আপনি রহিম, করি্‌ আবুল জব্বার আর তালুকদার , ছোট ,বড় , লম্বা খাটো যেই হন না কেন আপনার পরিচয় আপনি মানুস । আপনি জানেন সৃষ্টির সেরা জীব আপনি এই ধরার সবচেয়ে দামি সেও আপনি । কিন্তু ভুলে যাবেন না এর সাথে সাথে সবচেয়ে নিকৃষ্ট, অধঃপতিত, নির্যাতক্‌ লুটেরা আর অসন্মানিত আপনি বা আপনার আমার সমগোত্রীয় কেউ না কেউ । এ সব কিছুর কারন আমরা মানুষ । আমি এই বিষয়টির নিস্পত্তি করতে পারব না ।বিধায় আজ আমার বিষয় ভিন্ন ।

আমি একটি আরবি প্রবাদ দিয়ে শুরু করতে চাই অনেক আগে শুনেছিলাম “ কুল্লু সাইএন্ন ইয়ার জেউ ইলা আসলিহি” জার অর্থ প্রত্যেক বস্তু তার মূলের দিকে ফিরে যায় । “আসলিহি” শব্দটি মূলত আছল শব্দ থেকে এসেছে যার অর্থ মূল । এখানে শব্দটিকে রূপক অর্থে ব্যাবহার করা হয়েছে ।

আপনি একজন পুরুষ হয়তো শিশু, কিশোর ,যুবক, বৃদ্ধ অথবা একজন বাবা । আপনি আপনার জীবনের প্রত্যেকটি বিষয় কর্ম নিয়ে এক্তু বসে ভাবুন কি করছেন ? এতদিন কি করে এসেছেন ? কেন করছেন ? কার জন্য করছেন ? কি কিছু পেলেন ! একটু সময় নিয়ে ভেবে নিয়েন তাহলেই হবে । চলেন আরেকটু সামনে যাই- আমি আসলে মনে হয় সহজ কথা জটিল করে ফেলেছি , দুঃখিত জনাব ।

আপনি আপনার জীবনে যে কাজ গুলী করছেন , তা ভালো ছিল কি খারাপ ছিল তার হিসাব দরকার নেই । কথা হচ্ছে প্রত্যেক মানুষ তার কর্মফল ভোগ করে । আপনি যদি প্রকাশে বা গোপনে কোন নৈতিক বা অনৈতিক কিছু করে থাকেন, হতে পারে খুন, ধর্ষণ , চুরি ,ছিনতাই আমানতের খেয়ানতকারি অথবা গোপনে দান করেছেন, মানুসের উপকার করেছেন তাহলে এর একটা প্রভাব আপনার পরবর্তী আহল গনের মধ্যে থাকবে । আপনাকে অবশ্যই এই কথাটি বিশ্বাস করতে হবে । আপনি গোপনে চিগারেট খাণ , আপনার সন্তান ও খাবে । আপনার এই ভালো আর মন্দ অভ্যাস গুলির ৮০% আপনার সন্তানের উপরে যাবে । আপনি অসামাজিক কাজ করছেন কেউ দেখছে না ,জানছে না মনে রাখবেন আপনার সন্তান একদিন এই কাজ গুলোই আপনার অগোচরে করে ফেলবে ।

আপনি খুব মানবিক একজন মানুষ সর্বদা মানুষের ভালো ছিন্তা করেন , মানুষের মঙ্গলে নিজেকে নিয়োজিত রাখেন, বিপদে আপদে মানুষের পাশে দাঁড়ান , আপনার কাছে রাতের আধারে রাস্তায় চলা যুবতী মেয়টি নিরাপদ তাহলে আপনার যে অনাগত বা ঘরে যে সন্তানটি রয়েছে তার ভেতরেও ঠিক একই রকম মূল্যবোধের জন্ম হবে । যে আপনাকে করবে সম্মানিত । আপনি মাথা উচু করে বলতে পারবেন সে আমার সন্তান । ভাই অই যে অমুক , জানেন ছেলে টা কার ? আমার ভাই আমার ।

এইটা শুধু ছেলেদের ক্ষেত্রে না মায়েদের ক্ষেত্রও সমভাবে প্রযোজ্য । আপনি মা হিসাবে যে ধরণের চরিত্র , আচরণ ,জীবন স্বভাব আর বিশ্বাস নিয়ে পথ চলছেন ঠিক আপনার মেয়েতিও সে বিশ্বাস নিয়েই পথ চলবে । কারন আপ্নাকেই এখন ঠিক করতে হবে । কোন দিকে যাবেন আপনি ?

ভাই সন্তান আপনার বা একদিন বাবা হবেন কথা একই , আপনাকে তার উজ্জল আগামী নিয়ে ভাবতে হবে না , আপনি নিজে ভালো হন সে ভালো হবে । আপনার ছেলে বা মেয়ে তাকে নিয়ে কখন বিব্রত কর অবস্থায় পড়তে হবে না । আপনি নৈতিক হন সেও হবে আর এই নতিকতা, মূল্যবোধ, সভ্যতা , আচরণ ঘর থেকে শুরু হয়ে থাকে এ জন্যই হয়তো বলা হয়ে থাকে মানুষের প্রথম ও আদরশ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হচ্ছে তার পরিবার । আপানার নিজের ভেতর যদি এর চর্চা না থাকে ,তাহলে সে কি দেখে শিখবে ? আপনাকে কখনই ভাবতে হবে না যে আপনার ছেলেটি রাস্তায় দারিয়ে কাউকে উত্যক্ত করছে ।এই ছেলে বা মেয়ে কে যদি আপনি এমন সুশিক্ষা দিতে পারেন , তাহলে জেনে রাখুন আপনার জীবনের শেষ দিন পর্যন্ত সে আপনার পাশে থাকবে । আপনার জন্য তার ভেতরে থাকবে অগাধ ভালোবাসা আর সম্মান ,একদিন সেই আপনার সামাজিক ও জীবনের ভালো থাকার নিরাপত্তার একমাত্র অবলম্বন হবে । এসব কিছুই নির্ভর করছে আপনার ওপর । সিদ্ধান্ত আপনার ।

অনেকেই আমার এসব কথার সাথে দ্বিমত পোষণ করতে পারেন । খুব স্বাভাবিক ভাবেই টা হতে পারে । আপনি ভালো আপনার ছেলে বা মেয়েটি ভালো হয়নি , সে অনেক খারাপ যা আপনি বাক্তি জীবনে ছিলেন না , তাহলে সে কেন হল ? ভাই অস্বাভাবিক বলে একটা কথা আছে । সমাজ, পরিবেশ, পরিস্থিতি বন্ধু বান্ধব এর একটা প্রভাব মানুষের ওপর সময় প্রকট প্রভাব ফেলে যার দরুন এই কাজ গুলী ঘটে থাকে । এরা খুব বেশি নয় । হাতে গোনা কয়েকজন ।

ভাই কিছুই শেষ হয়ে যায়নি , এখনো অনেক সময় আছে ,যার মাঝে আমরা আমাদের এই জীবনকে অর্থবহ করে তুলতে পারি । আমার আহ্বান যারা আজ বাবা বা মা হয়েছেন বা আগামীতে হবেন অথবা প্রক্রিয়াধীন আছেন। তারা এখনি সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেন , কেমন করে সাজাবেন অনাগত আগামী ?

ভাল থাকবেন সবাই
.........................................................................................
আব্দুল্লাহ https://facebook.com/abdullahbd
২৬/০৮/২০১৪ , নাটোর ।

0 Shares

২৪টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ