লম্বা বেনীর সেই মেয়েটা

সাতকাহন ৬ জুলাই ২০১৫, সোমবার, ০৭:৪০:৫৩পূর্বাহ্ন কবিতা ২২ মন্তব্য

কেউ বা যেতো আলোচনায়
কেউ শুনতো গান
আমার মধ্যে ছিলো কিন্তু
অন্য কিছুর টান।

কালী মন্দির, সন্ধ্যা পুজো
নাগ-লিঙ্গম ফুল
তারা আমায় টানতো কাছে
ভীষণ রকম ভুল।

আলোকচিত্রে নরেন্দ্রনাথ
বারোই জানুয়ারি
মা সারদা, বড় পুকুর
ঠাকুর মশাইর বাড়ি
ওসব কিছু টানতো নাতো
আমায় কোনোদিন
অন্য কিছু টানতো আমায়
টানতো অন্তহীন।

আমায় টানতো পুবদুয়ারী
ছোট্ট টিনের ঘর
বুকের ভেতর একশো ঘোড়া
ছুটতো নিরন্তর।

সেই ঘর ঘেষে জাম রঙের
কাঞ্চন ফুল গাছ
ফুলের ছোঁয়ায় মনে হতো
লাগতো তার ছোঁয়াচ।

সন্যাসী রঙ ডালিয়া ফুল
নিরব সন্ধ্যাবেলা
চেয়ে চেয়ে দেখতো শুধু
চোখ মেলানোর খেলা।

কিশোর বয়েস দেবদারু গাছ
রান্নাঘরের পাশে
সাক্ষী ছিলো মনের গোপন
গভীর সর্বনাশে।

লম্বা বেনীর সেই মেয়েটা
টানা টানা চোখ
সেই তো ছিলো তীর্থ আমার
সেই আনন্দলোক।

 

 

৬ জুলাই ২০১৫
নর্থ সার্কুলার রোড, ধানমন্ডি
ঢাকা, বাংলাদেশ

৩৪৫জন ৩৪৫জন
0 Shares

২২টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ