লেখালিখি করা আমার শখ। আমার কাছে মনের ক্ষুধা মেটানোর অন্যতম মাধ্যম হচ্ছে লেখার মাধ্যমে পাঠকদের সাথে আনন্দ-বেদনাগুলি ভাগাভাগি করা। কিন্তু হুটহাটতো আর যেখানেসেখানে লেখা যায় না। লেখার পরিবেশ, পাঠক সংখ্যা, নিজের আত্মসম্মান এসবই যেখানে রক্ষা পাবে সেখানেই একজন লেখক বিচরণ করবে এটাই স্বাভাবিক।

এ কথা অনস্বীকার্য, লেখার জন্য উপযুক্ত প্লাটফরমটি সোনেলাই আমাকে দিয়েছে। সেই কৃতজ্ঞতাবোধ থেকেই সোনেলার জন্মমাসে পাঠকদের সাথে নিজের অনুভূতি শেয়ার করা উচিত বলে আমি মনে করি।

সোনেলায় নিজের প্রথম পোষ্ট প্রকাশের অনুভূতি-

যারা লিখতে ভালোবাসেন তাদের কাছে লেখালিখি জীবনের অবিচ্ছেদ্য অংশ। আমি পেশাগত লেখক নই, শখের বশে লিখি আর নিজের মনের খোরাকের জন্য লিখি। নিজের অবসর সময়কে লেখালেখি করে কাজে লাগাই। ব্লগিং নিয়ে নানাবিধ জড়তা ও ভয়ভীতি কাটিয়ে বুকে সাহস বেঁধে “হৃৎপিণ্ড” লেখাটির মাধ্যমে সোনেলায় প্রথম পোষ্ট দিয়ে আমার পথচলা শুরু হয়েছিল তা অদ্যাবধি চলমান। এর সব কৃতিত্ব সোনেলায় আমার সকল পাঠকদের।

সমসাময়িক ও সিনিয়র ব্লগারগণের উৎসাহ প্রদান-

ব্লগে প্রথম এসে সোনেলার অন্যান্য সিনিয়র ব্লগার জিসান শা ইকরাম ভাই, ছাইরাছ হেলাল ভাই, ইঞ্জা ভাই, মনির হোসেন মমি ভাই, শুন্য শুন্যালয় আপু, রীতু আপু, নীলাঞ্জনা নীলা আপু, আগুন রঙের শিমুল ভাই, মজিবর ভাই, রিমি রুম্মান আপু সহ অনেক সিনিয়র ব্লগারদের আন্তরিকতা আমাকে মুগ্ধ করেছিলো এবং নিজের সকল জড়তা দূর হয়ে গিয়েছিলো তাদের উষ্ণ আতিথেয়তায়। তারা সবাই আমাকে লেখা এবং ব্লগিং সম্পর্কে আন্তরিকভাবে দিক নির্দেশনা দিয়েছেন।

আমার সমসাময়িক ব্লগারগণ যারা বর্তমানে সোনেলায় লিখছেন তারাও আমাকে উৎসাহ যুগিয়ে চলছেন একান্ত আপন হিসেবে। আমার প্রতিটি লেখায় আলোচনামূলক মন্তব্য দিয়ে আমার লেখার আগ্রহ বৃদ্ধি করছেন প্রতিনিয়ত। আপনাদের সবার প্রতি আমি আন্তরিকভাবে কৃতজ্ঞ।

লেখক এবং পাঠকবিহীন আমি নিঃস্ব!

সোনেলার প্রতিটি লেখক এবং পাঠকগণ আমার কাছে হীরকখণ্ডের চেয়ে কোনও অংশেই কম নয়। আমার দেখা সবচেয়ে সুন্দর এই হীরকখণ্ডদের প্রজ্জ্বলতাকে ম্লান হতে দেখতে চাইনা। হয়তো একসময় আশ্চর্য হবো এটা ভেবে- একদিন আমিও দেখেছিলাম এই সবকিছু। তাইতো সোনেলায় সবার আবেগ, ভালোবাসা, পাওয়া না পাওয়ার বেদনা, আনন্দ অশ্রু, হারিয়ে যাওয়াগুলোকে ধারণ করে চলেছি নিজের মনে।

সহব্লগারদের কাছে আমার চাওয়া-

একজন নতুন লেখককে অবশ্যই অনুপ্রেরণা দিতে হবে। কেউ জন্ম থেকেই লেখার শিক্ষা নিয়ে আসেনি। আপনি, আমি যখন লেখালিখি শুরু করেছি আমাদেরও একই অবস্থা ছিল। আমরা লিখতে লিখতে শিখছি। তাই অহেতুক অপ্রয়োজনীয় মন্তব্য না করে নতুন লেখকদের উৎসাহ দিন, তাদের বুঝিয়ে বলুন। ব্লগকে মানিয়ে নিতে সহযোগীতা করুন। আপনার মন্তব্যে লেখক যাতে নিত্যনতুন লেখার ক্ষেত্রে আগ্রহবোধ করে সেদিকে অবশ্যই সুদৃষ্টি রাখুন।

সোনেলা ব্লগ এগিয়ে চলুক তার আপন গতিতে। সোনেলার জন্মমাসে সোনেলায় বিচরণকারী সকল ব্লগার, পাঠক এবং শুভাকাঙ্ক্ষীদের সর্বদা পাশে থেকে আমাদের উৎসাহ দেবার জন্য মন থেকে প্রাণঢালা অভিনন্দন এবং শুভেচ্ছা জানাই।

(চলবে…)

সোনেলার জন্মোৎসব ২০২০ (আমার অনুভূতি – ১ম পর্ব)

২৪৬জন ২৪৬জন
0 Shares

৩৮টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ