এরে বলে ভালবাসার ঠেলায় মারবেল কান্ধে উঠে যাওয়া, ইনি আবার মহিলা, মারবেলের বদলে কি উঠেছে সেই জানে। এইটা ফেইক আইডি হইতে পারে, তবে এমন ভাবনার আপার অভাব নেই। আমি নিজেই চিনি কয়েকজনকে। এছাড়া গার্লস গ্রুপে কমেন্ট দেখলে বোঝা যায়। এবিউসিভ রিলেশনের কথা বললেই অনেকেই যেমনে ধর্মকর্ম আর ভালবাসা দিয়ে  স্বামীরে ঠিক  করে দিতে বলে আর একটু আধটু এমন হয় বলে জ্ঞান দেয় যে দেখলেই অস্বস্তি হয়।

 

শুনেন আপারা প্রথম দিন মারার পরে হাউমাউ করে কাঁদছে, পরেরদিন একটু কাঁদবে, এরপর একটু নাক টানবে, এরপর কান্না বন্ধ, উল্টা গালি দিতে দিতে আনন্দের সাথে মারবে, ভাববে ভাল শিক্ষা দিচ্ছে। একসময় এই মার দেওয়া তার রেগুলার কাজ হবে। এখন তুই বলার জন্য মারছে, এরপর চোখ তুলে তাকালে গুতা দিবে, তরকারিতে লবণ কম হলে জুতাইতে জুতাইতে মা$গী বলে গালি দিবে। আপনার হয়তো তখনও সেইটারে ভালবাসা মনে হবে, পুরুষমানুষের একটু রাগ থাকে ভাববেন।

কিন্তু আপনি এইটা ভাববেন না যে এতো যন্ত্রণার পরেও আপনার তো রাগের মাথায় হাত ওঠাতে ইচ্ছে করেনা! তার মানে এইটার পিছনে কি কারণ রাগ নাকি অন্য কিছু? এইযে আজকে হাত তুললো এইটা হলো সূচনা, সামনে পুরো রচনা অপেক্ষা করছে। বন্ধ করতে চাইলে ওইযে ভেউভেউ করে কান্দার সময়ে জায়গামতো আপনিও একটা দিয়ে এরপর উনার চেয়ে আরও বেশি  কান্দাকান্দি করে বোঝায়ে দেন যে আপনার গায়ে হাত তোলার অধিকার কারও নেই।

আর যদি তা না পারে তাইলে ফেবুতে এইসব মধুর ভালবাসা বলে গ্লোরিফাই করে অন্য মেয়েদের সর্বনাশ কইরেন না। আপনার কাছে গু রে ফালুদা মনে হইতে পারে, কিন্তু গু যতোই ডেকোরেট করেন না কেন তা গু ই থাকে, খাদ্য  হইতে পারে না। প্লিজ দুর্গন্ধ ছড়াইয়েন না।

পুস্পিতা আনন্দিতা,

নিউইয়র্ক, আমেরিকা।

১৬৪জন ৯০জন
0 Shares

৪টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ