received_10210680475740666

দৃষ্টি আকর্ষণ করছি…

কে এই লুবনা চৌধুরী? ইনি আসলে কি বলতে চান?

গুলশানস্থ ‘বাংলাদেশ ইন্টারন্যাশনাল টিউটোরিয়াল’ স্কুল এর প্রতিষ্ঠাতা প্রিন্সিপাল লুবনা চৌধুরীর নামে স্কুল ক্যাম্পাসে নোটিশ ঝুলছে, “যদি কোন ছাত্রছাত্রী বাঙলা ক্লাস ছাড়া স্কুলে বাঙলায় কথা বলে তবে তাকে বহিষ্কার করা হবে।”
বাহ! বাহ! বাহ!

যে দেশের নাম বাংলাদেশ, যে দেশের মাতৃভাষা বাঙলা, সর্বোপরি যে জাতি মাতৃভাষা বাঙলা রক্ষার জন্য রক্ত দিয়েছে, কালের পরিক্রমায় সেই বাঙলা ভাষা ব্যবহারের উপরই নিষেধাজ্ঞা জারি হয় এই বাংলাদেশেরই একটি বিদ্যালয়ে! কি করে সম্ভব?

এরা আসলে কার হয়ে বিদ্যালয় পরিচালনা করছে? ইংরেজী শেখানোর নাম করে মুখ থেকে কৌশলে মাতৃভাষাকে কেড়ে নিচ্ছে কি? দিনের বেশিরভাগ সময় ইংরেজি ভাষা শিক্ষার নামে অন্য ভাষায় কথা বলিয়ে আস্তে আস্তে নিজের ভাষা বাঙলাটাকেই মুখ থেকে সরিয়ে নিতে চাইছে কি!

যে ভাষার জন্য জাতি রক্ত দিয়েছে, এদেশে সে ভাষায় কথা বলার ক্ষেত্রে যে স্কুল নিষেধাজ্ঞা জারি করে তাদের রেজিস্ট্রেশন থাকাই উচিৎ নয়।

বিঃ দ্রঃ কিছুদিন আগে রাজধানীর ‘মাস্টারমাইন্ড’ স্কুল শহীদদিবসে ভাষাশহীদদের বদলে বীরশ্রেষ্ঠদের ছবি টানিয়ে কোমলমতি কিশোরকিশোরীদের মনে বিভ্রান্তি সৃষ্টি করতে চেয়েছিলো।

নিঃসন্দেহে আজকের আলোচ্য ঘটনাটিও দুরভিসন্ধিমূলক।

৬২৫জন ৬২৪জন
0 Shares

১৫টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ