সন্ধ্যা মালতী

সুপর্ণা ফাল্গুনী ৬ অক্টোবর ২০২০, মঙ্গলবার, ১২:০০:৩৬পূর্বাহ্ন একান্ত অনুভূতি ২৫ মন্তব্য

সূর্যটা নিভু নিভু ধরণীর আবক্ষে, সন্ধ্যা-গোধূলির আবির ছড়িয়ে যাচ্ছে আরশির আলোক ছটায়। আঁধারের শামিয়ানা পর্দা ফেলছে বিস্তীর্ণ প্রান্তর জুড়ে। সন্ধ্যা মালতীরা অঙ্গে রামধনুর রঙ এঁকে নিচ্ছে ধীরে ধীরে। বসনের খাঁজে খাঁজে কামনার বহ্নিশিখা উল্কাবৃষ্টি ছড়াচ্ছে। অমানিশার অন্ধকারে বর্ণিল আলোক বিচ্ছুরণ ঘটছে সড়কের বাগান গুলোতে; সুগন্ধির ঝাঁঝালো, মিষ্টি গন্ধ পথচারীদের  নাসিকারন্ধ্রের সরু টানেল বেয়ে রতিশক্তির দ্বারে কড়া নাড়ছে অবিরত। দোদুল্যমান সন্ধ্যা মালতীর দেহবল্লরীর মাদকতায় রতিশক্তি উজ্জীবিত হয়ে পড়ছে। 

 যামিনীর কুচবরণ রঙ গভীর থেকে গভীরতর হচ্ছে , সন্ধ্যা মালতীরা আরো উজ্জ্বল নক্ষত্র হয়ে  পথের ধারে পথিকের কর্ণিয়াতে মদিরার নেশা ধরিয়ে দিচ্ছে। তালুবন্দী হলো কামনার করতলে পথের অতিথি, একটু একটু করে উলঙ্গ হচ্ছে সন্ধ্যা মালতীদের রঙ মাখানো অঙ্গ সমূহ। রাতভর অভিযান চলে কামুক সুখের সন্ধানে দেহবল্লরীর আনাচে কানাচে। সব সৌন্দর্য বিদীর্ণ হয়ে যায় ভোগের  কামুকতায়, নেতিয়ে পড়ে সতেজতায় ভরপুর মাংসপিন্ডের দলাগুলো ভোরের আলো পৃথিবীর দ্বারে পৌঁছাবার আগেই। সন্ধ্যা মালতীদের সাথে সূর্যরশ্নি যায়না তাইতো সন্ধ্যা-আরতিতে দ্বীপশিখা হয়ে জ্বলে ওঠে। কখনো মেঘ, কখনো ঝড়, কখনো ঘূর্ণিঝড়ের তান্ডবে কুঁচকে যায়, ভেঙেচুরে ঝুলে পড়ে মালতীদের সন্ধ্যা, রাত, একাকী বিকেল ।

ছবি-আমার

২৩৩জন ৫৫জন
0 Shares

২৫টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য