বাহারি রান্নার রেসিপি (ম্যাগাজিন)

ছাইরাছ হেলাল ২৭ এপ্রিল ২০১৯, শনিবার, ০৯:১০:৩৯পূর্বাহ্ন রম্য ৪৪ মন্তব্য

 

রান্নায় থাকে বিস্তর ঝকমারি,
এটা দাও ওটা দাও, নিক্তি মেপে নিয়ম মেনে,
একটু ঝটপট তাড়াতাড়ি, বিফলে গোটাতে হতে পারে পাততাড়ি।
সে-বারে রান্নায় যেই-না দিলাম ফোড়ন, উরে বাপ্রে
সে এক আওয়াজ উঠলো রাশভারী, ধোয়ায় মধু-গন্ধে আকাশ হলো ভারী,
হচ্ছেটা কী! এই অসময়ের বেলায়, এ কিসের আহাজারি?
চোখ গেল চোখ গেল, এতদিন শুনেছি পাখির গানে
এ দেখছি উঠে এসেছে এ ধরায় ধোয়া-রান্নার টানে!!

শুনেছি/শুনছি লেখক/কবিরা হয় রান্না-পটীয়সী
প্রমাণ এখানেই আছে নাকি ভুরি ভুরি!!
ভাবছি, চেক করে নেব এক্ষুণি।

এক বার এক পাখি! বসলো বেঁকে
কিছুতেই সে মেনে নেবে-না রান্না-কবিকে,
ঢং!! রান্নায় আবার কবিতা থাকে নাকি!!
কলিকাল এতদিন শুনে শুনে কান ঝালাপালা
এখন দেখছি রান্না, দুয়ারে দাঁড়িয়ে দিচ্ছে উঁকিঝুঁকি
ছুড়ছে কবিতার ফুলঝুরি!! উরি উরি!! কবিতার কী ছিরি!!

সব দেখছি খেলাম কুচি!!
কবি আর কবিতার জাত/মান সব-ই গেল
ছিল নাকি পাগলুদের এমন কিছু!
গেল গেল বর এবার উঠলো বলে!! মৃদুমন্দ ভাবে,
ইতি আজ আদাবান্তে, কুশল জানিবেন যথারীতি।

৩৭২জন ৯৩জন
10 Shares

৪৪টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন