শেষ বিকালের আলো ২

সঞ্জয় কুমার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০১৪, সোমবার, ১১:২৭:৩৩অপরাহ্ন বিবিধ ৫ মন্তব্য

কবির সাহেব বাসর ঘরে প্রবেশ করেছেন ।
দরজার ছিটকানি টা লাগিয়ে দিলেন ।
তিনি মনেমনে একটু লজ্জা পাচ্ছেন । তিশা খাটের উপর বসে আছে । তাঁকে পরীর মত সুন্দর লাগছে । বিয়ের সময় সব মেয়েকেই সুন্দর লাগে ।

তিশা কেমন আছ?

ভাল আপনি ?

তোমার মত সুন্দরী বউ পেলে কেউ কি আর খারাপ থাকতে পারে ?

তোমাকে কিছু গুরুত্বপূর্ণ কথা বলা দরকার । যদিও এই সময় এবং পরিবেশ এই কথাগুলো বলার জন্য উপযুক্ত নয় ।

তুমি একটা ছেলেকে ভালবাসতে, এখনও বাস । তুমি প্রথমে আমাকে বিয়ে করতে চাওনি পরে তুমি আর তোমার সে মিলে প্লান করেছ বাসর রাতে তুমি আমার কাছে একটা বাড়ি চাইবে তারপর আমার কাছ থেকে পালিয়ে দুজন বিয়ে করবে ।

অবাক হওয়ার কিছু নেই । তোমার লেখা একটা চিরকুট ভুলে আমার কাছে চলে এসেছে সেটা পড়েই আমি এসব জেনেছি । ভালবাসা অপরাধ নয় কিন্তু প্রতারণা করা অপরাধ , তুমি আমার সাথে প্রতারণা করেছ ।

ভয় পেয়োনা আমি তোমাকে পুলিশে দেব না । এখন তুমি আমার বিবাহিতা স্ত্রী আমি ইচ্ছা করলেই তোমাকে স্পর্শ করতে পারি কিন্তু আমি তা করব না । যদি কোনদিন তুমি আমাকে ভালবাসতে পার ঐদিন আমাদের বাসর হবে ।

তুমি একটা বাড়ি চেয়েছিলে তাই না ?
এই উইল টা ধর গুলশানে আমার মায়ের নামে একটা ছয়তলা বাড়ি আছে । মৃত্যুর আগে আমার মা হবু বধুর জন্য এই উইল টা করে দিয়েছিলেন । কিন্তু এতে দুইটা শর্ত আছে একটা হল বিয়ের তিন মাস পর এই উইল কার্যকর হবে । এবং দ্বিতীয় টা হল কোন কারণে স্ত্রী মারা গেলে বা তাঁদের মধ্যে বিচ্ছেদ হলে সব সম্পত্তির মালিক হবে স্বামী ।

তুমি এটা নিয়ে তোমার তাঁর কাছে চলে যাও এবং ওকে বিয়ে কর । তিন মাস পর তোমরা দুজনেই ঐ সম্পত্তির মালিক হবে । শুধু স্বামীর নামের স্থানে আমার নাম বসায় দিবা ।

তাহলে আমি এখন কি করব?

তোমাকে কিছুই করতে হবে না । সবাই চলে গেছে তুমি শুয়ে পড় আর মনে মনে প্লান কর কিভাবে তোমরা পালিয়ে বিয়ে করবে । আমি পাশের ঘরে যাচ্ছি ।

0 Shares

৫টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ