মানুষরূপী আমরা কেন মনে করতে পারিনা সবাই মানুষ ।

মনুষ্যের মুখোসধারী আছে হাজার রকমের অমানুষ।

মানুষ নামের আছে জঙ্গলি জানোয়ার।

যারা মানবতা শান্তিকে করে দেয় ছারখার।

মানুষ নামের আছে দানব।

ভাব দেখায় জনদরদী অতি মানব।

মানুষ নামের আছে পিশাচ পাষান্ড নর ঘাতক।

চুরি দুর্নীতি করে মানুষকে ঠকিয়ে বনেছে অভিভাবক।

আছে নারী নির্যাতনকারী নিষ্ঠুর খুনি ধর্ষক।

তামাশা দেখা উৎসাহী ভীরু কাপুরুষ দর্শক।

মানুষ নয় আছে চাপাবাজ তৈলবাজ।

চোর ডাকাত ভূমি দস্যু ভেজালকারী দুর্নীতিবাজ।

আছে লম্পট ভ্যাবিচারী ধান্ধাবাজ চাটুকার বাটপার।

আছে সম্পদ লুন্ঠনকারী অবৈধ দখলদার মজুদদার।

মানুষ নয় আছে মানবতা নৈতিকতা বিবর্জিত খুনি পশু।

প্রতিদিন তাঁদের হাতে বলি হচ্ছে অসহায় নারী আর শিশু।

মন্দ মানুষকে ইন্ধন দিয়ে নিজের আখের গোছাতে হয় তালিবাজ।

নয় দানবীর মহানুভব সমাজসেবী শিক্ষানুরাগী আসলেই রংবাজ।

এতীমের হক মেরে গড়েছে সুরম্য প্রাসাদ মনোরম অট্টালিকা।

দোযখে জ্বলার জন্য নিজ হাতেই তৈরি করছে অগ্নিশিখা।

মৃত্যুপথযাত্রী মানুষের সঙ্গে করছে ভেজাল ঔষধের কারবার।

মনে হয় তাঁরা আমরণ বেঁচে রইবে যাবে না পরপার।

হে মানুষ মানবতা কেন কাঁদে না তোমার অন্তরে।

ধর্মীয় শিক্ষা সামাজিক রীতিনীতি কোথায় গেল মরে।

আর্থ মানবতার সেবায় কেন নিজেকে করছো না নিয়োজিত।

মনুষ্যত্ব স্নেহ শ্রদ্ধা ভালবাসা প্রেম প্রীতি অন্তরে করো জাগ্রত।

মানুষের মধ্যে গড়ে তোল সম্প্রীতি সৌহার্দ্য ভ্রাতৃত্ব মায়া মমতা।

মানুষ হোক মানুষের তরে সুখে দুঃখে গড়ে উঠুক শুভ সুন্দর একতা।

৪০০জন ২৯১জন
19 Shares

১৭টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য