লিমেরিক

সুপর্ণা ফাল্গুনী ১০ সেপ্টেম্বর ২০২০, বৃহস্পতিবার, ১২:০০:১৫পূর্বাহ্ন সাহিত্য ২৬ মন্তব্য

যারা সাহিত্য ভালোবাসেন, সাহিত্যের সর্বত্র বিচরণ করেন বা যারা শুধুই কবিতায় মগ্ন থাকেন, কবিতা রচনাতেই নিজেকে যুক্ত রেখেছেন তারা কবিতার ‘লিমেরিক’ শব্দটির সাথে কমবেশি পরিচিত। ‘লিমেরিক’ নিয়েই আজ আমি আপনাদের সাথে কিছু কথা শেয়ার করবো। আশা করি সবাই উপকৃত হবেন বা বিষয়টি সম্পর্কে কিছুটা ধারণা পাবেন যা পরবর্তীতে আপনার কবিতা লেখায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। সমস্ত সাহিত্য প্রেমীদের জন্য আমার আজকের এই লেখাটি উৎসর্গ করলাম।

 

লিমেরিক (Limerick) একটি ইংরেজি শব্দ। শব্দটি ইংরেজি ভাষা থেকে সরাসরি বাংলা কবিতার মাতৃভূমিতে এসে অনিবার্য নাগরিকত্ব লাভ করেছে এর মহৎ চারিত্রিক বিশিষ্ঠতায়। বিশ্বসাহিত্যের এ নাগরিক “লিমেরিক” ছোট কবিতার (Little Poems) এক অনন্য রচনা শৈলী।

 

লিমেরিকের গল্পঃ লিমেরিক আয়ারল্যান্ডের একটি জায়গার নাম। ফ্রান্সের সৈন্যদলের আইরিশ ব্রিগেডিয়াররা ওই লিমেরিকে অবস্থান কালে এ রকম ছোট ছোট ছড়ার গান গাইত এবং শেষ লাইনে থাকত ধোয়াশার মতো এ কথাটি “ Let us come up to Limerick”. সুর করে কোরাসের মাধ্যমে এ গানগুলো গাওয়া হত। কোন এক অজানা কবির হাতে সৃষ্টি হয় এ গীতিকবিতা। সৈন্যারা হয়ত লিমেরিকের এই ধরনটার অনুকরনে মুখে মুখে ছড়া তৈরী করে মুখে মুখে গান গাইত। যূদ্ধশেষে যে যার বাড়ী ফিরে তারা তাদের ভাবী বংশধদের এ গান শোনাতো। লিমেরিক স্থান থেকে আমদানি বলে এবং “Let us come to Limerick” এ শেষ কথাটি “Limerick” বলে এ ছোট গীতিকবিতাগুলোর নাম হয়ে যায় হাস্যরসাত্মক ছোট কবিতার এক অনন্য রচনাশৈলীর নাম “লিমেরিক”।

 

ছোট কবিতার এ ফর্মটি সাধারণত ৫ টি বিশিষ্ট চরণে গঠিত। লিমেরিকের অন্ত্যমিলের বিন্যাস হল – ক ক খ খ ক। ৩য় ও ৪র্থ পঙ্‌ক্তি ১ম, ২য় ও ৫ম এর চেয়ে মাপে ছোট হয়। ইংরেজি নার্সারী রাইম (Nursery rhyme) থেকে এর উৎপত্তি। সাধারণতঃ লিমেরিকের বক্তব্য অর্থবোধক হয় না, বরং দ্যোতনাযুক্ত হয়। বাংলা লিমেরিকের উদাহরন –

 

তাতীর বাড়ি ব্যাঙের বাসা

কোলা ব্যাঙের ছা।

খায় দায়,

গান গায়,

তাইরে নাইরে না।

 

আমাদের প্রিয় সত্যজিৎ রায়ের তিনটি লিমেরিক উল্লেখ করছি –

 

এক যে সাহেব তার যে ছিল নাক

দেখলে পরে লাগত লোকের তাক

হাঁচতে গিয়ে হ্যাঁচ্চো হ্যাঁচ

নাকের মধ্যে লাগল প্যাঁচ

সাহেব বলে, ‘এইভাবেতেই থাক।

 

পাগলা গরু সামলানো যা ঝক্কি,

আমার কথা শুনবে কেনো লোক কি?

কাছে যখন পড়বে এসে

বলবে তারে মিষ্টি হেসে,

‘আমার ওপর রাগ কোরো না লক্ষ্মী!

 

চোরের ভয়ে রামনারায়ণ খোট্টা

ঘুমোয় বসে বন্ধ করে দোরটা,

এই সুযোগে দুই ইঁদুরে

দিব্যি খেলো পেটটি পুরে

ঝোলানো তার সাধের হ্যাট আর কোটটা।

 

আঠার খ্রিস্টাব্দের গোড়ার দিকে ইংরেজি সাহিত্যে লিমেরিকের প্রচলনতা ও সাহিত্যিক জনপ্রিয়তা বাড়তে থাকে এডোয়ার্ড লিয়েরের হাত ধরে (A Book of Nonsense in the year 1846), তবে লিয়ের এগুলোকে কখনো “লিমেরিক” অভিধায় রাখেননি। এরপর এই ফর্মে লিখতে থাকেন Alfred Lord Tennyson, Shakespeare, Rudyard Kipling, Dante Gabriel Rossetti, Ogden Nash, H. G. Wells, W. H. Auden, T. S. Eliot, James Joyce, and Lewis Carroll – এঁদের মতো আরো অনেক বিখ্যাত কবি-সাহিত্যিক।

 

আসুন কিছু বিখ্যাত লিমেরিক পাঠ করি –

 

There was an Old Man with a owl,

Who continued to bother and howl;

He sat on a rail

And imbibed bitter ale,

Which refreshed that Old Man and his owl

– Edward Lear

 

কে জানে এ নিশাচর দেখে মোরে কি চোখে!

মোর পাশে দেখে যদি ভাবে অবিবেচকে

এ আমার কেউ হয়

আমি বলি মোটে নয়-

কোনোখানে মিল নেই মানুষে ও পেচকে।

– (সত্যজিৎ রায় অনুবাদিত)

 

There was an Old Man with a beard,

Who said, ‘It is just as I feared!

Two Owls and a Hen,

Four Larks and a Wren,

Have all built their nests in my beard!

– Edward Lear

 

বললে বুড়ো বোঝো ব্যাপার খানা

একটা মোরগ,চারটে শালিকছানা,

দুই রকমের হুতোমপ্যাঁচা

একটা বোধহয় হাঁড়িচাঁচা

দাড়ির মধ্য বেধেছে আস্তানা।

– (সত্যজিৎ রায় অনুবাদিত)

 

There was an Old Man of the Dee,

Who was sadly annoyed by a flea;

When he said, ‘I will scratch it,’

They gave him a hatchet,

Which grieved that Old Man of the Dee.

– Edward Lear

 

লালুবাবু বাড়ি তাঁর লাউডন ষ্ট্রীট

পাৎলুনে বসে দেখ অতিকায় কীট

তাই দেখে রাম দাঁ

এনে দেন রাম দা

বলেন,‘ এর এক কোপে কীট হবে ঢিট।’

– (সত্যজিৎ রায় অনুবাদিত)

 

There was an Old Man of Whitehaven,

Who danced a quadrille with a raven;

But they said, ‘It’s absurd

To encourage this bird!’

So they smashed that Old Man of Whitehaven.

– Edward Lear

 

কেনারাম ব্যাপারীর ভৃত্য

বায়সের সাথে করে নৃত্য।

লোকে বলে ‘এইভাবে

কাকটার মাথা খাবে।

ঢং দেখে জ্বলে যায় পিত্ত।

– (সত্যজিৎ রায় অনুবাদিত)

 

There was an Old Man, on whose nose,

Most birds of the air could repose;

But they all flew away

At the closing of day,

Which relieved that Old Man and his nose

– Edward Lear

 

যত পাখি আছে মোমবাসাতে

বসে এসে আমার এই নাসাতে

যেই বাজে সাড়ে ছটা

একে একে সব কটা

উড়ে যায় যার যার বাসাতে।

– (সত্যজিৎ রায় অনুবাদিত)

 

There was a Young Lady of Bute,

Who played on a silver-gilt flute;

She played several jigs,

To her uncle’s white pigs,

That amusing Young Lady of Bute.

– Edward Lear

 

বাজায় বাঁশি মেমসাহেবে

কেউ আসেনা কাছে

সবাই জানে

বাঁশির তানে

তিন শূয়োরে নাচে।

– (সত্যজিৎ রায় অনুবাদিত)

 

There was a young lady of station

“I love man” was her sole exclamation

But when men cried, “You flatter”

She replied, “Oh! no matter

Isle of Man is the true explanation.

(From To Miss Vera Beringer by Lewis Carroll)

 

There was a small boy of Quebec

Who was buried in snow to his neck

When they said, “Are you friz?”

He replied, “Yes, I is —

But we don’t call this cold in Quebec.”

(From “There was a small boy of Quebec” by Rudyard Kipling)

 

And let me the canakin clink, clink;

And let me the canakin clink

A soldier’s a man;

A life’s but a span;

Why, then, let a soldier drink.

(From “Othello” by William Shakespeare)

 

A man hired by John Smith and Co.

Loudly declared that he’d tho.

Men that he saw

Dumping dirt near his door

The drivers, therefore, didn’t do.

(From “A Man Hired by John Smith & Co” by Mark Twain)

 

তথ্য ইন্টারনেট থেকে সংগৃহীত

২০২জন ১৪জন
0 Shares

২৬টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য