কৌতুক (ম্যাগাজিন)

আরজু মুক্তা ৩০ এপ্রিল ২০১৯, মঙ্গলবার, ০১:২৩:৪২অপরাহ্ন রম্য ২৯ মন্তব্য

কৌতুক ১ঃ

একলোক মহা ধুমধাম করে বিয়ে করলো!যেহেতু রাতে অনুষ্ঠান।শেষ হতে অনেক দেরি হয়ে গেলো।চোর ব্যাটা মহা আনন্দে খাটের তলায় লুকিয়ে থাকলো।

মনে মনে বললো,বর বৌ ঘুমালেই হয়!আমাকে আর পায় কে!সোনা গহনা নিয়ে ভোর হবার আগেই চম্পট দিবো!

যাই হোক বর বৌ চলে আসলো !দরজাও বন্ধ হলো!বর তো ঘোমটা খুলে দেখে,বৌ তো নয় অপ্সরী!কোন বিশেষণ খুঁজে পাচ্ছে না!

কিছুক্ষণ পর পর শুধুই বলে মুই এলা কি কং(আমি এখন কি বলবো)!

মহামুশকিল ,চোরের তো ধৈর্য ধরে না!

বর আবারও বলে, মুই এলা কি কং!

এদিকে ভোরও হয়ে আসছে!চোর খাটের নীচ থেকে বের হয়ে বলে,”কিছুই যখন কবার না পাইস(কিছু যখন বলতে না পারিস)!

তাহলে তুই মা ক মা(মা বল মা)!

বলেই ছিটকিনি খুলে,চোর দিলো এক দৌড়!

কৌতুক ২ঃ

আফগানরা যখন এদেশে আখরোট,খেজুর,কিসমিস বিক্রি করতে আসতো!সেই সময় গাছে কাঁঠাল ঝুলতে দেখে অবাক হয়েছিলো!এক বাঙালীকে জিজ্ঞেস করলো, “এটা কি?”বাঙাল বললো এটা আমাদের জাতীয় ফল,খুবই সুমিষ্ট !সেই সাথে শয়তানি বুদ্ধিও মাথায় আসলো!কেমনে ওর দাড়িতে কাঁঠালের আঠা মাখায় দেয়া যায়!আফগান খেতে চাওয়াতে ওর সুবিধাই হলো। বললো,খেয়ে দেখো!কিন্তু শিখালো না কীভাবে আঠা ছড়িয়ে খেতে হয়!আফগান কাঁঠালের মজা পেয়ে খেতেই থাকলো আর আঠা গিয়ে দাড়ি,মোচ সবখানে জটা পাকিয়ে দিলো।ছাড়ানোর চেষ্টা করেও পারলোনা!
এই সময় রাস্তায় এক জটাধারী এক বাউল যাচ্ছিলো।ওকে দেখে বললো,”তুম ভি কাঁঠাল খায়া!”

৩০০জন ৯৫জন
5 Shares

২৯টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য