বার্তা //

বন্যা লিপি ১২ জুন ২০১৯, বুধবার, ০৬:২৭:২১অপরাহ্ন একান্ত অনুভূতি ২৫ মন্তব্য

যুগটা ছিলো ১/২ টাকার ভিউকার্ডের। হিরিক লেগে যেত উৎসব পার্বণের দিনগুলোতে। শুভেচ্ছা বিনিময়ের সবচেয়ে জনপ্রিয় মাধ্যমটি বোধকরি ৮০’র দশকে আমাদের কাছে বেশ অনুভূতিপ্রবণ ছিলো। যে উপলক্ষে উৎসব! সেই সেই প্রকার কার্ড সংগ্রহে সর্বাগ্রে কে বেশি সুন্দর কার্ড সংগ্রহ করতে পারলাম, তা নিয়ে সেই সময়েও ছিলো কিছুটা আভিজাত্যের গোপন এবং অলিখিত অহংকার।

বিনিময় কার্ডটা যদি আমার থেকে সুন্দর হয়,তবে মুখখানা যেন অজান্তেই শুঁকনো আমচুর হয়ে যেত। পহেলা বৈশাখ, ইংরেজী নববর্ষ,অথবা ঈদুল ফিতর। বন্ধুদের কার্ড দেবার জন্য বায়না আব্বার কাছে। নানান কৈফিয়তের পর পাওয়া যেত ৫/১০ টাকা ভিউকার্ড কেনার জন্য।

তো যা বলছিলাম আর কি……..!!
যুগতো বদলায় যুগে যুগে এ আর নতুন কি? একসময় ছিলো এ্যানালগ সিস্টেমের টেলিফোন যুগ। কম্পিউটারের বিষ্ময় কাটতে না কাটতে জুকার বার্গ সাহেব ধামাকা নিয়ে এলেন ফেসবুক নামক অনলাইন যুগের। আহারে কি আজব ধামাকায় দুনিয়ার প্রায় মানুষকে বুঁদ করে রাখলেন রে!!!
ভিউকার্ড প্রস্তত প্রতিষ্ঠান গুলোর মধ্যে তখনকার সময়ে আজাদ প্রডাক্টসের নাম সবচেয়ে প্রথমে ছিলো। আমার জানামতে।
আজাদ প্রডাক্টস’ই প্রথম ভিউকার্ড প্রচলনটা শুরু করেন। কিছুদিনের মধ্যে তুমুল জনপ্রিয়তার প্রতিযোগিতায় আজাদ সাহেবের কাছাকাছি অন্য প্রতিষ্ঠানও শুরু করলেন সমান তালে বিভিন্ন ভিউকার্ড বাজারে ছাড়া। মানের দিক থেকে আজাদ প্রডাক্টস সর্বাগ্রে ছিলো। যাই হোক অবশেষে আজাদ সাহেবসহ সকলের ব্যবসায় (১/২ টাকার ভিউকার্ড) লাল বাত্তি। এখন বিয়ের কার্ড আর ভিজিটিং কার্ড অথবা হাই প্রোফাইল নিমন্ত্রণ পত্র ছাড়া, সেই পুরোনো দিনের ভিউকার্ড কি আর তেমন করে চোখে পরে? আমার তো পরেনি বহুকাল।
জানার ঘাটতিও থাকতে পারে। সেক্ষেত্রে মার্জনা চেয়ে রাখছি।

এবার আসি আসল বক্তব্যেঃ—-
বিভিন্ন উৎসবে জুকারবার্গ সাহেবের বানানো একখানা বাক্সের পরিচয় সম্বলিত-(যার নাম সোজা বাংলায় ফেসবুক আইডি) ইনবক্স বা মেসেঞ্জার নামে প্রত্যেকের একখানা করে আলাদা আলাদা ঘর আছে। আর সেখানেই!! আর সেখানেই শুরু হয় লিস্টে থাকা বন্ধু বান্ধবের ধুমসে শুভেচ্ছা বার্তা পাঠানো। জনসমক্ষে (চোখের সামনে)…..বিনীত নিবেদন করছি এবং মাফও চাই সকলের কাছে—-আজ পর্যন্ত আমি এ যাবৎকালে কাউরে আমি শুভেচ্ছা বার্তা পাঠাই নাই। বড় আইলসা আমি। এ যাবৎ যারাই আমাকে পহেলা বৈশাখ,ইংরেজী নববর্ষ,ঈদুল ফিতরে ইনবক্স,মেসেঞ্জারে শুভেচ্ছা বার্তা পাঠিয়েছেন/জানিয়েছেন……
তাঁদের সকলের প্রতি রইলো অনেক অনেক কৃতজ্ঞতা। সকলের জীবন মঙ্গলময় কাটুক।

২৭০জন ১১২জন
7 Shares

২৫টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য