মাঝখানে আমি ঘুমিয়ে আছি!দুইপাশে কে?মা আর বাবা!এইভাবে আমি অনেক রাত ঘুমিয়েছি, জন্ম থেকেই!রাতেরবেলা যখন আমি কেঁদে উঠলে,মা যদি জেগে থাকে ,মা আদর করত!না হয় বাবা গায়ে হাত বুলিয়ে আদর করে ঘুমপাড়াতো!

গভীর খাদে দুইকূলের আদোর পেতে পেতে আমি মধ্য গতিতে এসেছি!আবার মাঝে মাঝে বাঁধ পেরিয়ে নাব্যতাটুকু হারিয়েছি!এখানে দু পাড় ভাঙা!

সবাই যাকে দামোদর বলে,সেটা হল মরণাদর!যে কূলে ছিল,সবুজ হাসির পক্ষীকূলের ডাক!সেখানে নগ্ন কংক্রিটের সারাক্ষনের যন্ত্রনার উত্তাপ!

আমার ছেলে হাসবে খেলবে কলকলাবে,তারপরে …….
মা, আমার বুকের রাশিরাশি বালু কনার নাভিশ্বাসে, অশ্রুগুলো সীমানা চিহ্নের জীবলির আঠাঁ!

বরফ গলিয়ে,তোমার উলঙ্গ পাহাড় নিতে চাইনি!
আমি চেয়েছিলাম নিস্পাপ উঁচু শুভ্র পর্বত – যুগল!তা আর হল কই!তলে তলে বিষ আর তেল!

ঝরনা ধারায় যখন তুমি সভ্য ভাবো,তখন আমি জলে ভরা বিলের আল ধরে হেঁটেছি!অসীম তোমার জলরাশি,সাদা পায়রা ঠোঁট দেয়নি!এক নারী,মোহনায় ডুব দেয় আর কজন!চাতক সারাক্ষন তাকিয়ে থাকে আকাশের দিকে……

@ Home
Date-19/12/12
Time-7:00 sokalo

৩২০জন ৩২০জন
0 Shares

৫টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য