বাউল রিতা ও আমাদের হুজুর সমাজ

নীরা সাদীয়া ৮ ফেব্রুয়ারী ২০২০, শনিবার, ০৬:০১:২৭অপরাহ্ন সমসাময়িক ২২ মন্তব্য

বাউল রিতার অবান্তর প্রশ্নের যুগান্তর উত্তরঃ
আল্লাহ্ কে নিয়ে কিছু প্রশ্ন তুলেছেন বাউল রিতা। তার এসব প্রশ্নের প্রতিবাদে আমাদের হুজুর সমাজ ক্ষোভে ফেটে পরেছেন! বাউল রিতার যুক্তি আমি খন্ডন করব, তার আগে হুজুর সমাজের কাছে আমার প্রশ্নঃ

বাউল রিতার বয়ানের প্রতিবাদ স্বরূপ আপনারা যে
ব-বর্গীয়, প-বর্গীয় শব্দ উচ্চারণ করে গাল দিচ্ছেন, তা কতটা যুক্তি সংগত? কোরআনে/হাদীসে কোথাও কি এসব গালাগাল দেবার অনুমতি রয়েছে? তাহলে বাউল রিতার সাথে আপনাদের পার্থক্য কোথায়? নারী মাত্রই তাকে এসব গালাগাল দেয়া যায়? আপনারা ধর্ম সম্পর্কে অনেক কিছু জানেন, তাই আপনারা চাইলেই পারতেন শালীন ভাষায় তার যুক্তি খন্ডন করে প্রতিবাদ করতে। তা না করে আপনারা দিলেন নোংরা গালি!

এবার আসি বাউল রিতা প্রসঙ্গে। ওনার বক্তব্যগুলো এরকম…

আল্লাহ্ এক, তার কোন শরীক নাই, আকার নাই। আবার তিনি বলছেন, তোমরা আমার দিকে এক কদম এগুলে আমি তোমাদের দিকে দশ কদম আগাবো। তার মানে আল্লাহর পা আছে। পা আছে মানে হাতও আছে! তার মানে বডিও আছে। আবার তিনি যেহেতু ন্যায় বিচার করবেন, সুতরাং তাঁর সকল কিছু দেখার ও শোনার দরকার হবে। তার মানে তাঁর চোখ, কান আছে!

আচ্ছা বাউল রীতা, বলুন তো সাপ কি দিয়ে শোনে? জিহ্বা দিয়ে শোনে। সাপের তো কান নাই! এ তথ্য কি আপনি জানেন? সাপ যে জিহ্বা দিয়ে শোনে, মানুষ কান দিয়ে শোনে এগুলোর সৃষ্টি কর্তা হচ্ছেন আল্লাহ্। যিনি এসব সৃষ্টি করতে পারেন, তাঁর কি এগুলো থাকা খুব বাঞ্ছনীয়? আপনি প্লাস্টিকের জগে পানি খান বলে কি আপনার গলাও প্লাস্টিকের হওয়া লাগবে?

সত্যি বলতে কি, সৃষ্টি কর্তা সর্বজ্ঞানী। কিন্তু তিনি আমাদেরকে সৃষ্টি করেছেন একটা সীমাবদ্ধ জ্ঞান দিয়ে। তাই আমরা আমাদের দেখা বিষয়গুলোর বাইরে আরও যে কিছু থাকতে পারে তা ভাবি নাহ্। ভাবতে পারি না। আমাদের ভাবনাগুলো ঐ চোখ, কান, হাত, পায়েতেই সীমাবদ্ধ। যিনি আমাদের এই অঙ্গ প্রত্যঙ্গগুলো দিয়ে সৃষ্টি করার ক্ষমতা রাখেন, তিনি নিজে এগুলা ছাড়াও চলতে পারেন, এরকম ধারণা করার মত জ্ঞান আমাদের নেই।

নারীমাত্রই তাকে গালাগাল দেয়া যেমন মূর্খতা, তেমনি, স্বল্প জ্ঞান নিয়ে সৃষ্টি কর্তা সম্পর্কে ভাষণ দেয়াও মূর্খতা।

২০০জন ৮২জন
9 Shares

২২টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য