এই সুন্দর ধরাধামে প্রতিটি মানুষই একটি নির্দিষ্ট দিনে জন্ম নেয়। পরিবারে কত হাসি কত সুখ নেমে আসে সেই শিশুটির জন্মদিনে তা বলাই বাহুল্য। শিশুটি ধীরে ধীরে বড় হয়, সামাজিকতার বন্ধনে আবদ্ধ হয়ে পরিচিত হয় বিভিন্ন মাধ্যমে। পুরো প্রকৃয়াটি আমার কাছে প্রকৃতির এক অপার বিস্ময় বলে মনে হয়। আর সে কারণেই পরিচিত আপন মানুষদেরকে আমি সব সময় জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানাতাম একটা সময়।

কারও জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানানো আমার কাছে যেমন আনন্দের তেমনি কিছুটা বেদনারও বটে। আনন্দের এ কারনে এই দিনেই সে পৃথিবীতে এসেছিলো। পরিবারের অনাবিল সুখ-শান্তি, সবার হাসিমুখ, কত স্মৃতি!!

বেদনার কারন হচ্ছে জীবনে একটি করে জন্মদিন আসে আর জীবন থেকে একটি করে বছর চলে যায়। মনে হয় আর বুঝি বেশী দেরি নেই! যদিও এসব আমার একান্ত ব্যক্তিগত চিন্তাভাবনা। কিন্তু তারপরেও আমরা হাসিমুখ পছন্দ করি। আনন্দ উৎসব করতে ভালোবাসি। আমিও যে এর ব্যতিক্রম নই!

এরপরে পরিচিতি ঘটে বিভিন্ন অনলাইন সামাজিক মাধ্যমগুলোর সাথে। ফেসবুক, ব্লগ, ট্যুইটার যারা ব্যবহার করেন এমন কিছু মানুষের সাথে গড়ে ওঠে সখ্যতা। ভার্চুয়াল জগতের মানুষদের জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানাতে গিয়ে দেখলাম বেশিরভাগ মানুষই আসলে তাদের জন্মদিন পালন করছে বছরের দু’টো। একটি ভার্চুয়াল আর একটি সত্যিকারের জন্মদিন।

ভার্চুয়াল জন্মদিন হলো মনগড়া সার্টিফিকেট বয়স। এই কার্যকারণটিতেই আমার চরম খারাপলাগা তৈরি হয়। আমার নিজের জন্মদিনের ভার্চুয়াল বা সার্টিফিকেট তারিখ আর সত্যিকারে তারিখ আলাদা। একজন মানুষ আমাকে ভালবেসে, শ্রদ্ধা-সম্মান জানিয়ে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানাচ্ছেন অথচ আমি স্বীকার করছিনা যে সেই তারিখটি আসল তারিখ নয়। এটি যখন বুঝতে পারলাম তখন এই খারাপলাগা থেকেই আমি আর কাউকেই ভার্চুয়াল মাধ্যমে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানাইনা। দীর্ঘদিন পর আজ তার ব্যত্যয় ঘটলো।

আজ সোনেলার জনপ্রিয় ব্লগার ইঞ্জা ভাইয়ের জন্মদিন 🌹

সোনেলা ব্লগে লেখার জন্য আমাকে আমন্ত্রণ জানিয়ে প্রথম যে মানুষটি আমাকে উদ্বুদ্ধ করেছিলেন তিনি ব্লগার এম ইঞ্জা ভাই। মুলতঃ আমার লেখনীকে পাঠক সমাজে প্রকাশ্যে নিয়ে আসায় তার অবদান অনস্বীকার্য। অন্তত কিছু মানুষ জানেন তৌহিদ নামে একজন ব্লগার আছেন আর এটি ইঞ্জা ভাইয়ের জন্যই সম্ভব হয়েছে। তাই তার জন্মদিনে শুভেচ্ছা জানিয়ে কিছু কথা না লিখে থাকতে পারলামনা।

আমার এবং সোনেলা পরিবারের পক্ষ থেকে তাকে অনেক অভিনন্দন এবং প্রাণঢালা শুভেচ্ছা রইলো। আপনি ভালো থাকবেন সবসময়। সুখে দুঃখে যেভাবে পাশে ছিলেন এভাবেই যেন পাশে পাই সবসময় ভাই।

৩২৪জন ৩৫জন
176 Shares

৭৮টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য