ভাবনায় মহাপ্রয়াণ

ত্রিস্তান ২৬ জানুয়ারী ২০২০, রবিবার, ০৬:০৫:৪৭অপরাহ্ন কবিতা ২৬ মন্তব্য
সহস্র নয়নের ভীড়ে আমি খুঁজে ফিরি ঐ দুটি চোখ
যার দু’নয়ন জুড়ে আমাকে দেখার সাধ- 
চির কামনায় সদা জাগ্রত; সে যে চির অপলক ।
কবেকার কোন সে মহা-সময়ের প্রাচীর ঘেঁষে
মানব জন্ম হয়- জীর্ণতা ভরা এই পৃথিবীর আলো বাতাসে;
তারপর শুরু হয় একে একে বিদায়ের পালা
কখন যে কার ডাক আসে –
হিসেবের খাতা খুলে যায়না তা বলা।
কত স্বপ্ন দেখে লোক; লোকারণ্যে ভরা এই জনপদ জুড়ে
কত আশায় বাঁধে বুক, মানুষ- হাজারো ভুল –
ত্রুটির অনলে সে যে নিরবধি পোড়ে 
তবুও মানুষ বাঁচে আগামীর সম্ভাবনা বুকে ।
মানুষ ভুলে যায় এ বিশাল ব্রহ্মাচার- সাঙ্গ হবে অনতিকাল পর,
তবুও জানিনে কেন অট্টালিকা গড়ে মানুষ-
নাতিদীর্ঘ মায়াবী এ চোরাবালির পর,
একদিন ছেড়ে চলে যায়; আপন ঘরের খোঁজে-
শতরঞ্জি ডানায় চড়ে ছেড়ে সে বাসর ।।
পিপীলিকা- প্রাণ তার তুচ্ছ অতি নগন্য সে জীব;
পদতলে পিষ্ট সে যে অগোচরে; অলক্ষ্যে তার নিভায় প্রদীপ
সে ও চলে যায়, চলে যায় সুবিশাল কায়ধারী হাতি 
লতা গুল্ম শষ্য শ্যামল বৃক্ষরাজি আর;
সকল প্রাণের ভার তুলে যে নিয়ে যায় –
তাহারি নিষ্ঠুর দুটি হাত পাতি, আমি তার করি যে সন্ধান।
হয়তো সে আছে বসে যখনি হুকুম তার হয়ে যাবে জারি
উড়ে এসে হাঁক ছেড়ে কেড়ে নিয়ে যাবে এই প্রাণটা আমারি
আমিও পৌঁছে যাবো অসীমের দরবারে –
শুভ্রতায় ঘেরা কোন শুক্রবার ভোরে 
বহু প্রতীক্ষিত সেই মৃত্যু আসিয়া যবে দাঁড়াইবে দোরে –
আমি তার করি ইন্তিজার ।
পরম প্রভুর দ্বারে ভিখিরির বেশে আমি এক- মুসাফির;
তাঁরই করুণা মাগি ; অনন্ত নাজাত লাগি-
তাঁরই নূরের আলোয় ভরে যায় –
যেন মোর অন্ধকার কবর,
বিজলীর বেগে যেন পুলসিরাতে সে আমায় করে নেয় পার,
তাঁরি দয়া ব্যতীত সে কঠিন রোজ হাসরে- নাই কেউ আর।
২১২জন ২১জন
39 Shares

২৬টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য