শুভবিবাহ ( পাত্র পাত্রি সিঙ্গেল তো ? )

এস.জেড বাবু ১০ ডিসেম্বর ২০১৯, মঙ্গলবার, ০৩:১০:২২অপরাহ্ন বিবিধ ৩৬ মন্তব্য

বিকাশ একাউন্ট খোলা কত্ত সহজ।

ঘরে বসে বিকাশ অ্যাপ এর মাধ্যমে একটা ছবি আর এনআইডি ভেরিফিকেশান কমপ্লিট হলেই একাউন্ট ক্রিয়েশান সাকসেসফুল। বাহ্ সেই গলির মোড়ে বিকাশ এজেন্টের দোকানে গিয়ে লাইনে দাড়িয়ে থাকা লাগে না।

কোন ঝামেলা নাইক্কা-
শুধু একটা এনআইডি দিয়ে একজন মানুষ একটাই বিকাশ একাউন্ট খুলতে পারবে।
__________________কত্তো সিকিউরড-

তাহলে বিয়ের মতো একটা জীবনের অংশীদারিত্বের একাউন্ট খুলতে এনআইডি ভেরিফিকেশান এর মাধ্যমে ডিজিটাল পদ্ধতিতে কাবিননামা রেজিষ্ট্রেশন হলে কেমন হতো ?

মুখে মুখে বলে আর গৃহপালিত মিথ্যার আশ্রয় নিয়ে একজন বিবাহিত পুরুষ বা মহিলা একটার অধিক গুরুত্বপূর্ণ জীবনের অংশীদারিত্বের একাউন্ট খোলার পথ খোঁজে পেত না।

অধিক নারীলোভী / পুরুষলোভী মানুষগুলি ধরা খেয়ে যেত এনআইডি ভেরিফিকেশান এর ডিজিটাল জালে।

বদলে যেত সমাজ- চিন্তা চেতনা।

সেই বগলে ছাতা আর মাথায় টুপি রেখেও যারা সামান্য কমিশনের জন্য একটা বিবাহিত ছেলে বা মেয়ের বিষয়ে মিথ্যে বানোয়াট গল্প প্রচার প্রচারনা করে তা চিরতরে সমূলে বন্ধ হয়ে যেত।

আরে বাহ্ – কত্তো সহজ, শুধু গুগল প্লে ষ্টোরে একটা আধুনিক অ্যাপ খোঁজে নিয়ে ডাউনলোড আর ইন্সষ্টল। ব্যাস ।
প্রয়োজন বোধে চলমান কাজীগীরির প্রক্রিয়া চালু রাখার ইচ্ছে থাকলে, শুধুই রেজিষ্টার্ড কাজীগণকে উপযুক্ত অনলাইন ফর্মে তথ্য ফিলাপের মাধ্যমে নির্দিষ্ট নিয়মের আওতায় ওই “শুভ বিবাহ” অ্যাপ এ এক্সেস করার সুযোগ করে দিন।

এই অ্যাপ তৈরীর কাজে আমাদের বাঙালিরা কত্তো এক্সপার্ট- নইলে বিকাশ কি করে কোটি টাকার লেনদেন এতো সুন্দর করে করতে পারে !!

বর কনের আঙ্গুলের ছাপ- সকল গুরুত্বপূর্ণ সমস্যার সমাধান।
জাতি পেয়ে যাবে আঙুলের ছাপে- এনআইডির ডিজিটাল প্রতিদান।

নীতিনির্ধারক মহল চাইলে হয়ত –
আসছে আগামি কাল থেকেই বদলে যেতে থাকবে দেশ।

কি বলেন ?
“অসম্ভব কে সম্ভব করাইতো এনআইডি’র কাজ”

-০-

প্রতিকি ছবি

১৭০জন ২২জন
10 Shares

৩৬টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ