নীরা সাদীয়া

খুব সাধারন একটি মেয়ে।

  • নিবন্ধন করেছেনঃ ৩ বছর ৫ মাস ১৬ দিন আগে
  • পোস্ট লিখেছেনঃ ৮৭টি
  • মন্তব্য করেছেনঃ ১১৮৯টি
  • মন্তব্য পেয়েছেনঃ ১৬৯৬টি

কে তুমি?

নীরা সাদীয়া ১২ মার্চ ২০১৯, মঙ্গলবার, ০৪:১৫:৩২অপরাহ্ন কবিতা ১৪ মন্তব্য
আমাকে একজন সৃষ্টি করেছেন, অতপর নানান রূপ দিয়েছেন। তারপরে লেখা হয়েছে কতশত গান আর কবিতা। তুলির ছোঁয়ায় আমাকে ফুটিয়ে তুলেছেন রবি ঠাকুর কিংবা ভিঞ্চি, নজরুল দিয়েছেন কৃতিত্বের সমান সমান ভাগ। রোকেয়া দিয়েছেন শিক্ষার আলো। পেরিয়ে গেছে কত শত বছর। এরপর এল সোনার মেয়ে মালালা। হ্যাঁ,আমি কখনো মালালা, কখনো রোকেয়া, কখনো নবাব ফয়জুন্নেসা, কখনো সুলতান রাজিয়া, [ বিস্তারিত ]

আমাদের যুবসমাজ

নীরা সাদীয়া ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০১৯, মঙ্গলবার, ১০:১৩:২১পূর্বাহ্ন একান্ত অনুভূতি, এদেশ ২১ মন্তব্য
আমি একটি গ্রুপের এডমিন প্যানেলে রয়েছি বেশ কিছুদিন যাবত। গ্রুপটি ইংরেজি ভাষা ও সাহিত্যের ওপর ভিত্তি করে তৈরি জ্ঞানচর্চার একটি প্লাটফর্ম। পৃথিবীর ১৯৩ টি স্বাধীন দেশের মাঝে কিছু দেশ বাদে প্রায় সকল দেশের কিছু কিছু নাগরিক গ্রুপটিতে রয়েছেন। সেখান থেকে অনেক কিছুই শিখতে পেরেছি। পাশাপাশি অনেক কিছু অনুধাবনও করতে পেরেছি। প্রথমেই আসি এডমিন প্যানেলের প্রসঙ্গে। [ বিস্তারিত ]

ক্রাশ

নীরা সাদীয়া ২১ জানুয়ারী ২০১৯, সোমবার, ০৩:৫৯:৫০অপরাহ্ন গল্প, সাহিত্য ১০ মন্তব্য
সেপ্টেম্বরের এক অলস দুপরে বসে বসে ঝিমুচ্ছিলাম। এমন সময় হঠাৎ পুরোনো বাটন ফোনটা বেজে উঠলো। রিসিভ করে জিজ্ঞেস করলাম, : কে বলছেন? : আমি অর্ণব। ছোটবেলার বেশ কজন ক্রাশের ভেতর অর্ণব একজন! কিন্তু একই নামে আরো কত মানুষ থাকতে পারে।তাই সাতপাঁচ না ভেবে আবার কথা বললাম, ওপাশ থেকে শুনতে পেলাম “হ্যালো…….. হ্যালো” বলেই চলেছে। : [ বিস্তারিত ]

জীবন বচন

নীরা সাদীয়া ৩০ নভেম্বর ২০১৮, শুক্রবার, ১০:০৮:৩৯পূর্বাহ্ন একান্ত অনুভূতি ১০ মন্তব্য
জীবন একটা চোরাবালির মত। এখানে সেখানে ফাঁদ পাতা। দূর থেকে দেখে মনে হবে সুখের চাদরে ঢাকা। কিন্তু কাছে গিয়ে চাদরটা খুললেই দেখা যাবে ভেতরে একটা বিশাল উঁচু রুক্ষ, বন্ধুর পাহাড়ের চূড়া! অবাক হবার কিচ্ছু নেই, এটাই সত্য, নির্মম সত্য। আপনার সামনে একটি অতি উঁচু পাহাড় দিয়ে বলা হবে এটাকে ডিঙোতে পারলে জয় অনিবার্য। আপনি সারা [ বিস্তারিত ]
মিতা ঘুম থেকে উঠে চোখ ডলে আবার বালিশে মুখ গুঁজে শুয়ে পরলো। কদিন যাবত চোখ ভর্তি ঘুম যেন ছাড়ছেই নাহ। এরই মাঝে মা এসে দুটো ধমক লাগালেন, “মিতা….. এই মিতা, ওঠ। তোর বাবা দুদিন আগে যে বায়োডাটাগুলো দিয়েছেন,সেগুলো টেবিলে জমিয়ে রেখেছিস কেন? এগুলো দেখে এবার মতামত দে।তোর বাবা তো আমাকে জিজ্ঞেস করে করে পাগল করে [ বিস্তারিত ]

আত্নজীবনী

নীরা সাদীয়া ২১ জুন ২০১৮, বৃহস্পতিবার, ১২:৩৭:৪৯পূর্বাহ্ন একান্ত অনুভূতি ১৩ মন্তব্য
#জীবন   অনেকদিন যাবত মনের কোণে ভেসে বেড়ায় কিছু স্মৃতি, কিছু কথা। সেই কবে ছোট্টবেলায় বই,খাতা,কলম, পেন্সিল ইত্যাদির সাথে পরিচয়। রঙিন ছবিওয়ালা নতুন বই, বিভিন্ন রঙের রঙ পেন্সিল, নানা ধরনের কলম এসব নিয়েই আনন্দময় শৈশব। তবে সেই শৈশব থেকেই ছিলাম কঠোর পরিশ্রমী। মাত্র ১ মাসে ফুপাতো বোনেরা পেন্সিল ধরা থেকে শুরু করে ভার্তি পরীক্ষার জন্য [ বিস্তারিত ]
প্রায়ই নানা ঘটনা শুনি, লেখি এবং নানাকিছু শিখি। কিন্তু নিজের চোখে দেখা অভিজ্ঞতা খুব কম। আজ ময়মনসিংহ জয়নুল আবেদীন সংগ্রহশালার সামনে দিয়ে যাচ্ছিলাম আমি আর আমার এক বান্ধবী। এমন সময় আমাদের অপর পাশ দিয়ে ক্রস করছিল এক রিকশাচালক। হঠাৎ রিকশাচালক আমার সাথে থাকা মেয়েটার সাথে অসভ্যতা করে জোরে রিকশা চালিয়ে চলে যাচ্ছিল। আমি ঘটনার আকস্মিকতায় [ বিস্তারিত ]
এই ব্লগে অনেক জ্ঞানীগুণীজন রয়েছেন,যাঁরা আজকালকার শিক্ষাব্যবস্থা সম্পর্কে অবগত।তারপরো আমি কিছু লেখার সাহস দেখালাম। ত্রুটি বিচ্যুতি মার্জনা করবেন আশা করি। আমাদের বর্তমান শিক্ষা পদ্ধতি নাকি সৃজনশীল। সৃজনশীলতার নামে আমাদের পিঠে চাপানো হয় একগাদা কাগজের বোঝা,যাতে কিছু সূত্র,সূত্রের প্রমাণ, কুকুরের এক লাফ,বানরের তিন লাফের মত অংক। কিংবা, লগারিদম, সমাকলন আরো কত কি! কিন্তু এসব অংকের বাস্তবিক [ বিস্তারিত ]

“তুমি”

নীরা সাদীয়া ২৪ মার্চ ২০১৮, শনিবার, ০১:১১:০১অপরাহ্ন একান্ত অনুভূতি, কবিতা, সাহিত্য ১৬ মন্তব্য
তুমি যেন মাথাব্যথার মতই সবসময় কপাল জুড়ে থাকো। তুমি একঘেয়ে কালো কালি, মনের ভেতর আঁকিবুকি আঁকো। তুমি মশার ভ্যান ভ্যান শুনতে চাই না তবু চাই, তুমি গগন দহন রোদ আমি পুড়ে ভষ্ম হয়ে যাই। তুমি গরম তেলের ফোঁটা, দাগ হয়ে বেঁচে থাকো, তুমি কার্বনমনো অক্সাইড, দম বন্ধ করে রাখো। আমি হালকা শীতল ছাতা, গেলাসে চিমটি [ বিস্তারিত ]

নয়নতারা : ১

নীরা সাদীয়া ১৮ জানুয়ারী ২০১৮, বৃহস্পতিবার, ১১:১২:১৭অপরাহ্ন গল্প, সাহিত্য ৯ মন্তব্য
নয়নতারা পর্ব:১ বাংলাদেশে যেসব পাহাড় রয়েছে, তার মাঝে গারো পাহাড় অন্যতম। ময়মনসিংহ জেলায় এই পাহাড়ের অবস্থান। গারো পাহাড়ের কোলঘেষে মেঘডুবি গ্রাম। এই গ্রামের ঘরগুলো বেশ ফাঁকা ফাঁকা, একটা বাড়ি থেকে আরেকটা বাড়ি অনেক দূরে। এখানেই পাহাড়ের কোলে বেড়ে ওঠে নয়নতারা। প্রতিদিন ভোরে সূর্যের সাথে তার ঘুম ভাঙে,আবার সূর্যি ডোবার সাথে সাথেই ঘুমোতে যায়। জমির আলি [ বিস্তারিত ]

এলিজি

নীরা সাদীয়া ১৩ ডিসেম্বর ২০১৭, বুধবার, ১১:৩৭:১২অপরাহ্ন একান্ত অনুভূতি, কবিতা ৩ মন্তব্য
পৃথিবীর সবচেয়ে সুন্দর পাখিরা হারিয়ে গেছে! এখন এই বিষাক্ত, কুতসিৎ পৃথিবীতে বেঁচে নেই কোন নিরীহ প্রাণ। ছোট্ট নিষ্পাপ একটি প্রাণ বিষাদে,আঘাতে ক্ষত বিক্ষত! হত্যাকারীকে দেখে জানিনা কতটা ভয় পেয়েছিলে, কতশতবার খুঁজেছিলে আমায়! আমার যেতে এত দেরী হবে, তা কে জানতো! পৃথিবী, তোমার কোলে ঘুমায় কয়েকটি নিষ্পাপ পাখি শিশু। সব দায়ভার আজ থেকে তোমার। তাদের আগলে [ বিস্তারিত ]
অপরাজিতা এবং আরও কিছু কথা….. নারীদের সক্ষম করতে, উদ্যোগী ও উৎসাহিত করতে কি না করছে সরকার? অামরা অনেক খারাপ কিছুর পাশাপাশি ভালো দিকগুলো দেখতে ভুলে যাই। একসময় ৬ষ্ঠ থেকে দ্বাদশ শ্রেনি পর্যন্ত উপবৃত্তি পেয়েছি, কোন বেতন লাগে নাই পড়াশোনা করতে। এখনতো ছাত্রছাত্রীরা বিনামূল্যে বই পায়। দিনে দিনে উন্নত হচ্ছে সেবা, এগিয়ে যাচ্ছে দেশ, এগিয়ে যাচ্ছে [ বিস্তারিত ]
জানি না কেমন পারিপার্শ্বিকতা নিয়ে, কতটা মানসিক জোড় নিয়ে, কতটা ধৈর্য্য নিয়ে এগিয়েছেন এই ভাইটি। পরপর তিনবার ব্যার্থতা!  😮 আমার চারপাশের সকলকে যদি নিজের মনের কাছে সত্য বলতে বলি, তবে কেউ কি এমন আছে যে এটা মেনে নেবে? যার ব্যার্থতা তার চেয়ে বেশি সমস্যা হবে ব্যার্থ ব্যাক্তির চারপাশের লোকজনের। তারা ১ বার ব্যার্থতা তো দূরে [ বিস্তারিত ]

কে বলেছে?

নীরা সাদীয়া ১০ অক্টোবর ২০১৭, মঙ্গলবার, ১১:১৬:৩৭অপরাহ্ন একান্ত অনুভূতি, সমসাময়িক ১০ মন্তব্য
কে বলেছে মেয়ে মানুষকে শুধু ঘরে বসে থাকতে হবে, অনেক রান্নাবান্না জানতে হবে,অন্যের পেট ভরানোর দায়িত্ব নিতে হবে, অনেক লম্বা চুল রাখতে হবে, রূপচর্চা করতে হবে, অন্যের চোখের খোড়াক হতে হবে? কে বলেছে বিয়েই মেয়েদের জীবনের একমাত্র লক্ষ্য? ঘরেতো প্রতিবন্ধীরাও বসে থাকে, যাদের পায়ে বল নেই, রান্নাতো বাড়ির বুয়াও জানে, চুলতো পেত্নীরও নাকি পা পর্যন্ত [ বিস্তারিত ]

ময়মনসিংহ গীতিকা (রিভিউ)

নীরা সাদীয়া ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৭, মঙ্গলবার, ০৯:০৫:৪৭পূর্বাহ্ন এদেশ, কবিতা, সাহিত্য ১০ মন্তব্য
বানিয়াচঙের সোনাফর দেওয়ানের দুই ছেলে আলাল ও দুলাল। দেওয়ানের স্ত্রী মৃত্যুশয্যায় থেকে স্বামীকে অনুরোধ করে গেছেন তাঁর মৃত্যুর পর যেন স্বামী আর কাওকে বিয়ে না করেন, সন্তানদের জন্য যেন সৎ মা না আনেন। স্ত্রী সৎ মায়ের অত্যাচার বোঝাতে একটি কবুতরের গল্প বলেন যেখানে স্ত্রী কবুতর মারা গেলে পুরুষ কবুতরটি বিপাকে পরে। ছানা দুটোকে রেখে খাবার [ বিস্তারিত ]

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য