মারজানা ফেরদৌস রুবা

###"আমার দেশ আমার অহংকার"

###"মুক্ত করো ভয়, আপনা মাঝে শক্তি ধরো, নিজেরে করো জয়"

  • নিবন্ধন করেছেনঃ ৫ বছর ৬ মাস ১ দিন আগে
  • পোস্ট লিখেছেনঃ ২১৪টি
  • মন্তব্য করেছেনঃ ১৮৪০টি
  • মন্তব্য পেয়েছেনঃ ৩০৬১টি
একাত্তরে এক কঠিন ঐক্য আর জাতীয় চেতনাবোধ ছিল বাঙালীর মননে। এই চেতনাবোধ আমাদেরকে ধর্মীয় পরিচয়ের উর্ধ্বে উঠে বাঙালী করে তুলেছিলো। চেতনাবোধের সে স্ফুলিঙ্গ আগুন ধরিয়েছিলো বাঙালীর মননে। যার ফলে প্রবল পরাশক্তির শতভাগ সমর্থন থাকার পরও পাকবাহিনীর ইজ্জত মুক্তিবাহিনীর কাছে অসহায় আত্মসমর্পণের মধ্য দিয়ে লুটিয়ে পড়েছিল তাসের ঘরের মতো। চেতনাবোধের সে জাদুস্পর্শ ছুঁয়ে গিয়েছিলো দেশ-দেশান্তরে ছড়িয়ে [ বিস্তারিত ]
যে প্রথায় হীনতা আছে, দীনতা আছে তাকে বদলালে সমাজ এগোবে। ভাঙ্গতে না পারলেও, পরিবর্তন তো আনাই যায়! শুদ্ধিকরণ তো করাই যায়! একটা সময় ছিল যখন বিবাহিত মেয়ে মানেই হররোজ তাকে শাড়ি পরতেই হতো! যত কম বয়সেই বিয়ে হোক না কেনো, বউ বলে কথা! শাড়ি না পরলে কি চলে? শাড়ি সামলাতে পারুক আর না পারুক তবুও [ বিস্তারিত ]

বীরাঙ্গনা-১

মারজানা ফেরদৌস রুবা ৫ ডিসেম্বর ২০১৪, শুক্রবার, ০৪:১৭:৫৩অপরাহ্ন মুক্তিযুদ্ধ ৩১ মন্তব্য
১৯৭১ সালে ৯ মাস ব্যাপী যুদ্ধকালীন সময়ে পাকবাহিনী দ্বারা ধর্ষিত বীরাঙ্গনাদের করুণ পরিণতির পেছনে প্রত্যক্ষ ভূমিকা রেখেছিলো এদেশেরই কিছু লোক রাজাকার-আলবদররা। তাদের সাহায্য নিয়েই মিলিটারিরা অসহায় নারীদের উপর তাণ্ডব চালিয়েছিলো, যে তাণ্ডবের যন্ত্রণা তাঁরা আজও বয়ে বেড়াচ্ছেন। শ্রীপুরের বীরমাতা মমতাজ গর্ভাবস্থার নয় মাস চলাকালীন সময়ে আট পাকিস্তানি সৈন্য কর্তৃক ধর্ষিত হন। যার ফলে জরায়ু ও [ বিস্তারিত ]
বাংলাদেশের জাতীয় পতাকার প্রথম নকশা-প্রণেতা হিসাবে পটুয়া কামরুল হাসানের নাম প্রচলিত থাকলেও মুলতঃ লাল-সবুজের মূল পতাকার নকশা করেন কুমিল্লা জেলা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক ও কেন্দ্রীয় ছাত্রনেতা শিব নারায়ন দাশ। সবুজ জমিনের উপর লাল সূর্যের মাঝে হলুদ রঙের বাংলার মানচিত্র খচিত পতাকা। পরে মানচিত্রটি সরিয়ে পতাকাটি পরিমার্জন করায় কামরুল হাসানকেই নকশাকার হিসেবে স্বীকৃতি দেয়া হয়। ১৯৭১ [ বিস্তারিত ]

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য