সংসার সুখের হয় কি টেডিরও আগমনে?

তৌহিদ ১০ ফেব্রুয়ারী ২০২০, সোমবার, ০৯:০৭:২৮অপরাহ্ন রম্য ২৪ মন্তব্য

বাড়িওয়ালী ফোন দিয়ে স্মরণ করিয়ে দিয়েছে আজ টেডি ডে। সারাদিনপরে মাত্র বাসায় আসতেই দেখি তিনি আজ অতিমাত্রায় সোহাগী টাইপ কথা বলছেন আর আমার অফিসের ব্যাগটার দিকে ঘনঘন চাইছেন।

আমি বুঝতে পেরে বললাম- ধুর! আর বলোনা। সেই বিকেল থেকে মার্কেট ঘুরে ঘুরে একটাও বড় সাইজের নিদেনপক্ষে মাঝারি সাইজের একটা টেডিও পেলামনা।

তার মুখটা কিছুটা মলিন হতে দেখে বললাম -বৌ শোনো, আমি তোমাকে যে পরিমান ভালোবাসি তাতে বছরে এই একবার ছোট্ট একটা টেডি তোমাকে দেয়া খুব একটা মানায় না। দশটা না পাঁচটা না একটামাত্র বৌ আমার। তোমাকে কি করে ছোট টেডি দেই বলতো? দোকানদারকে যতই বলছি ভাই আমার বড় টেডি লাগবে সে তা দিতে অপারগ।

আজ মার্কেটে টেডির আকাল পড়েছে। প্রেমিকপ্রেমিকার সংখ্যা যে হাড়ে বেড়েছে টেডি কোম্পানিগুলো সেই অনুপাতে উৎপাদন করতে পারছেনা। তাই আমি ছোট টেডি আনিনি। এতে তোমার আরও বেশি মন খারাপ হতো তাইনা বল? বান্ধবীরা সেই ছোট টেডি দেখলে ইজ্জত প্লাস্টিক হতোনা বলো?

সে কিছুক্ষণ চিন্তা করে বললো- আসলেইতো ঠিকই বলেছ। আনলে বড় টেডি আনবে, ছোট টেডি আমি নেব কেন? বললাম- হ্যা তাইতো!!

যাই আমি ফ্রেশ হয়ে আসি তুমি টেবিলে খাবার দাও বলে আমি ওয়াশরুমে এসে পানির কল ছেড়ে দিয়ে বিজয়ীর হাসি হাসছি। রান্নাঘর থেকে ঠুসঠাস, ঘটাশ ঘটাশ আওয়াজ পাচ্ছিলাম শুনে ভাবলাম যাক বৌকে ম্যানেজ করা গেছে। এ যাত্রায় বেঁচে গেলাম।

এখন খাবারের জন্য অপেক্ষা! তিনি এসে বলছেন- এই শুনছো? আজ অনেক রান্না হয়েছিলো কিন্তু এখন হাঁড়িতে কিছুই নেই!!

বললাম- মানে কি? খাবার নেই ঘরে?

তিনি বলছেন- আর বোলোনা। নীচতলার সিমি আপু এসেছিলো বিকেলে। তার জামাই টেডি গিফট করেছে সেটা দেখাতে।

বললাম- তার সাথে খাবারের সম্পর্ক কি?

তার বক্তব্য হচ্ছে- না মানে সিমি আপুর ছোট্ট টেডিটাকে ডাইনিং টেবিলে রেখে আমরা ড্রয়িংরুমে গল্প করছিলাম। টেডিটার মনে হয় ক্ষুধা পেয়েছিল। হাজারহোক সেই বাজার থেকে বাসা পর্যন্ত এসে আবার দোতলা থেকে আমাদের তিনতলায় এসেছে। ক্ষুধারচোটে সে সব খাবার খেয়ে নিয়েছে মনে হয়।

আমি হতবাক হয়ে তেনার দিকে চেয়ে আছি। সে বলেই যাচ্ছে- ভাগ্যিস তুমি বড় টেডি আননি। ছোট টেডিই যদি এত খায় তাহলে বড়টাতো ফ্রিজের কাঁচা শব্জি পর্যন্ত খেয়ে পুরা ফাঁকা করে দিত তাইনা?

আমি হতভম্ব!! টেডি আনিনি বলে খাবার নেই? এইভাবে সে শাস্তি দিলো!! আল্লাহ্‌! এইসব দিন কে বানিয়েছে!! নাহ! ছোট্ট একটা টেডি আনলে আজ এই অবস্থা হতোনা।

যাই নীচ থেকে কিছু চকলেট কিনে আনি। চকলেট তার হাতে দিয়ে বলতে হবে- এই শোন! গতকাল চকলেট ডে ছিলো। তোমাকে সারপ্রাইজ দেব বলে এনে তোমার ড্রয়ারে রেখেছিলাম অথচ তুমি দ্যাখোনি!! না হলে কাল সকালেও আর নাস্তা জুটবেনা।

সংসারে শিক্ষার শেষ নেই কি বলেন? আর শিক্ষাগুরু হিসেবে নিজেদের বাড়িওয়ালীরা সর্বদাই আদর্শ এটা মেনে নিন। দেখবেন দাম্পত্য জীবন অনেক মধুর।

২২৭জন ৫৩জন
56 Shares

২৪টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য