সম্পর্কের টানাপোড়েন পর্ব-০৮

সুপর্ণা ফাল্গুনী ২০ মার্চ ২০২০, শুক্রবার, ০৫:০০:৩৯অপরাহ্ন গল্প ২২ মন্তব্য

দীনা গত কয়েকদিন ধরে আকাশের চুপচাপ হয়ে যাওয়াটা, তাড়াতাড়ি বাসায় চলে আসা সব খেয়াল করলো। দীনা আকাশের অফিসে গেলো, ভাবলো হয়তো অফিসে কোনো ঝামেলা হয়েছে। গিয়ে শুনলো অফিসিয়াল কোনো ঝামেলা নেই, তার কলিগরা ও এ ব্যাপারে উদগ্রীব। অফিসের কারো সাথে তেমন কথা বলেনা, অফিস ছুটি হলেই বেড়িয়ে পড়ে। একজন বিষয়টি আন্দাজ করেছে । সে বললো নতুন ম্যাডাম আসার পর থেকেই এমন দেখছে, ম্যাডামের সাথে ও স্বাভাবিক আচরণ করছে না। তখন দীনা তাকে দেখতে চাইলো। দীনার সাথে পরিচয় করিয়ে দিলো তন্বীকে। তন্বী দীনার পরিচয় পেয়ে ভিতরে ভিতরে ভেঙ্গে পড়লো, চোখ টলমল করে উঠলো অশ্রুতে। দীনার কাছে মাফ চেয়ে ওয়েটিং রুমে চলে গেল।

দীনা বাসায় এসে আকাশের সাথে কথা বলার জন্য অপেক্ষা করতে লাগলো। আকাশ জানতে পারেনি দীনা অফিসে গিয়েছিলো। তখন সে অফিসের কাজে বাইরে ছিলো। ডিনার শেষ করে দীনা আকাশের সাথে কথা আছে বলে অপেক্ষা করতে বললো। আকাশ আনমনে বারান্দায় চলে গেলো। দীনা আকাশকে ডাইনিং টেবিলে না পেয়ে খুঁজতে গিয়ে বারান্দায় গিয়ে দেখলো আকাশের শরীরে কোনো প্রাণ নেই, কেমন অদ্ভুত ভাবে দাঁড়িয়ে আছে। দীনা কখন এসেছে, কি বলেছে কিছুই জানেনা। হঠাৎ ঘাড় ঘুরাতেই দীনাকে দেখে থতমত খেলো। দীনা বললো, ‘কোথায় হারিয়ে গেছিলে যে এতবার ডাকার পর ও টের পেলেনা?’ আকাশ বললো,’কই নাতো। কি যেন বলবে বলছিলে, এখন বলো?’ দীনা বললো,’কি হয়েছে তোমার? আমার কাছে কিছু লুকাচ্ছো?’ আকাশ চুপ হয়ে গেলো।

হঠাৎ দীনা বললো,’তোমাদের অফিসের নতুন ম্যাডাম এর সাথে তুমি কি পূর্ব পরিচিত?’ আকাশ চমকে উঠলো। দীনার চোখ এড়ালো না আকাশের চমকে যাওয়াটা। দীনা বললো,’তুমি আমার সাথে মিথ্যা বলো না, সব খুলে বলো। আমি কিছু মনে করবোনা’। আকাশ দ্বিধায় পড়ে গেলো । দীনাকে সে কখনো কিছু গোপন করেনি শুধু তন্বীর বিষয়টি ছাড়া। সে এখন কি করবে সেতো ধরা পড়ে গেছে? তুমি ওনার কথা জানলে কিভাবে?- প্রশ্ন করলো দীনাকে। কিভাবে জেনেছি সেটা বড় বিষয় না , আমি শুধু সত্যিটা জানতে চাইছি-দীনা বললো। আকাশ বুঝলো এড়িয়ে যাবার কোনো উপায় নেই। সে দীনাকে সব আদ্যোপান্ত বললো। তন্বীকে ঠকিয়ে সে দীনাকে চেয়েছিলো উপরে উঠার সিঁড়ির জন্য।

দীনা প্রচন্ড ঘৃণায় , ক্ষোভে চিৎকার করে উঠলো। আকাশের প্রতি সমস্ত ভালোবাসা, শ্রদ্ধা যেন এক নিমিষে উবে গেলো। আকাশ চুপসে গেলো। সে যেন নড়ার শক্তি ও হারিয়ে ফেলেছে। দীনা বিছানায় শুইয়ে কাঁদতে লাগলো অঝোরে। অফিসের পিয়ন একটি চিরকুট দিয়ে গেলো তন্বীর টেবিলে। তন্বীর সাথে দেখা করার অনুমতি চেয়েছে দীনা। তন্বী যা ভেবেছিলো তাই হলো। এখন সে কি করবে , দেখা করবে নাকি করবে না! আকাশের সাথে কথা বলতে ও সে পারছেনা। কি করা উচিৎ তার এখন? কার কাছে সাহায্য চাইবে? হঠাৎ তমালের কথা মনে হলো। তমাল ব্যাপারটা কিভাবে নিবে সেটাও একটা বিষয়। দোটানায় পড়ে গেলো। না গেলে দীনা কি না কি ভেবে ফেলে। আকাশের ও বিষয়টি জানা দরকার। তন্বী নিজের মনের সাথে বোঝাপড়া করতে লাগলো।

১৬০জন ২জন
4 Shares

২২টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য