বুনোলতা

বনলতা সেন ৩১ জানুয়ারী ২০১৫, শনিবার, ০৫:০৯:৩১অপরাহ্ন একান্ত অনুভূতি ৬৬ মন্তব্য

লেখালেখি মাথায় নেই,পালিয়েছে উধাও আকাশে।অযথা অহেতুক গাই-গুই করে আর যাহোক লেখাকে লেখির কাছে আনা যায় না।হাপিত্যেশ সার।অযথা কী-বোর্ড হাতড়িয়ে লেখা হয় না পাগলি। জানি।
লেখা বা লেখি হবে কি করে?লেখার গুড়ে বালি বা ছাই নয় আস্ত জগদ্দল পাথর রেখেছে ফেলে।এড়ানো ফেরানো বা ঠেলে ফেলে বেয়ে ওঠার রাখেনি উপায়।আর বের হয়েই বা কী লাভ?লিখব বলে যা ভেবেছি ভাবছি ভাবব কালির আঁচড়ে ভাবনার ছবি এঁকে লিখে দিচ্ছে একে একে সবই।এ বেজায় ভারী অন্যায্য অন্যায়। কোথাকার কোন এক উট্কো-হুটকো-ফুটকো কী জানি ছাই বনলতা না বুনোলতা সেন,নামের নিশানা জানিনা যার। কথার কী ছিরি– স্বভাব কবি, কুট্টি কুট্টি লেখা লিখিয়ে!কবি না যেন হাতী,বুনোলতা সেন!নামের কী বাহাদুরি!নিকুচি করা শত্রুর মুখে ফুল ফেলে দিয়ে লিখে ফেলব মিষ্ট মিষ্টি (প্রহেলিকা জানে শব্দার্থ)অমূল্য কাব্যকথা কোন এক কালে ঘুমঘোরে ঘুমে বা জেগে উঠা দখিনা দুয়ারের নিটোল ভোরে।

মিষ্টি মিষ্টর ঘেরাটোপে বাঁধা থাকুক এ খেয়া,দীপাবলির প্রদীপ হয়ে।

জানিতো—
মন খারাপের
উদাস হাওয়া
বইছে এলোমেলো!
এই তো এই
দিলাম উড়িয়ে
এক ফুৎকারে
জিয়নকাঠি ছুয়ে।

=========================================
বনলতা সেন নিপাত যাক এই হোক আগামীর অঙ্গীকার ।
শত্রু শত্রুই,চিরশত্রু।

৫৭১জন ৫৭১জন
0 Shares

৬৬টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ