা আরম্ভ করলায় তুমি। তোমার দুও পোয়া পুড়িনিতে আব্বা আব্বা কইয়া কান্দিতরা একছারা তোমারে দেখার লাগি। আমার বিয়ান,মাধান,আইন্জা,রাইত ঘুম নাই তোমার চিন্তায়। আর মাইনসে আমারে আইয়া যুক্তি [ বিস্তারিত ]

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য