সোনেলা দিগন্তে জলসিড়ির ধারে

বোস কেবিন

নূর নাহার রাহিমা ১৯ মার্চ ২০২০, বৃহস্পতিবার, ০৬:৪৭:২৫অপরাহ্ন ইতিহাস ১৭ মন্তব্য

প্রাচ্যের ড্যান্ডি নারায়ণগঞ্জ এর সাথে বোস কেবিন এর ইতিহাস ৯৯ বছরের। ২০২১ সালে বোস কেবিন ১০০ বছর হবে।
বোস কেবিন’ একটি চায়ের দোকানের নাম। চা, পরোটা,বাটার বিস্কুটের জন্য বিখ্যাত ছিল
বোস কেবিনের সাথে নানা ইতিহাস রয়েছে।বোস কেবিনের চা প্রথম খেয়ে নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসু বেশ প্রশংসা করেন। তারপর থেকে এই অঞ্চলে আসলে নেতাজি সুভাষ বসু চা না খেয়ে যেতেন না।
বোস কেবিনের সুনাম এতো টা ছড়িয়ে পরে যে, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী, মাওলানা আব্দুল হামিদ খান ভাসানী, ভারতের রাষ্ট্রপতি প্রনব মুখার্জি, জ্যোতি বসু প্রমুখ আসতেন চা খেতেন গল্প করতেন।
বোস কেবিনের মালিক নৃপেন বসু কে সবাই ভুলু বাবু নামে চিনে। ভুলু বাবুর চা নামেও বেশ পরিচিত ছিল বোস কেবিন।

বোস কেবিন নামে উপন্যাস লিখেছেন লেখক মাসুম রহমান।
নারায়ণগঞ্জ এর ইতিহাস ঐতিহ্য আর দুঃসাহসিক ভাষা আন্দোলন এর ঘটনাকে কেন্দ্র করে বন্ধুত্বের বন্ধন, প্রেম, বিচ্ছেদ সব কিছু আছে “বোস কেবিনে”।

নারায়ণগঞ্জ এ এখনও এমন মানুষ আছে যারা ৬০ বছর ধরে বোস কেবিনে আড্ডা দিচ্ছেন। বর্তমানে বোস কেবিন পরিচালনা করেন নৃপেন বাবুর নাতি তারক চন্দ্র বসু।স্বাদে হয়তো কিছু পরিবর্তন আসতে পারে। কিন্তু নারায়ণগঞ্জ মানুষের কাছে বোস কেবিন এক ভালবাসার নাম।

৫৬০জন ৩৯০জন
7 Shares

১৭টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য