পুষ্পিতা আনন্দিতা

  • নিবন্ধন করেছেনঃ ২ বছর ৮ মাস ৪ দিন আগে
  • পোস্ট লিখেছেনঃ ১১টি
  • মন্তব্য করেছেনঃ ৭টি
  • মন্তব্য পেয়েছেনঃ ১০০টি

পৌষ সংক্রান্তি, স্মৃতি কাতর

পুষ্পিতা আনন্দিতা ১৪ জানুয়ারী ২০২১, বৃহস্পতিবার, ০৩:০৯:২৮অপরাহ্ন একান্ত অনুভূতি ৭ মন্তব্য
ফেসবুকে ছবি দেখছি পিঠাপুলির। আজ পৌষ সংক্রান্তি। পৌষ সংক্রান্তি মানেই মা কাকীদের পিঠে বানানো। সংক্রান্তির আগে থেকেই ভাল খেজুরের গুঁড় যোগাড় করে রাখা। গাছীকে এমনভাবে গাছ কাটতে বলা হতো যেন সংক্রান্তির দিন সকালে ভাল খেজুর রসটা পাওয়া যায়। নরমালি আগের দিন রাতে চালকুটে আনা হতো। ছোটবেলায় ঢেঁকিতেই চাল কুটতে দেখতাম। আমি নিজেও ঢেঁকি পার দিয়েছি। [ বিস্তারিত ]
একজন ডাক্তার নারী একজন নরসুন্দররে বিয়ে করেছে বলে পুলিশ তাদের আটক করেছে সন্তানসহ। ডাক্তার হয়ে নরসুন্দর বর বেছে নেওয়া নাকি অপরাধ! এইটা কোন আইনে অপরাধ হলো আমি বুঝলাম না। এদিকে লোকে মেয়েটার রুচি নিয়ে গালি দিচ্ছে। যে সংসার করবে সে কাকে বিয়ে করবে তা তোমরা ঠিক করে দিবা নাকি? আবার তোমাদের দেশে মুভি হয় চৌদ্রী [ বিস্তারিত ]
দেশের গানের মধ্যে আমার সবচে সুন্দর লাগে ‘ধন ধান্য পুষ্প ভরা’। এই গান গাইলেই আমার কেমন যেন লাগে। দেশে জব করার সময় যখন ট্রেইনর হয়ে কোথাও শিক্ষকদের ট্রেনিং দিতে যেতাম প্রায় সব ট্রেনিংয়ে আমার একটা কমন এক্টিভিটি ছিলো সব শিক্ষকদের নিয়ে এই গানটা গাওয়া। অন্যলাইনগুলো গাইতে পারলেও যেই লাস্ট লাইনগুলাতে যেতাম প্রতিবার আমার চোখ আর্দ্র [ বিস্তারিত ]
ভার্সিটির সেকেন্ড ইয়ারে লাস্ট শিব পুজো দিয়েছি। মানে আর কিছু করি না করি সরস্বতী পুজোর অঞ্জলী আর শিব পুজোর উপবাস বন্ধ হতো না। লোভী মন, বিদ্যা আর বর দুটোর লোভ🥵। ছেলেবেলাতেই শিখে গেছিলাম শিব সন্তুষ্ট হলে বর অনেক ভালবাসবে, ভালবাসা জিনিসটা কে না চায়! শিবপুজোর উপবাস অনেক কঠিন। বাড়িতে মা কাকীরা পুজো করতো সেই সাথে [ বিস্তারিত ]
১৪ বছরের নুর নাহার মরে গেছে, মরে গেছে কারণ তারে এই বাল্য বয়সে বিয়ে দেওয়া হয়েছিলো ৩৫ বছরের রাজিব খান নামের এক দামড়ার সাথে, প্রবাসী দামড়া দেখে আরও উৎসাহ নিয়ে তার বিয়ে দেওয়া হয়েছিলো। নুর নাহার নামের বালিকা যার বেণী দুলিয়ে স্কুলে যাবার কথা ছিলো সে মরে গেছে যৌনাঙ্গের অতিরিক্ত রক্তক্ষরণের জন্য, সে মরে গেছে [ বিস্তারিত ]
আমার ছোটবেলায় আমাদের মহম্মদপুর ছিল ভীষণ অসাম্প্রদায়িক, মানবিক, সহানুভূতিশীল। সত্যিকথা বলতে, অসাম্প্রদায়িক শব্দটা তখন পর্যন্ত আমার জানা ছিল না। সবার বাড়িতেই সবার অবাধ যাতায়াত ছিল। ঈদ উপলক্ষে আমার বন্ধু জিয়ার ভাবি, বোন আমার মাথায় হাতে মেহেদি লাগিয়ে দিতো; ওরা কোনদিন আমারে মনে করেনি আমি বাইরের কেউ। ঈদের দিনগুলো আক্ষরিক অর্থেই কেটে যেত হৈহুল্লোড়, ব্যস্ততায় আর [ বিস্তারিত ]
সরস্বতী পূজা সাধারণত স্কুল কলেজে হয়। পূজা করেও সাধারণত ছাত্রছাত্রীরা। সেই দিনেই ঢাকা সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচন। নির্বাচনের কেন্দ্রও হয় স্কুল কলেজগুলো। তাহলে পূজা কিভাবে সুষ্ঠুভাবে হবে? হিন্দুদের কোন পূজা কবে তা বাংলা বছরের প্রথমেই জানা যায়। তাহলে সেই দিনেই নির্বাচন দেওয়ার কি দরকার ছিলো? গত বছর দুর্গাপূজা চলার সময় রংপুর-৩ আসনে উপনির্বাচনের জন্য ৫ অক্টোবর তারিখ [ বিস্তারিত ]
ঘটনা এক ——– কয়েকদিন আগে ফেসবুক খুলেই মাই ডে তে পোস্ট করা এক মায়ের চোখের জলের ছবি দেখলাম। উনি আমার এক ফেসবুক বন্ধু। দুইটা ছেলেমেয়ের মা। উনি ডিভোর্সি। ছেলেমেয়েকে নিয়ে এতোদিন ছিলেন। সাত বছর ধরে ছেলে তার কাছেই ছিলো এখন সাত বছর পর বাংলাদেশের আইন অনুযায়ী বাচ্চার কাস্টডি বাবা পাবেন তাই ছেলে বাবার কাছে গতো [ বিস্তারিত ]
স্কুলে পড়ার সময়ের একটা ঘটনা বলি। আমাদের এক বান্ধবী একদিন ক্লাশে এলো কাঁদতে কাঁদতে। একটু সুস্থ হবার পর সে যা বলল তা হলো যে ভ্যানে করে সে এসেছে সেই ভ্যানচালক তাকে একা পেয়ে সারারাস্তা তার স্তনে খামচি দিতে দিতে এসেছে। প্রায় এক কিলোমিটার রাস্তা এইরকম করেছে সে। মেয়েটা ভ্যানে একা হবার পর আর কাউকে সে [ বিস্তারিত ]
এক বন্ধু কালকে ওনার আরেক বন্ধুর কথা খুব গর্বের সাথে বললেন। সেই ছেলে নাকি এখানে ঘুরতে এসে পরে আর যায় নি। থেকে গেছে। গ্রীনকার্ডও পেয়ে গেছে। কি করে পেলো জানতে চাইলে আমার যে বন্ধু উনি বললেন যে “আরে আমার বন্ধু সেই স্মার্ট পোলা। এইখানে এক একটু বয়স্ক স্প্যানিশ মহিলারে পটায়ে নিছে। মহিলা একা থাকে। ও [ বিস্তারিত ]
আমার মেলা লেখাতে  আমার বাড়িওয়ালী নিয়ে কথা আসে কারন আমি এই প্রথম আমার পরিবারের বাইরে কোন পরিবারের সাথে এতোদিন ধরে থাকছি। ওনার এই দিন দশেক আগে একটা মেয়ে হয়েছে। এখানে শুধু স্বামী স্ত্রী মিলে একটা বাচ্চা জন্ম দেওয়া, কোনরকম কারো সাহায্য ছাড়া অত্যন্ত কঠিন কাজ। দেশে থেকে এটা বোঝা যাবে না। ওনাদের কষ্টটা দেখছিলাম। তবে [ বিস্তারিত ]

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

সাম্প্রতিক মন্তব্যসমূহ