সৃষ্টি রহস্যময় l

ফয়জুল মহী ২২ জানুয়ারী ২০২০, বুধবার, ০২:১৯:৩০অপরাহ্ন একান্ত অনুভূতি ২৬ মন্তব্য

লাখ টাকার খাটে শুয়ে ঘুমের ঔষধ খেয়েও ঘুমাতে পারেনা ডিপ্রেশনে ভুগে এমন অনেকজন আছে , সিগারেটের সাথে তার রাত কাটে। আর রিক্সাওয়ালা সারাদিন প্যাডেল ছেপে বিছানায় পিঠ লাগিয়ে ঘুমিয়ে পড়ে।

কেউ হাজার টাকা খরচ করে জিমে গিয়ে ফিটনেস ঠিক রাখতে আপ্রাণ চেষ্টা করে যাচ্ছে। আর কারো মাটি কাটতে কাটতে অটোমেটিক ফিটনেস হয়ে গেছে।

কেউ মুড়ি খেলেও মোটা হয়ে যাচ্ছে, আর কেউ জগতের সব খাবার খেয়েও মোটা হতে পারছেনা। কেউ পেয়ে কাঁদে আর কেউ না পেয়ে কাঁদে।

রাতের পর রাত না খেয়ে কেউ জিরো ফিগার বানাতে ব্যস্ত, আর বাসার কাজের মেয়েটির কী সুন্দর জিরো ফিগার। কেউ টাকা আছে খেতে পারেনা, আর কেউ টাকার জন্য খেতে পারেনা।

কেউ ওজন কমানোর জন্য শুকনা কিছু খেয়ে দিন কাটিয়ে দিচ্ছে, আর কেউ ভালো খেতে পারেনা বলে রোগা হয়ে আছে।

সব কিছুর মাঝে থেকেও কেউ আত্মহত্যা করছে, আবার কেউ বেঁচে থাকার জন্য মানুষের কাছে হাত পেতে যাচ্ছে। কেউ পরিপূর্ণতায় সুখ খুঁজে পায়না, আর কেউ অপরিপূর্ণ থেকেও দিব্যি হেসে বেড়াচ্ছে।

আমি আমার একজনকে চিনি- যিনি প্রতিদিন সকালে সাত কিলো দৌড়ান, আবার এমন একজনকে চিনি যে জীবনের জন্য দৌড়াচ্ছেন, একটি চাকরীর জন্য।

এমন অনেকজন আছে– অর্ধেক খেয়ে বাকীটা ফেলে দেয়, আবার এমন মানুষও আছে– যে পেটভরে খেতে পারেনি অনেক দিন।

ছোট বেলায় গল্পের বইতে পড়েছিলাম– ‘রাজার অসুখ হয়েছে, সুখি মানুষের জামা পরলে তার অসুখ সারবে। অনেক খুঁজে একজন সুখি মানুষকে পাওয়া গেলো কিন্তু তার গায়ে জামা ছিলো না।
সৃষ্টিকর্তা আমাদের সব কিছু দেননি,কিছু না কিছু তাঁর কাছে রেখেছেন । আর আমরা যেন তা উপলব্ধি করতে পারি । সারা দিন না খেয়ে থাকা কোন পথ শিশুকে প্রশ্ন করা হয়- “তোমার সুখ কিসে? সে হেসে উত্তর দিবে পেট ভরে ভাত খেতে পারলে।”

১৭০জন ৩৬জন
3 Shares

২৬টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য