মির্জা আসাদুল্লাহ খান গালীব, জন্ম ২৭শে ডিসেম্বর ১৭৯৭, আগ্রা ও মৃত্যু ১৫ই ফেব্রুয়ারী ১৮৬৯, দিল্লী।

১.
জ্বলা হ্যায় জিসম জঁহা দিল ভি জ্বল গায়া হোগা
পুরেদেতে হো জো আব রাখ জুসতজু ক্যা হ্যায়।

 
পুড়িয়ে আমার মন আর দেহ
উড়িয়ে উড়িয়ে দেখছো ছাই,
সত্যি করেই বল ত সখী
আসলে তোমার কি যে চাই?

২.
হম ভি তসলীম কি খু ডালেঙ্গে
বেনেয়াজি তেরি আদত হি সহী।

অবহেলা করাটা যদি তোমার অভ্যাসে থাকে মিশে
তবে চুমুক দেবো আমিও জেনো মানিয়ে নেবার বিষে।

৩.
ফির তেরে কুচেকো যাতা হ্যায় খেয়াল
দিল-এ গুমগশতা মগর ইয়াদ আয়া…

এ মন আবার তোমার পানেই যায় গো উড়ে বারে বারে
হারিয়ে যাওয়া তোমার স্মৃতি কেনই বা যে মনে পড়ে।

৪.
হ্যায় বস কে হর এক উনকে ইশারা মেঁ নিঁশা অওর
করতে হ্যাঁয় মুহব্বৎ তো গুজরাত হ্যাঁয় গুমাঁ অওর!

তাহার প্রতি কথার ভেতর
অন্য ভাষা মেলে,
বুঝতে পারি প্রেমের প্রকাশ
করছে নানান ছলে।

৫.
দাইয়ম পড়া হুয়া তের দর পর নহীঁ হুঁ ম্যায়
খাক এ্যায়সী জিন্দেগী পে কে পাত্থর নহীঁ হুঁ ম্যায়…

তোমার দুয়ারে আর কত কাল
পাথর হয়ে রই?
পোড়া এ জীবনে যা হবার হোক
আমি তো পাথর নই।

জবরুল আলম সুমন
সিলেট।

১৩২জন ১৩২জন
0 Shares

১৪টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য