রোদ জানালার পর্দাটা

বনলতা সেন ২০ অক্টোবর ২০১৪, সোমবার, ০৪:১৯:৪৭অপরাহ্ন একান্ত অনুভূতি ৩২ মন্তব্য

জানালার শার্শি আর ঝুলন্ত রোদের পর্দা।পর্দার ফাঁক গলিয়ে এক চিলতে সোনা রোদের উঁকিঝুঁকি।
আধ-ঘুমন্ত গুটিসুটি বেড়াল চোখে চেয়ে দেখা।হোঁচটের চিড় গুলোর ঝগড়া-ঝাঁটি বিঁধছে বিষণ্ণ বুকে।
এন্তার কেতাদুরস্ত অপেক্ষার কোলে বসে শুধুই তাকিয়ে থাকা। আঙুলের গাঁটে গাঁটে ও ঘাড়ে কামড়ে বসা জবুথুবু
শীতে ধোয়া ওঠা দীঘির জলে জল মাকড়ের পিছলে চলা,কী আশ্চর্য ! একটুও পা না ভিজিয়ে।
এক বিঘত পুরু অন্ধকারের গোলাঘর ভেঙ্গে ঘোরানো সিঁড়ি বেয়ে বড় দরজার মুখে ছোট্ট জানালায় অবাক
বিস্ময়ে ইউরেকা চিক্কুর ......
ভোর ! আমি তোমাকেই খুঁজছি। ভেবো না,সে ও এই এলো বলে। চলো না, ঐ জল মাকড়শার পিছু নেই?
আমি ভোর ভেসে আছি ভেসে রব জল কৈতর হয়ে,দীঘি জলে তুমি ডুবে যাবে,সে আমি সইতে পারব না।
ডুবে আছি বলেই দেখা হয় নাছরিন প্রিয়ংবদাদের সাথে।

জাঁহাবাজ তীরন্দাজের তীর হয়ে আমূলে বিঁধে যাব ভোরের বুকের গভীরে,কখন ????????

0 Shares

৩২টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ