সর্বমোট দোকান লুট হয়েছেঃ ১৬১৬ টি
অগ্নিকান্ডঃ ১০৩৭ টি
লুটপাট, অগ্নিকান্ডে ক্ষতির পরিমানঃ ৩০০ মিলিয়ন ডলার।
সিটিতে সব কিছু মোকাবেলা করার জন্য জরুরী অবস্থা জারী।

কোথায় হয়েছিলো এসব ?
নিউইয়র্কে। ১৯৭৭ সনের ১৩ জুলাই। নিউইয়র্ক সিটিতে এক নাগারে ২৫ ঘন্টা বিদ্যুৎ ছিলোনা। বিদ্যুৎ হীন নিউইয়র্কে এই সব অরাজকতা হয়েছে মাত্র একদিনে। সভ্যতার মুখোশ খুলে গিয়েছিলো ঐ সময়ে। এমন বিদ্যুতহীন যদি সমস্ত আমেরিকায় হতো? লুটপাট, অগ্নিকান্ডের সংখ্যা কোথায় গিয়ে দাড়াতো ?

১৩ জুলাই ১৯৭৭ নিউইয়র্ক শহরজুড়ে অন্ধকার। এর মধ্যে সৃষ্ট হলো এক অরাজক পরিস্থিতি। শুরু হলো বিভিন্ন স্থানে জায়গায় লুটতরাজ। রাস্তায় গোলাগুলি হল। রাত যত বাড়তে লাগল অবস্থা যেন ততই খারাপ হতে লাগল। ব্রুকলিন আর ব্র্ঙ্কসে কিছু ঘটনা ঘটলো। শহরের সবচেয়ে নাম করা এলাকা ম্যানহাটন হয়ে পড়ল সম্পূর্ণ অরক্ষিত। একেবারেই জঙ্গলের পরিবেশ তৈরি হল। কারো জন্যই শহরটা নিরাপদ ছিল না, তা পুলিশ অফিসারই হোক আর দমকল বাহিনীর লোকই হোক। গোলাগুলি ও ছুরিকাঘাতের ঘটনা সবখানেই ঘটছিল।

কিছু ফটো দেখি এই ঘটনার

১৯৭৭ সনের নিউইয়র্কের ব্লাকআউটের ভিডিও দেখুন 

১ নভেম্ভর ২০১৪
বিদ্যুৎ বিপর্যয়ের কবলে বাংলাদেশ। এক নাগারে ১১ ঘন্টা বিদ্যুৎ ছিলোনা দেশের কোথাও।
দেশের কোথাও লুট তারাজ, অগ্নিকান্ড, দাংগা হয়েছে বলে কোন খবর প্রকাশিত হয়নি।
প্রিয় বাংলাদেশের জনগন, শতর্ক সরকার এজন্য ধন্যবাদ পেতেই পারেন।

কতো প্রতিকূলতার মাঝে আমাদের দেশের মানুষ। অশিক্ষা, কুশিক্ষা, অনাহার, অসচেতনতা,ধর্মান্ধতা ছাপিয়েও আমরা এক গর্বিত জাতি। যে জাতি অবশ্যই অনেক সহনশীল এবং একটি যুদ্ধের মাধ্যমে সৃষ্ট। আমরা গর্ব নিয়ে বলতেই পারি আমাদের দেশটির জন্ম হয়েছে আমাদের পুর্ব পুরুষদের রক্তের বিনিময়, লড়াই করে।

আমার সোনার বাংলা
আমি তোমায় ভালোবাসি।

0 Shares

৪২টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ