ছিলে অনেক প্রিয় ফুটবলার, থাকবে আজীবন; ফুটবলকে ভালোবেসেছি তোমাকে ভালোবেসে।ছিলে লক্ষ হৃদয়ের ক্রাশ, ফুটবলের রাজপুত্র। ক্ষণস্থায়ী জীবনটা আরো ক্ষণস্থায়ী হয়ে গেল। তোমার জন্যই আর্জেন্টিনা কে ভালোবেসেছি, চিনেছি। তোমার জন্যই বাতিস্তুতা, মেসি প্রিয় ফুটবলার। তুমি দিয়ে শুরু ভালোবাসা বহমান রবে যুগ যুগান্তর ধরে।

২০২০ সালটা সবদিক দিয়েই বেদনাবিধূর, কষ্টের, প্রিয়জন হারানোর বিশাল তালিকাযুক্ত। সে-ই তালিকায় তোমার নামটাও জড়িয়ে গেল। তুমি বাংলাদেশকে চিনতে না কিন্তু এদেশেই তোমার কোটি কোটি ভক্ত আছে, থাকবে। ফুটবলকে ভালোবেসে , কোটি কোটি ফুটবল ভক্তদের যে কলাকৌশল উপহার দিয়ে গেছো তা অতুলনীয়, অনবদ্য। তোমার জন্যই আর্জেন্টিনা দ্বিতীয় বার বিশ্বকাপ জিতেছিল ১৯৮৬ সালে।

আর্জেন্টিনোস জুনিয়রের হয়ে ১৬ বছর বয়সে পেশাদার ক্যারিয়ার শুরু করেন তিনি। জাদুকরি বাঁ পায়ে তিনি মাতিয়েছেন বার্সেলোনা, নাপোলি, সেভিয়া ও নিউওয়েলস ওল্ড বয়েজ ক্লাব। রেসিং, জিমনাশিয়া ছাড়াও আর্জেন্টিনা কোচের দায়িত্বে ছিলেন ম্যারাডোনা।

তবে ম্যারাডোনা অমর হয়ে আছেন আর্জেন্টিনার জার্সিতে। ১৯৮৬ বিশ্বকাপে তাঁর নেতৃত্বে দ্বিতীয় বিশ্বকাপের দেখা পায় আর্জেন্টিনা। সেই বিশ্বকাপের পরই প্রতিষ্ঠিত হয়ে ম্যারাডোনার অমরত্ব—ফুটবল মাঠে পা রাখা সর্বকালের সেরা খেলোয়াড়দের একজন।

তিগ্রে-তে নিজ বাসায় মারা যান ম্যারাডোনা। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৬০ বছর। গত মাসে হাসপাতাল থেকে বাসায় ফিরেছিলেন ম্যারাডোনা। বুয়েনস এইরেসের হাসপাতালে তাঁর মস্তিষ্কে জরুরি অস্ত্রোপচার করা হয়। মস্তিষ্কে জমাট বেঁধে থাকা রক্ত (ক্লট) অপসারণ করা হয়েছিল।

তখন মাদকাসক্তি নিয়ে ভীষণ সমস্যায় ভুগেছেন ম্যারাডোনা। তাঁকে পুনর্বাসনের জন্য নেওয়া হয়েছিল তিগ্রে-র একটি মাদকাসক্তি নিরাময় কেন্দ্রে।

আর্জেন্টিনার সংবাদমাধ্যম ‘টিওয়াইসি স্পোর্টস’ জানিয়েছে, আজ স্থানীয় সময় বিকেলে হার্ট অ্যাটাকের শিকার হন। এই অসুস্থতা থেকে আর বেঁচে ফিরতে পারেননি কিংবদন্তি। এ ছাড়া সংবাদমাধ্যম ‘ক্লারিন’ও নিশ্চিত করেছে ম্যারাডোনার মৃত্যুর খবর।

যতদিন পৃথিবী বেঁচে থাকবে, যতদিন ফুটবল বেঁচে থাকবে  তোমার নাম স্বর্নাক্ষরে লেখা থাকবে ইতিহাসের পাতায়। তুমি চির অমর হয়ে রবে কোটি কোটি ভক্তবৃন্দের হৃদয়ে। প্রিয় ফুটবলার ডিয়েগো ম্যারাডোনা ( ৩০শে অক্টোবর ১৯৬০-২৫শে নভেম্বর ২০২০ )। তোমার বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করছি।

 

ছবি ও তথ্য-গুগল

৪২৯জন ২৪৩জন
34 Shares

২৫টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য