বৃষ্টি-কড়চা………১

ছাইরাছ হেলাল ২৬ এপ্রিল ২০১৭, বুধবার, ০২:৩৫:১৯অপরাহ্ন একান্ত অনুভূতি ১৮ মন্তব্য

বইলে/খাড়াইলে/হুইলে (চিৎ-কাত-উপুর) হুড়হুড়িয়ে-ঝুড়ঝুড়িয়-কুড়কুড়িয়ে ল্যাহা
গড়িয়ে-গড়িয়ে পড়ে এমন দাপানো তাবৎ কাবিলদের সংগত কারণে-বিনা-কারণেও
হিংসা করি, হিংসাই পরম ধর্ম!!

এ্যাহোন বৃষ্টি-বাদল বন্ধ, চালু থাকলেও লেইখ্যা সব উঁচা করে ফেলব বা উঁচা করে রেখেই ল্যাখমু এমন কিন্তু না;
উহ্‌, একটা ভাল-জিনিস মনে পড়ছে, খাড়ান, খাড়ান!! বৃষ্টি হইলে ফ্লোর ঘাইম্মা ওডে ক্যা!! এইডা নিয়ে গপ্পো ফাঁদা যাইতে পারে।
নাহ্‌, আর কিছু মনে পড়তেছে না, এইডা বাদ, তয় আর একটি কথা মনে পড়ছে……………

বৃষ্টি অইলেই এ্যাহোন ঠাডা পড়ে, দিনে রাইতে হোমানে, তা পড়ুক, বেশি বেশি পড়ুক, আমার সাথে যারা নানান কিছু করেছে
তাদের গায়ে-মাথায়, মাথার তাউল্লা বরাবর জোড়ায়-জোড়ায় জোড়া-জোড়া ঠাডা পড়ুক, আসলি ঠাডা-বা-নকলি, চুম্মা-চাট্টির ঠাডও পড়ুক (ঠাডা চালু রেখে তিড়িং-বিড়িং করে অন্য কাম-কাইজে যাই, আহেন);

বৃষ্টি-ব্জ্র-বিদ্যুৎ, একটির সাথে অন্যটি গলাগলি-জড়াজড়ি করে থাকে (ইচ্ছেয়-না-অনিচ্ছেয় জানি-না), থাকুক।
থেকে-থেকে মরুক (মাড়া খাক)। তবে দামিনী শব্দের অর্থ স্ত্রী/ বিদ্যুৎ। (আর সামনে না-এগুই)

ঠাডা রহিত-করণের জন্য তাল গাছ রোপণের চিন্তা করা হচ্ছে, দারুণ (ভিয়েতনামে এটির কার্যকারিতা প্রমাণিত),
আমি ভাবছি অন্য কথা, এই তাল গাছ কবে বড় হবে!! হুর-পরীরা নিত্য ডাকাডাকি করে, একটি তাল গাছ হাবডাইয়া ধইর-রা
কবে-কখন বৃষ্টির দিনের এক-খান ল্যাহা লেইখ্যা ফালা-মু ভাবতে-ই আছি, ভাবতে-ই আছি!!

আপনাদের একটি ঘটনা বলি,
এই-তো ক’দিন আগে বৃষ্টির-দিনে আমাদের অনেকের প্রিয় লঞ্চটিকে (গ্রিন লাইন) প্রকাশ্য দিবালোকে (খাড়া দুপুরে)
অন্য একটি বালি-জান পিছন থেকে মেড়ে দিয়েছে, না-বলে-কয়ে, দিয়েছে-তো-দিয়েছে, একেবারে তলা-ফাটিয়ে দিয়েছে,
অবশ্য মানির-মান নিয়ম-মত এবারে-ও অন্যের হাতেই ছিল, প্রাণহানি হয়নি (আল্লাহ-ই আল্লাহ),
মানহানিও-না!! (তাজ্জব-কি-বাৎ)

৩৮৯জন ৩৮৮জন
0 Shares

১৮টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

মাসের সেরা ব্লগার

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ