স্বপ্নের দ্বার

সুপর্ণা ফাল্গুনী ২২ নভেম্বর ২০১৯, শুক্রবার, ১০:২৪:১৫অপরাহ্ন একান্ত অনুভূতি ৩২ মন্তব্য

আজকের সকাল টা অপূর্ব। বুকের ভেতরে বিরাজ করছে আত্মবিশ্বাস। আমি পারবো। আমি পারি। পূর্ব দিগন্তে জেগে ওঠা ভোরের সূর্যের মতো আমারও ভেতরটা জেগে উঠতে শুরু করেছে অপার বিস্ময়ে।
.
মাস কয়েক আগেও কি জানতাম এতটা পরিবর্তনের আভাস? শুধু আত্মবিশ্বাসের জায়গাটা সঠিক, স্থির ছিলো। মনের ভেতরে এইটুক আস্থা চারিত্রিক গঠনেরই অংশ, কোনকিছুতে হাত দিলে তার শেষ না দেখে ছাড়ি না। আর তাই এখন আমি আরও উজ্জ্বল হাসিতে প্রাণবন্ত। আমি পেরে উঠেছি।
.
মাস কয়েক আগে, ঈদের ছুটিতে, পাড়ার দোকানে, বান্ধবীর সাথে দেখা। ঈদে কদিন ছুটি পেলে অফিসে জিজ্ঞেস করতেই বান্ধবী আমার অদ্ভুত এক জগতের গল্প শোনালো। সে নাকি চাকরি করে না। সে নিজেই নিজের বস। ওই মাসের শেষেই সে নাকি ইন্টারনেটে প্রফেশনাল আইটি কোর্স করাতে শুরু করবে, ছাত্রদের ভর্তির অর্থই সে বিকাশে তুলছে, আমার পাশে দাঁড়িয়ে। আর আমি? একই স্কুল, একই ব্যাচ, একই সাবজেক্ট, একই গ্রেডে পড়াশোনা করেও তারই পাশে দাঁড়িয়ে গাইছি কর্মহীনতার গান।
.
কোর্স ফী টা শুনে তো পুরাই টাসকি খেয়ে গেছি! দু হাজার টাকা কি এ যুগের কোন আইটি কোর্সে কেউ নেয়? তাও আবার চার মাসের কোর্স, হোক না তা সপ্তাহে মাত্র দুদিন করে! এতে বরং সুবিধাই। সাংসারিক আবহ ও জীবনযাত্রার কোথাও ছন্দের পতন হবে না, তার সাথেই হেসেখেলে একটা প্রফেশনাল কোর্স সম্পন্ন করে ফেলতে পারবো। যা ভেবেছিলাম ঠিক তাই। আজ আমার “গ্রাফিক ডিজাইন এন্ড ফ্রিল্যান্সিং” অনলাইন কোর্সের অর্ধেক শেখা শেষ হলো।
.
বান্ধবী আমার ভীষণ আন্তরিক এবং একই সাথে খুবই কড়া টিচার। তার ইন্সটিটিউটের নামের মতই সে এ টু জেড শেখাতে চেষ্টা করে। ও হ্যাঁ, এতক্ষণ যার কথা বলছি, সে তো আপনাদের খুবই প্রিয় মুখ। অনেকেই খুব চিনেন তাকে। তার সাথে হাঁটতে শুরু করেই তো এলাম এখানে।
আমার বান্ধবী জাকিয়া জেসমিন যূথী, গ্রাফিক ডিজাইনার। গত চার বছর ধরে সফলভাবে ফ্রিল্যান্সিং করে যাচ্ছে ইন্টারন্যাশনাল মার্কেটে। আর এ বছর সে আইটি ইন্সটিটিউট দিয়েছে, নাম – Max Learn IT institute, অফলাইনে কোর্স ফী টা সে বারো হাজার নিলেও কোন রকম রিকশা ভাড়া ছাড়াই শুধুমাত্র নিজের ঘরে বসে, ইন্টারনেট সংযোগে মোবাইলের মাধ্যমেই ক্লাস করতে পারবেন স্কাইপে তে। আর ক্লাসের হোমওয়ার্ক করার জন্য কম্পিউটার লাগবে। এই ক্লাসটা রাতে হবে জেনেই ভর্তি হয়েছিলাম। ক্লাস টাইম ফিক্স হয়েছিলো আমাদের ব্যাচের সবার সাথে কথা বলার পরে, আমরা এখন রাত সোয়া দশটায় ক্লাস করতে বসি, মাঝেমাঝে রাত বারোটাও পেরিয়ে যায়, কিন্তু একটুও বিরক্তি বা ক্লান্তিকর লাগে না। বরং বান্ধবী দু একদিন ক্লাস অফ রাখলে মনে হয়, আজ কী যেন নাই। এত যত্ন নিয়ে আমাদের ব্যাচের প্রত্যেকের চোখে মনে সে যে স্বপ্নের বীজ বুনে চলেছে তা মনে হয় না, অন্য কোথাও পাবো অথবা পেতাম। ভাগ্যিস, সেই মোড়ের দোকানে তার সাথে হয়ে গিয়েছিলো ঈদের আগে দেখা।
.
গ্রাফিক ডিজাইন এন্ড ফ্রিল্যান্সিং অনলাইন কোর্সে সে দ্বিতীয় ব্যাচের ছাত্রছাত্রী ভর্তি নিচ্ছে। কোর্সটি চলবে সাপ্তাহিক দুদিন করে ৫-৬ মাসব্যাপী। কোর্স সমাপ্ত করার আগেই প্রফেশনাল মানের একটিভ হয়ে উঠবো আমরা। মাত্র বাইশ শ টাকায় নিজের ভেতরে অনন্য সত্ত্বার জন্মগ্রহণের উৎসবে অংশগ্রহণের জন্য রেজিস্ট্রেশন করে খুব আত্মতুষ্টির মধ্য দিয়ে যাচ্ছি।
আমার জন্য সবাই দোয়া করবেন যেন শুধুমাত্র MAX Learn IT institute এর সেরা না হয়ে একদিন দেশ দশের সেরা হয়ে গৌরবজ্জ্বল হয়ে উঠতে পারি।
.
ক্লাসে করা কিছু ডিজাইন শেয়ার দিচ্ছি। এগুলো ক্লাসের হোমওয়ার্ক হিসেবে করেছি, ফটোশপের শেপ টুল, ব্রাশ টুল, গ্রেডিয়েন্ট টুল, টাইপ টুল, লেয়ার মাস্ক ও ডেস্টর্টের সাহায্যে ইমেজ ম্যানিপুলেশন এবং ক্লিপিং পাথের কাজগুলো দিলাম কিছু। নিয়মিত প্রাকটিসের মাধ্যমে আমার ডিজাইন আরও প্রফেশনাল হয়ে উঠবে নিশ্চয়ই।


.

সবার মুক্ত সমালোচনা আশা করছি। আপনাদের পরামর্শে আরও ভালো ডিজাইনার হয়ে উঠতে পারবো।

২৪০জন ৬৮জন
13 Shares

৩২টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য