অন্তরা মিতু

জল ছাড়া ডুবে যাওয়া আমি এক বোকা... ;

যুক্তি না মানা, এক নারী একরোখা...

  • নিবন্ধন করেছেনঃ ৬ বছর ৮ মাস ৪ দিন আগে
  • পোস্ট লিখেছেনঃ ১৭টি
  • মন্তব্য করেছেনঃ ১৫৬টি
  • মন্তব্য পেয়েছেনঃ ২১৫টি

শুভদৃষ্টি

অন্তরা মিতু ৯ জুলাই ২০১৯, মঙ্গলবার, ০৭:০৩:০২অপরাহ্ন কবিতা ১০ মন্তব্য
(আনন্দিত  মনের ২টা কথা- ১. সোনেলার সকল বন্ধুদের প্রতি আন্তরিক ভালোবাসা …. লেখা আর পড়ার আনন্দ মিলেমিশে একাকার হোক ঊষার আঁধার-কাটা সোনালী আর লালের মতো….. নিঃস্বার্থ অনুভূতির দেয়া-নেয়ার অকপট দাবীতে সরব সচল সানন্দ থাকুন সোনেলার ঘরে, জানালায়, বারান্দায়, উঠোনে……. ২. সোনেলা প্রশাসনের প্রতি উদ্ভাসিত খুশীর হাসি, এই গরীবের আইডি টি সযত্নে লালনের জন্য….. এবার আর [ বিস্তারিত ]

তারপর

অন্তরা মিতু ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০১৬, বৃহস্পতিবার, ০৮:০২:৩৯অপরাহ্ন কবিতা ১৫ মন্তব্য
সারাটি জীবন তার আমার জীবনে যে এক নতুন খেলা খেলে আনমনে সারাটি জীবন তার সারাটি ভুবন তার সারাটি সময় তার আমার ভুবনে মিলেমিশে একাকার বরষা-প্লাবনে… প্রথম বরষা খরা-মাটির উপরে শুষ্ক-সকাল শেষে কঠিন দুপুরে এমন উষ্ণ ক্ষণ তৃষ্ণায় উচাটন হঠাত মেঘের মায়া এমন আদরে জল-মাটি একাকার বাসর সাদরে… – রাত ৮ টা ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০১৬ উত্সর্গ [ বিস্তারিত ]

যুক্তি

অন্তরা মিতু ৩০ এপ্রিল ২০১৫, বৃহস্পতিবার, ১০:৪২:৪২অপরাহ্ন বিবিধ ১৫ মন্তব্য
– প্রিয় সোনেলার প্রিয় বন্ধুদের জন্য একটি অনুবাদ…… ভালোবাসা সবাইকে 🙂 – “Kisses spread germs and germs are hated but i’ll let you kiss me for i’m vaccinated…” _____________________________(সংগৃহীত) . – . যদিও চুমুতে কিছু জীবাণু ছড়ায় জীবাণুতে সবারই তো অনীহা শুধু তবুও তোমারে আমি কাছে টেনে নিই ডুবে যেতে দিই ঠোঁটে; কারণ সহজ প্রতিরোধ [ বিস্তারিত ]

গল্পের মতোন…

অন্তরা মিতু ২৫ আগস্ট ২০১৪, সোমবার, ০২:১৮:১৫পূর্বাহ্ন গল্প ১৩ মন্তব্য
– ঘুম ভাঙ্গার সময়টাকে সকাল বলা যায় না…. প্রায় দুপুর, দুপুর বা কোনোদিন দুপুরের একটু পরে। রঙিন কাপড় দেখলেই গায়ে জ্বালা ধরে ধ্রুবর। এই দুপুরের রোদে সাততলার জানালা দিয়ে তাকাতেই পৃথিবীর সমস্ত রঙের ভেজা শাড়ি চোখে পড়ে। প্রতিটা দিনই এমন। কত শাড়ি যে পরতে পারে ওই বিল্ডিংয়ের মহিলারা! দিন শুরু না হতেই শাড়ি ধুয়ে-টুয়ে ছয়তলার [ বিস্তারিত ]

পাওয়া…

অন্তরা মিতু ১৫ জানুয়ারী ২০১৪, বুধবার, ১১:০২:০১পূর্বাহ্ন বিবিধ ১১ মন্তব্য
– মাঝখানে একজোড়া পাথরের দেয়াল ভীষণ শক্তি ও কৌশল প্রয়োগে তা ভেঙ্গে ফেলার পরে, একজোড়া কংক্রীট এর দেয়াল… তা-ও ভাঙ্গা হলো; এরপর ভারী কাঠের কারুকার্য, যেন অজন্তা-ইলোরার গাছ-ভার্সন নির্মম হাতে সেই দুই শিল্পও টুকরো করা হলো; এরপর প্লাই-উড এর আধুনিক ডিজাইন… সহজতর হলো সেই দুই-দেয়াল ভাঙ্গার পদ্ধতিটুকু; এবার সামনা সামনি দেখা যাচ্ছে চোখ, দেখা যাচ্ছে [ বিস্তারিত ]
আমার বন্ধুর সদয় অনুমতি নিয়ে লেখাটি নীচে দিলাম… যদিও কপি করে অন্য কারো লেখা দেয়ার মধ্যে দায়মুক্তির একটা সুর থাকে, কিন্তু আমি সরাসরি বলছি, এই লেখার বিষয়ে আমি যে কোনো দায় নিতে প্রস্তুত; কারণ আমি উনার উদ্দেশ্য ও মতের সাথে সম্পূর্ণ সহমত। – – – – – – – – – – – – – [ বিস্তারিত ]

জল

অন্তরা মিতু ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৩, বুধবার, ১০:৫১:২৯পূর্বাহ্ন বিবিধ ১৬ মন্তব্য
– সমুদ্র শোনে না কথা অন্যের সব স্বর, যে কোনো আকুতি অথবা আদেশ, কিছু অনুরোধ, আর, কিছু সাধারণ কথা নিয়ে, যত অগণিত মানুষ গিয়েছে তার কাছে, সকলের সব ধ্বনি গিলে গিলে গিলে চূর্ণ করেছে তার ঘূর্ণি-গহীনে… তবুও মানুষ যায় এখনো… আরো যাবে আগত দিনেও… রূঢ়জলে মিশে যাবে কত সুখ-দু:খের গোপন কাহিনী… সে তো শুনবে না… [ বিস্তারিত ]

বরষায়…

অন্তরা মিতু ২০ জুলাই ২০১৩, শনিবার, ০১:২৯:২৮পূর্বাহ্ন বিবিধ ১২ মন্তব্য
– রঙ আর রঙ চারিদিকে… এইবার যেন কিছু হবে… বরষার সাদা ফুলে ফুলে, লুকোনো লালিমা লজ্জার কোন্ ফাঁকে হয়েছে প্রকাশ ! যেন, ঘুম ভেঙেছে ঘুমের… জেগে ওঠা ভোরের ভিতরে, জেগেছে আরেক রঙ-ভোর… এইবার কিছু হয় হোক… এইবার কিছু রঙবোধ তোমাকেও জলের ঘোরে, ভিজিয়ে করুক যে বেহাল বরষার অজুহাতে ; আজ, শুভ্রতা নুয়েছে যেমন অবিরাম ধারায় [ বিস্তারিত ]
– ঈশ্বর এক – বীর ভোগ্যা তুমি নারী বীর জায়া তুমি নারী বীর মাতা তুমি নারী কিন্তু তুমি মানুষ নও । তুমি ভোগ্য পণ্য এই বিধির বিধান –পুরুষের উক্তি । আমি বলি , উল্টিয়ে ফেল্বো আমি বিধির বিধান এই আমি সিঁথির সিঁদুর মুছে ফেললাম এই আমি নাকের নথ খুলে ফেললাম এই আমি শাঁখা নোয়া ভেঙ্গে [ বিস্তারিত ]
. চিরকুট ০২ . দিয়াশলাই, চল্লিশ শলাকা আত্মঘাতী নিয়ে গৃহবন্দী জীবনের অভিনয় আর কত? দেহের দু’ পাশে শৈল্পিক ধ্বংস এঁকে নিরীহ নীরবতার প্রয়োজন নেই। আমাদের নাগরিক জীবন ধ্বংসে নির্লিপ্ত আমরাই যথেষ্ট। . . . সীমান্ত পথিক কবি মে ১৪, ২০১৩ .
শহর তুমি হও… শহর তুমি হও… ছোট্টবেলায় আঁকা, ড্রয়িং খাতার ছবি। এপাশে কুঁড়ে ঘর, পিছে সবুজ কলাগাছ, কচি সবুজ পাতা। দূর হতে আসা, কলসি কাঁখে মেয়েটার রং বাদামী। হলুদ-সবুজ ধানক্ষেতে ছেলেটা উড়ায়, লাল একটা ঘুড়ি। খাতার মাঝ বরাবর নদী। নদীর রঙটা আবার নীল। শান্ত শান্ত ঢেউয়ে, সাদা পালে পাড়ি দেয় কালো রঙের মাঝি। ওপাশে ঢেউ [ বিস্তারিত ]
ব্রেকিং নিউজ সামগ্রিক কূটচালে ইদানিং ঈশ্বরে ভয়ানক ঈশ্বর-ভীতি দেখা গেছে, বিশ্বস্ত সূত্রে জানা যায় – আজকাল অস্তিত্বের সংকটেও বেশ ভুগছেন তিনি। ব্লাড প্রেশার বেড়েছে, চিন্তায় চিন্তায় ইনসমনিয়ায় আক্রান্ত ঈশ্বর, ঘুমের অভাবে কিছুটা ফ্যাসীবাদীও হয়ে পড়েছেন বলে জানা যায় গোপন সুত্রে। এদিকে ঈশ্বরী, অন্দরমহল ছেড়ে যাকে এখন পর্যন্ত বহির্বিশ্বে দেখা যায়নি – তিনিও সাংবাদিকদের কাছে জানিয়েছেন [ বিস্তারিত ]
রোনিতার শোবার ভঙ্গীটা এমনই, যেন কুন্ডলি পাকানো সাপ। আমার বুকের একদম মাঝখানে কেমন জমে থেকে শোয় মেয়েটা। মুঠো পাকানো হাতের ভেতর কে জানে কতগুলো দীর্ঘশ্বাস সে পুরে রাখে! আমি বরং ওর এই সর্পিল ভঙ্গি নিয়েই বেশ আয়েশী চিন্তায় ডুবে যেতে পারি যে কোন সময়। ঠিক ‘দ’ নয় বরং বলা যায় আস্ত একটা ডিমের মতই ইষৎ [ বিস্তারিত ]

হাহাকার !

অন্তরা মিতু ২৫ জুন ২০১৩, মঙ্গলবার, ০৪:৫৭:৩২অপরাহ্ন বিবিধ ১১ মন্তব্য
সমস্ত দিন সন্ধ্যার মতো আবছা অভিমানী মেঘ থমকে দাঁড়ায় নুয়ে… চোখের পাতার কাঁপুনিতে কিছু জল ঝরে ঝরে পড়ে, গাছ-ফুল-মাটি ছুঁয়ে… তারপর চলে যায় মেঘ এলোমেলো পথে; রয়ে যায়, তার স্মৃতিভেজা শ্বাস… বাতাসে বাতাসে শিহরণ ক্ষণে ক্ষণে; কার বুক জুড়ে চাতক পাখির আশ !!! বিকেল ৪.৫০ ২৫.৬.২০১৩
১ – স্রষ্টার কাছে শুধু টিকে থাকার প্রার্থনা আজ রাতে….. কোনো বিজয় নয়, কোনো প্রাপ্তির আকাংক্ষা নয় তিনবেলা পেট ভরে খাদ্য নয়, শুধু এক বেলা হলেই চলবে যেন মরে না যাই… ২ – যেন টিকে থাকি… রক্ত যদি না টানে তো চলবে, পর-ও যদি আরও পর হয়ে যায় তো যাক…. নিজেরে যেন খুঁজে পাই সময়মতো…… [ বিস্তারিত ]

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য