পাবলিক বাসে চলার সুবাদে মাঝে মাঝে মাঝে একটি বিষয় খুব পীড়া দেয়। বাসে ছাত্রদের হাফ ভাড়া দেয়া। প্রায়ই হাফ ভাড়া নিয়ে ছাত্রদের সাথে বাসের চালক ও হেলপারের সাথে তর্ক বিতর্ক হয়। শুধু তর্ক বিতর্ক নয় , এনিয়ে ছাত্রদের কটুকথা শুনতে হয়।

কিছুদিন আগে তেলের মূল্য বৃদ্ধি করা হয়। বাস মালিকরা বাস ভাড়া বৃদ্ধির দাবি তোলেন। এক্ষেত্রে তারা সফল হোন। প্রসঙ্গ বাস মালিকরা ছাত্রদের হাফ ভাড়া গ্রহণ করতে রাজি নন। তখনই ছাত্ররা প্রতিবাদস্বরূপ মাঠ নেমে আসে। প্রশাসন বিআরটিসি বাসে শিক্ষার্থীদের হাফ ভাড়া নেওয়ার ঘোষণা দেন। এরপর বেসরকারি মালিকানাধীন বাসে রাজধানী ঢাকায় শিক্ষার্থীদের অর্ধেক ভাড়া নেয়ার ঘোষণা করা হয়। ছাত্ররা ঢাকার বাইরে ও হাফ ভাড়া গ্রহণের জন্য দাবি জানিয়ে আসছে।

২০১৮ সালের ২৯ জুলাই রাজধানীর বিমানবন্দর সড়কে এক দূর্ঘটনায় দুজন স্কুল শিক্ষার্থী প্রাণ হারায়। ছাত্ররা তখন নিরাপদ সড়কের দাবিতে  আন্দোলন করে এবং নয় দফা দাবি জানায়। ছাত্রদের দাবি বাস্তবায়নের কথা বলা হলেও, কার্যত সড়ক দুর্ঘটনায় বেড়েই চলেছে।রোড সেফটি ফাউন্ডেশনের এক জরিপে প্রকাশ- চলতি বছর সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ হারিয়েছে ১১৯ জন।

একটি দূর্ঘটনা সারা জীবনের কান্না। যার প্রিয়জন হারায় সেই বুঝতে পারে কতটা কষ্ট পার করতে হয়। নিরাপদ সড়ক চাই। এ দাবি শুধু ছাত্রদের নয়, এ দাবি আমাদের সকলের। চলচ্চিত্র নায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন দীর্ঘদিন ধরে “নিরাপদ সড়ক চাই” আন্দোলন করে আসছেন। আমাদের শুভ বুদ্ধির উদয় হোক। ছাত্রদের হাফ ভাড়া দেওয়ার বিষয়ে সরকার প্রজ্ঞাপন জারি করলে । ছাত্রদের সাথে বাসের হেলপার এর সাথে বচসা হবে না। নিরাপদ সড়ক আমরা কখনো পাবো কি না জানি না।

  • ছবি: নেট থেকে সংগৃহীত।

 

 

 

২৮৩জন ১২৬জন
0 Shares

১৮টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন



লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য




ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ