বিচার নেই কেন?

জাহাঙ্গীর আলম অপূর্ব ১৬ জানুয়ারী ২০২১, শনিবার, ১১:০০:০২পূর্বাহ্ন বিবিধ ১২ মন্তব্য

কালের বিবর্তনে সমাজ ধাপে ধাপে পরিবর্তন হয়ে এ পর্যন্ত এসেছে। কারণ সমাজ স্থির নয়, সদা বহমান। যদি সমাজ বহমান না হতো, তাহলে আজও আমাদের সেই পশু শিকার সমাজে বাস করতে হতো। খেতে হতো শিকার করে। প্রাচীন মানুষ তারা কিছুই জানতো না, বা কিছুই বুঝত না। তারা ছিলো বর্বর, হিংস্র।আমরা সভ্য জীবন পেয়েছি। আর অন্ধকারে থাকতে চাই না।সভ্যতা আর সংস্কৃতির ছোঁয়া লেগে আমাদের জীবন অনেক পরির্তন সাধিত হয়েছে। প্রত্যকে তার নিজের অধিকার স্বাধীকার বুঝে নিতে শিখেছে।কোনটি ন্যায় আর কোনটি অন্যায় মানুষ তাও বুঝতে শিখেছে। কেনই বা মানুষ ভুলের মধ্যে থাকবে সারাজীবন, জীবন কখনো ভুলের মধ্যে থাকতে পারে না। প্রকৃত অর্থে জীবন হলো শৃঙ্খলা মুক্ত।

বর্তমান সমাজে বিচার নেই কেন, সেই প্রশ্নের জবাবে একজন বিজ্ঞ সমাজ শিরোমনি বলে -শোনো,
আসলে যিনি বিচারক তিনি মূলত অপরাধী। কে তারা বিচার করবে, তার অপরাধের। গাঁয়ে একটি প্রবাদ আছে, “”কাকে বলব কলাই চোরা, নিজের কাছে এক পাঁজা””।আগেকার সময়ের বিচার ব্যবস্থা ছিল  স্বজনপ্রীতি মূলক। তবুও সে সমাজের মানুষ তা মেনে নিতো। কারণ সে সময়ের মানুষ মোড়লদের খুব বিশ্বাস ও অন্ধ ভক্তি শ্রদ্ধা করত। মোড়লগণ বিচার করার সময় ন্যায় আর অন্যায় দেখে বিচার করত না। মনগড়া বিচার করত। যার অপরাধ তাকে নির্দোষ প্রমাণ করত আর যে নিরপরাধী তাকে অপরাধী প্রমাণ করত। বর্তমান সুশীল সমাজের মানুষ মনগড়া কোনো কাজ বিশ্বাস করে না। চাই সব কিছুতে যুক্তি ও নির্ভূল প্রমাণ।
সময় চিরকাল বহমান। স্থির নয়। মানুষ ক্ষমতা পেলে, সেই ক্ষমতার অপব্যবহারটা বেশি করে।কেনই বা করবে না ক্ষমতার সর্বস্ব তো তার হাতে। মানুষের ক্ষমতার অপব্যবহারের কারণে আজ সমাজ থেকে বিচার ব্যবস্থা উঠে গেছে। সব বিচার আজ আদালত। মানুষের নীতি হীনতার কারণে সমাজে আজ বিচার নেই ।।
রচনাকালঃ
১০/১১/২০২০
৩২৩জন ১৫৮জন
2 Shares

১২টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য