সাতসকাল

সৌবর্ণ বাঁধন ৭ জুন ২০২১, সোমবার, ০৮:২৯:২৫পূর্বাহ্ন কবিতা ৮ মন্তব্য

হেই! হেই! একটি বানর দিচ্ছে লাফ,
ছাদের কোণায় ঝুলছে ওই আতা ফলের মতো,
সাত সকালের বাসী চাঁদ! 
অফিস মেয়েটার অনেক দূরে,
ঘুমের মাঝেই বিপ বিপ!
বহুকাল চাঁদ দেয়না টিপ! সময় হয়না আর! 
জাগিয়ে তাকে প্রতিটি ভোরে,
ডাকু এলার্ম তাজা স্বপ্ন মারে জোড় শিকারে,
খুনী এলার্মের বিচার চাই! বিচার চাই আজ! 
আজো স্বপ্নে প্রেমিক ছিল বেঘোর ঘুমে অসাড়,
মেয়েটি জাগানোর সময় পায়নি আর!
খুনী এলার্মের বিচার চাই! বিচার চাই আবার!  

মেয়েটি ব্যস্ত ল্যপটপে,
প্রোজেক্টের কাজ এখনো অনেক বাকী যে, 
যারে মেঘ দূরে যা! যারে চাঁদ সরে যা! 
তার দেখার সময় কই? 
ক্রেডিটে ডেবিটে আর একটুও সময় জমা নাই! 
মাসের শুরুর চকচকে চেক, 
বন্ধক রাখে সময় সময় অনেক,
এসি কারে বোটকা গন্ধ, 
সাতসকালেই নাকটা বন্ধ,
ওহ! ড্রাইভার! কাঁচটা নামিয়ে দাওতো ভাই!  
একটি বানর লাফিয়ে গেলো! 
তার পিছনে লেজের মতোন সংগী গেল ওই, 
ছোট্ট খুকি ময়লা জামা; পরীর মতো চোখের তারা,
রাঙ্গা হাতে গোলাপ তোড়া,
প্রতিটি ফুল দশ টাকা! আপু, দশটা টাকা চাই! 
লজেঞ্চ খাবোনা, পুডিং নিবনা, নাস্তা খাবে ভাই! 
চোখের সামনে ল্যাপটপ! প্রোজেক্ট নাচে তা-থৈ থৈ!
অবাধ্য মন বাড়াচ্ছে হাত, 
একটি গোলাপ করূণ কেন? 
হারানো প্রেম জীবিতএখনো! কান্না পাচ্ছে আজ, 
ভীষণ বৃষ্টি এলে পন্ড হবে কাজ!  
ড্রাইভার! উঠাও না ভাই জানালাটার কাঁচ! 
ছোট্ট খুকির চোখ ছলমল,
মেয়েটির বুকে প্রেম টলমল,
ড্রাইভার! দাওতো ওকে দশটা টাকা!
ভালো মন্দ খাক! মনের ভিতর লাগছে ফাঁকা! 

এই যা! সবুজ হলো ট্র্যাফিক বাতি! 
ছেড়েই দিল জ্যাম! কাঁপছে কেন বুকের ছাতি?
পথের ক্ষুধা, বুকের প্রেম বাজিয়ে দিল কোন বিপত্তি,
ক্রিং! ক্রিং! ক্রিং………
ডাকছে ভারচুয়াল মিটিং! ডাকছে হোয়াটস আপ!
দক্ষিণা আকাশে মেঘ জমেছে!
একটি বানর মেঘের উপর লাফ দিয়েছে,
অনেক গুলো তার পিছনে!
মেয়েটার আর দেখার সময় নাই!
আরে! ড্রাইভার! চালাও না গাড়ি টেনে…………!
পেতে পেতেও হারিয়ে গেলো দশটা টাকার নোট,
করুণ চোখে পথের খুকি এখনো তাকিয়ে একমনে,
কোকড়া চুলের দেবশিশু দাড়িয়ে পথের মাঝখানে!   

১৭৭জন ৫৯জন
0 Shares

৮টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য