হুলহুমালে, এক নীল রঙা দ্বীপ

কামাল উদ্দিন ৭ জানুয়ারী ২০২০, মঙ্গলবার, ১১:০৫:৫৭পূর্বাহ্ন ভ্রমণ ২২ মন্তব্য

ভারত মহাসাগরে ১২০০ এর বেশী দ্বীপ নিয়ে গঠিত বিশ্বের সবচেয়ে নিচু আর এশিয়ার সবচেয়ে ছোট দেশ মালদ্বীপ। তবে আয়তনের দিক দিয়ে ছোট হলেও সৌন্দর্যের দিক দিয়ে এই দেশ অনেক বড়। পর্যটনের জন্য বিখ্যাত এ দেশের সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে সর্বোচ্চ উচ্চতা মাত্র দুই দশমিক তিন মিটার এবং গড় উচ্চতা মাত্র এক দশমিক পাঁচ মিটার। এতো সুন্দর একটা দেশ নাকি খুব দ্রুতই সাগরে তলিয়ে যাওয়ার শংকায় আছে।

হুলহুমালে নামটায় বেশ চমৎকারিত্ব আছে। এখানে আছে মালদ্বীপের ভ্যালেনা বিমানবন্দর যা মালদ্বীপের দুর্দান্ত সব দ্বীপের প্রবেশদ্বার হিসেবে পরিচিত। পুরো দ্বীপের চারদিকে ঘিরে আছে সাগরের অফুরন্ত নীল জলরাশি। হুলহুমালে থেকে সাগরের উপর দিয়ে একটা সেতুর মাধ্যমে রাজধানী মালের সাথে সংযুক্ত। এই সেতুর নাম সিনামালে সেতু।


(২) সুনসান রাস্তায় একটা ট্যক্সি। ওখান কার বেশীর ভাগ টেক্সিই এমন রং চঙ্গা।


(৩/৪) কিছু অচেনা ফুল ও ফল।


(৫) একটা রঙিন গিরগিটি। হুলহুমালে দ্বীপটা নানা রকম গিরগিটিতে ভরপুর।


(৬/৭) পর্যটকদের জন্য সব সময় অপেক্ষমান বীচগুলো।


(৮) জল পথেই এখানকার মানুষরা মূলত চলাচল করে। কারণ দ্বীপগুলো খুবই ছোট ছোট, কোন দ্বীপে পাঁচ মিনিট কোন দ্বীপে দশ মিনিট গাড়ি চালালেই দ্বীপের শেষ শেষ প্রান্ত চলে আসে। হুলহুমালে পুরো দ্বীপের সব কটি রাস্তা অতিক্রম করতে একটা গাড়িতে করে ২০ মিনিটের বেশী লাগার কথা না।


(৯) দূরের দ্বীপগুলো তাড়াতাড়ি পৌছানোর জন্য রয়েছে এমন জলচর বিমান। খুব নিচু দিয়ে এগুলোর সার্বক্ষণিক উড়াউড়ি চোখে পড়ে বেশ।


(১০) হুহুমালের একটি মসজিদ।


(১১) এটি একটি স্কুল।


(১২) নীল পানির সাদা জল দানব। এখানকার বীচগুলোতে মানুষের সংখ্যা খুবই কম চোখে পড়ে।


(১৩) সাগরে ভাসমান সুইমিংপুল।


(১৪) স্বচ্চ পানির নিচে মাছগুলো বেশ চমৎকার ভাবে দেখা যায়।


(১৫) হুলহুমালের একটি ফলের বাজার।


(১৬) দ্বীপের মাঝখানে সাজানো গুছানো একটা বিশাল উদ্যান, একেবারে যেন স্বর্গোদ্যান।


(১৭) উদ্যানের এক পাশে রয়েছে ব্যায়াম করার জন্য বেশ কিছু যন্ত্রপাতি। ফ্রিতে পাইলাম বলে আমি কিছুক্ষণ শরীর ঘামিয়ে নিলাম 😀


(১৮) সিনামালে সেতু, এই সেতু ২০১৮ সালে সাগরের উপর নির্মিত হয়েছে। এটা রাজধানী মালে এবং হুলহুমালে দ্বীপকে এক সুতায় গেথেছে।


(১৯) ভ্যালেনা বিমানবন্দর থেকে বের হলেই এই নীল জলরাশি শুরু।


(২০) এমন বিশাল কিছু জাহাজের আনাগোনাও ওখানে বেশ কিছু দেখলাম।

মালদ্বীপ দেখতে হলে আরো বেশ কিছু সময় ও পরিকল্পনা নিয়ে যাওয়া উচিৎ। ভবিষ্যতে আবারো মালদ্বীপে যাওয়ার ইচ্ছে আছে। এবার শুধু হুলহুমালে ও রাজধানী মালে দেখেই ফিরে এসেছি। দূর্দান্ত অন্যান্য দ্বীপগুলো অদেখাই থেকে গেছে আমার। রাজধানী মালে নিয়ে পরে ছবি পোষ্ট দেওয়ার ইচ্ছে ছিলো। কিন্তু আমার পিসির হার্ডডিস্ক ক্রাস করাতে সব ছবি চিরতরে বিলিন হয়ে গেলো 🙁

৪৬১জন ৩২৮জন
13 Shares

২২টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

সাম্প্রতিক মন্তব্যসমূহ