শীতের নহবত শুনতে পাচ্ছি

ছাইরাছ হেলাল ১৭ ডিসেম্বর ২০১৮, সোমবার, ১০:১৯:২৮পূর্বাহ্ন গল্প ২১ মন্তব্য

শীত, আসবে বলেছিল, এসে-ও ছিল, জানান দিয়েই; উঁকি দিয়েই পালিয়েছে;
নিম্নচাপের চাপ ঠেলে-ফেলে জাঁকিয়ে-ঝাঁপিয়ে-কাপিয়ে-ছাপিয়ে হামলে পড়, তাতো চাইছি-ই।
জাঁক করে বলছি-না কিন্তু মোটেই।

রোদোষ্ণ লেপের গরম-পরম ওমে অপেক্ষার প্রহরে, এসো ঝর্ণা-কলমের যৌথ স্বাক্ষরে
লিখে ফেলি/চলি ক্লান্তিহীন মৌসুমি কোন কাব্য-কলা, লেখা অ-লেখার বাঁক বদলের ভাজে ভাজে।
দিন-ভর রাত-ভর। স্বপ্নবন্দি অনুষঙ্গ জুড়ে জুড়ে। প্রতিবেশ পরিবেশের তোয়াক্কা না করে।
আহ্লাদি-রাগ-অভিমান টুকরো টুকরো হাসাহাসি, নাওয়া-খাওয়া-ঘুম ভুলে। ঋণী হয়ে যাই পরস্পরে।

সরিষার তেলে মাখা মিষ্টি/ঝাল মরিচ পিয়াজের সাথে টাটকা মুড়ি অবশ্যই অনবদ্য।

সহসা যদি এসে পড়ে বেঢপ কোন অতিশয় ছিন্নমূল উৎপাত, সমূলে বিদেয় করে দেব মিষ্টি কথার চিড়া খাইয়ে,
হাত-টাত বুলিয়ে, নিচু গলায় গুনগুনিয়ে গান-টান শুনিয়ে-টুনিয়ে, তাতেও যদি কাজের কাজ না হয়,
বিছুটি পাতা ঘসে দেব স্পর্শকাতর জায়গায় সমূলে, প্রয়োজনে চোখে মরিচ ছুঁড়ে মারা, হাতে রেখে।
থ্যাবড়া মেরে মতিচ্ছন্ন!! নাহ্‌,তাও না।

উচ্ছল উছলে পড়া উসকানিমূলক জবরদস্তিটুকু চাইছি-ই।
শীতনিদ্রা!! মোটেই-না।

৩৭৩জন ৩৭২জন
0 Shares

২১টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ