অক্ষরের খুঁটি

খাদিজাতুল কুবরা ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২, শনিবার, ০৯:৪৪:৪৩পূর্বাহ্ন কবিতা ১১ মন্তব্য

একদা আকাশ থেকে ছিটকে আসা নক্ষত্রের আগমনে বিঘ্নিত হয়েছিল বর্ষীয়ান নাতিশীতোষ্ণ,

একদিকে বিলীন হয়েছিল ভ্রমের বাড়ি-ঘর;

অন্যদিকে জেগেছিল আগ্নেয়গিরির চর,

সেকি তান্ডব, ভাঙা গড়ার!

এখনো ভাবলে গা শিউরে ওঠে!

ফের ঘর বাহির হয়ে গেল সমুদ্দুর,

তারই তীরে বাঁধলাম ঘর , অক্ষরের খুঁটি, শব্দের প্রতিশ্রুতি!

ঘরখানা যা হয়েছিল না!

একেবারে কবিতার মত সুন্দর!

অমৃতসুধার বর্ষনে জন্মেছিল সুখের চারা গাছ ,

আনন্দে মেতেছিল ষড়ঋতুর দেশ!

শতবছরের আকাঙ্ক্ষা নিষিক্ত হল সংগোপনে,

সোনার কাঠির ছোঁয়ায় ঘুম ভাঙল রাজকন্যার,

জেনেছে অনামিকা সুললিত সম্বোধনে!

পৃথিবীর বৈচিত্র্যের মত প্রেমিকের নির্নিমেষ চোখ,

আজ যা সুন্দর শ্বাশত কাল তা বিকৃত!

সময় ঘনিয়ে আসছে ক্রমশঃ হয়ত,

আবহাওয়াটা ঠিক যেন চৈত্রের খাঁ খাঁ দুপুর,

কোথাও কেউ নেই শুনশান নীরবতা,

শব্দগুলো গৃহকর্ত্রীর সাথে ভাতঘুমে বিভোর,

ভাঁড়ার ঘরটা শূন্য, কুন্তল ঘেমে উঠে থেকে থেকে তার,

হয়ত সে অবচেতনে এলাচ, দারুচিনির স্তম্ভে দাঁড়ানো রসুইয়ের শোকে কাতর!

আমার ছিল শব্দের সাথে সংসার, পৃথিবীটা ছিল যেন সদ্য উন্মোচিত বই কবিতার!

স্বাধের সংসার হল বিরান ছারখার!

কলকল বয়ে চলা জল, শিথানের চিটচিটে বালিশ জানে, কতটা গভীর তার তল?

এখন শব্দের ঢেউ আর আসেনা এ কূলে, আছড়ে পড়েনা পথভুলে।

জানতাম, যাওয়ার জন্যই সকলে আসে,

ভুলে যাওয়ার জন্যই ভালোবাসে!

২৬০জন ৮৩জন
0 Shares

১১টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ