ছবিটির মুল্য তারাই বুঝবেনা যারা বাংলিশ। উদাহরণ চান? এক বাংলিশরে প্রশ্ন করলাম – সে গেলোতো গেলো এমন ভাবে গেলো আর ফিরে এলোনা এর ইংরেজিতে অনুবাদ কি হবে বলতো?

তার উত্তর ছিলো – He is gone gona gone gone, emon vabe gone, has not come.

তাদের কাছে ইংরেজিতে কথা বলা স্মার্টনেস। বাংলা ভাষায় তারা অস্বস্তি অনুভব করে। এসব দেখলে রাগে আমার শরীর কাঁপে, হাসি পায়; রাগের হাসি।

বলতে পারেন শহীদ মিনারে তিনটি স্তম্ভ কেন? কতটি লোহার শিক ব্যবহৃত হয়? ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানাতে যান কাদের? সালাম, রফিক, জব্বার এদের চেনেন এ প্রজন্মের কতজন?আমরা তাদের নাম জানি, কিন্তু তাদের শহীদ হবার প্রেক্ষাপট জানি কতজন? প্রথম ভাষাশহীদ কে বলুনতো? ক খ গ থেকে চন্দ্রবিন্দু পর্যন্ত আমরা কতজন বলতে পারবো এই মুহুর্তে? চেষ্টা করবেন নাকি একবার?

মাতৃভাষাকে জানুন, আপনার সন্তানদের জানান। ২১ কে ভালোবাসুন, মন থেকে বুকে ধারন করুন। আপনি আমি বাঙালি বলে অন্য ভাষাভাষী মানুষ আমাদের হিংসে করে। কেন জানেন? কারন ২১ শে ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক ভাবে পালিত হয়। এটা আমাদের গর্ব, এটা আমাদের গৌরব। এসব ভাবলে আমার শরীরে শিহরণ জাগে, পুলকিত হই।

মাইকেল মধুসূদন দত্ত কিন্তু ইংরেজিতে সাহিত্য রচনায় ফেল মেরে সাগরদাঁড়িতে ফিরে এসেছিলেন। অথচ তিনি নিজে অনর্গল ইংরেজি বলতে লিখতে পারতেন। তার বাংলায় রচিত সাহিত্য বিশ্বের নামকরা সব বিশ্ববিদ্যলয়ে পঠিত হয়।

আসুননা সবাই শুদ্ধ বাংলায় কথা বলার চর্চা করি। বাংলায় শুদ্ধভাবে কথা বলে সকল ভাষা শহীদদের প্রতি সম্মান জানাই। এটা তাদের পাওনা, তাদের অধিকার। এ অধিকার বঞ্চিত করার ক্ষমতা আপনার আমার কারোরেই যে নেই!

৫০৩জন ৪৯৮জন
12 Shares

১৪টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ