মনের পশুর কোরবানী

মনির হোসেন মমি ২১ জুলাই ২০২১, বুধবার, ০১:১৩:৫৫পূর্বাহ্ন একান্ত অনুভূতি ৮ মন্তব্য

 

৴ওবাবা ওবাবা গরু কিনবা না?

৴নারে বাপ এবার কোরবানী দিতে পারুম না।

কেন?

তুমি বুঝবা না….।।

রহিমের সন্তাদের এ আবদার রহিমের জন্য এ যাবৎকাল কোন সমস্যাই ছিলো না।প্রতিবার তার সাধ্য মত গরু কোরবানী দিতেন।এবারো কোরবানী দেয়ার নিয়ত ছিলো কিন্তু সর্বোনাসা করোনা তার সব স্বপ্নগুলো উলোটপালট করে দিলো।

মনটা একটু হালকা করতে চা স্টলে গিয়ে বসে এককাপ চা এবং একটি কমদামী;সিগারেট ধরালেন।একটু দুরেই বসেছে গরু কোরবানীর হাট।বসে বসে রহিম দেখছিলেন৴ এ রাস্তা দিয়ে কে কয়টা করে গরু কিনে নিয়ে যাচ্ছেন।তার পাশে এসে তার পরিচিত এলাকার একজন সমবয়সী এসে বসলেন।

কী রহিম এবার কী কোরবানী দিবা না?
নারে ভাই।এবার দিতে পারবোনা।হাতের অবস্থা এবার ভালা না।

তাদের পাশ দিয়ে যেই গরুটাই নিয়ে যাচ্ছে পাশের লোকটা তাকেই বলছেন-ভাই দাম কত?কেউ তার প্রশ্নের উত্তর দিচ্ছেন কেউ কেউ এরিয়ে যাচ্ছেন।এক লোকের সাথে রীতিমত সে ঝগড়া লেগে গেল।
-কীরে ভাই দাম কত জিগাইলাম কওনা কেন?হারাম টাকায় কেনা নাকি?
-কী কইলেন?
যেই ঝগড়া শুরু হবে অমনি রহিম উঠে দাড়িয় উভয়কে শান্ত করার চেষ্টা করলেন।গরু ক্রেতা রহিমকে বললেন।
-আরে ভাই কনতো দেহি কয়জনকে এভাবে দাম বলা যায়!সেই উত্তর পাড়ার হাট হতে কিনে আনতে আনতে মধ্য পাড়ায় এসে না হয় অন্ততঃ কয়েকশত লোকের দাম কত দাম কত প্রশ্নের উত্তর দিয়েছি।দাম বলতে বলতে মুখ ব্যাথা হয়ে গেছে আর পারছিনা,,,।

যাক ভাই যা হবারতো হয়েছে ওর হয়ে আমি সরি বলছি।

কিছুক্ষণের মধ্যে দোকানটিতে ভীড় ভেঙ্গে নীরবতা এলো।রহিম তার পাশে বসা লোকটির জন্য চায়ের অর্ডার দিয়ে লোকটিকে আবারো তার পাশে বসালেন।লোকটিকে বললেন।

শোন এভাবে কখনো কাউকে কিছু বলবে না বিশেষ করে ধর্মীও ক্ষেত্রে যতসব কথা বলবে কারন ধর্ম বিষয়টাই একটু বেশী স্পর্শ কাতর।

তুমি ওদের সম্মদ্ধে জানো না আমি জানি বলেই বলেছি।দেখছো দুইডা হাতির লাহান গরু কিনছে।কৈ পায় এতো টাহা?এসব হারামি টাকায় কুরবানী অবে নাকি৴৴

৴সেতো উপরওয়ালাই জানেন।

৴আরে ভাই যে হারে কুরবানীর গরু কেনায় ধুম পড়ে আর কে কয়টা দিবে দামে মানে কে কার উপরে থাকবে এই যে অবস্থাটা তুমি কী মনে করো৴আর এইদিকে তার নিকটাত্মীয়টি যে অভাব অনটনে না খেয়ে আছে সে খবর তার নেই। কুরবানী আত্মশুদ্ধির কোন বাহাদুরীর বিষয় নয়।সাধ্যের মধ্যে হালাল কামাইয়ের টাকায় কুরবানী দেয়াটা ওয়াজিব৴ফরজ নয়।

অইছে চলো একটু হাটে যাই।

মাক্স

আছে৴৴৴

‘ইব্রাহিমের কাহিনী শুনেছ? ইসমাঈলের ত্যাগ?

আল্লারে পাবে মনে কর কোরবানি দিয়ে গরু-ছাগ?

আল্লাহর নামে ধর্মের নামে, মানব জাতির লাগি-

পুত্ররে কোরবানি দিতে পারে, আছে কেহ হেন ত্যাগী?’

৴কবি নজরুল(বকরীদ)

আমরা যেন তাই করি যা সব ধর্মের প্রতিটি উৎসবের ব্যায় একটু কমিয়ে প্রতিবেশীদের প্রতি দায়ীত্বশীল হই। অতিরিক্ত ব্যায় শয়তানের দোষর।মিতব্যায়ী আল্লাহর প্রিয়।মিতব্যায়ী হয়ে সুবিদা বঞ্চিতদের পাশে দাড়াই।

  • ”সবাইকে ঈদ মুবারক

             শুভেচ্ছাশুভকামনাশুভ হউক ৴প্রতিদিন৴সকাল বিকাল৴সন্ধা৴রাত্রী৴ভোর।

 

১৫৯জন ৬৫জন
0 Shares

৮টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য