শবেবরাতের ক্ষণ শুরু হলেই আগেরদিনে সবাই গোসল করে মসজিদে যেতো। কোরআন পাঠ, নামাজ ও চলতো। কে কতো পরতে পারে প্রতিযোগিতা। এভাবে ফজর পড়ে ঘুম।

মা, সকালে উঠে চিল্লাচ্ছে। হায় হায় খোপরায় একটা মুরগিও নাই। আমরাও উঠে দেখি। সে কি একটাও নাই? আম্মা আমার ছোট ভাইকে খোপরায় ঢোকাল, বললো দেখতো ভালো করে। ও গিয়ে দেখে শুধু একটা দা। আম্মা ঐটা হাতে নিয়ে কিছুক্ষণ চিন্তা করে পাশের বাসায় গিয়ে বললো, দেখো রেখার মা, এটা তোমার দা কিনা? খালা ঐটা দেখে বলছে, এইতো আমার দা। কই পাইলেন? আম্মা তো খুশি। চোর ধরা পরছে। একে একে ওনার পাঁচ ছেলেকে হাজির করা হলো। খালু তো লাঠি নিয়ে দাঁড়াইছে। একজন স্বীকার করলো। ও এবং তার বন্ধু মিলে এই কাজ করছে। খালু জিজ্ঞেস করলেন, মুরগি কি করছো?

ও বলে, ঢাকা নিয়ে যাবে যে মুরগিগুলো, ওখানে বিক্রি করছি। খালু তে পিটন শুরু করলো।

আর মা লোক পাঠিয়ে দেখে, জবা পরিবহণ আমাদের মুরগি নিয়ে ততক্ষণে ঢাকা চলে গেছে।

কি আর করা।

আম্মা তার পরেরদিন ঐ ছেলেদের দাওয়াত করে খাওয়াইলো।  আর বললো কখনো যেনো মুরগি চুরি  না করে। আর পিকনিক করলে, আম্মাকে যেনো মুরগির কথা বলে।

স্মৃতি তুমি হাসাইও না!

২৪২জন ৪৩জন
0 Shares

২৮টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য