হালখাতা

নায়িমা জাহান ২৬ জুলাই ২০১৮, বৃহস্পতিবার, ১২:০৭:২৬পূর্বাহ্ন বিবিধ ১৮ মন্তব্য

যাপিত জীবনের করিডোরে যখন ক্ষয়ে যাওয়া শুকতলি ধূলো সরিয়ে নিজের জন্য একটুখানি পথ
করবার আপ্রাণ প্রয়াসে মগ্ন,তখন এক দমকা বাতাস উল্টো ধূলিঝড়ে অন্ধ করে দেয়।

ফুসফুসে সতেজ বাতাস, পূর্ণ দৃষ্টিতে যখন পাহাড়ের কোল ঘেষা নিঃশব্দ বাড়িগুলো দেখি,নীলিম
আকাশে ধোব সাদা মেঘেদের বিশ্রাম চলে তখন….

এক অদ্ভুত পথচলাকালীন সময়ে ইথারের প্রতি কৃতজ্ঞ, পরাবাস্তবে কিছু বাস্তবতার রেশ..বিগত বছরের
হিসেব কষতে গিয়ে দেখলাম- ঋণের দায় বেড়েছে!!যতটুকু সময় প্রয়োজন নিজেকে চেনানোতে,
তার পুরোটাই ব্যবহার করতে যেয়ে বড্ড বেশি প্রকাশিত করে ফেলেছি, সচেতনভাবেই…হয়তো তাই,
ব্যর্থতার দায়ভারও নিজস্ব..

অনেক বছর ধরে পুষে রাখা অপরাধবোধ আর নেই, নিজেকে প্রবোধ দেয়া যায় – চেষ্টা করেছি..
দখলদারিত্ব নিয়ে আবেগের কেনা বেচা চলে না— তাই বর্ষপূর্তিতে হালখাতা বন্ধ করে দিলাম-

“এখন আমার রোদ কুড়োনো একলা বিকেল-
মৌন ভীষণ!! ”

৩৮২জন ৩৮২জন
0 Shares

১৮টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ