বাংলাদেশ আওয়ামিলীগের ২০তম জাতীয় সম্মেলন………….

 

#বাংলাদেশ আওয়ামিলীগের সম্মেলন মানে কর্মীদের মধ্যে আনন্দের একধরণের জোয়ার
সৃষ্টি হওয়া |সম্মেলনের শুরুর আগেই প্রিয় নেত্রী পরিবর্তের শুভ সূচনা করেছেন “থিম সং”পরিবর্তনের মধ্যদিয়ে |

 

বাংলাদেশ আওয়ামিলীগের ২০তম জাতীয় সম্মেলনের থিম সং “এখন সময় বাংলাদেশের, এখন সময় আমাদের” || “উন্নয়নের মহাসড়কে এগিয়ে চলেছি দুর্বার, এখন সময় বাংলাদেশের মাথা উঁচু করে দাঁড়াবার।”

 

৬৭ বছরের পুরনো এবং দেশের বৃহত্তম এই রাজনৈতিক দলের কাউন্সিল নিয়ে রাজনীতি সচেতন মানুষের আগ্রহ নানা কারণে। একটা বড় কারণ সম্ভবত এই যে, শেখ হাসিনার পরে আওয়ামী লীগের কাণ্ডারি কে হবেন, সেটির কিছুটা ইঙ্গিত মিলবে যদি তার ছেলে সজীব ওয়াজেদ জয় বা তার বোন শেখ রেহানা অথবা তার মেয়ে সায়মা ওয়াজেদ অথবা পরিবারের অন্য কাউকে দলের কোনও গুরুত্বপূর্ণ পদে বসানো হয়।

 

আগ্রহের আরেকটি কারণ এই যে, দলের গঠনতন্ত্র ও নেতৃত্বে বড় কোনও পরিবর্তন আসবে কি না, সেটিওর ইঙ্গিত মিলতে পারে। ২০১৯ সালের শুরুতে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন হওয়ার কথা। অর্থাৎ ধরে নেওয়া যায় যে সেই নির্বাচনের আগে এটিই আওয়ামিলীগের শেষ কাউন্সিল।

 

সুতরাং কারা এবার প্রেসিডিয়ামে আসছেন, থাকছেন কী বাদ পড়ছেন; উপদেষ্টা এবং সম্পাদকমণ্ডলীতে কোনও পরিবর্তন আসছে কিনা, ইত্যাদি বেশ গুরুত্বপূর্ণ। কেননা নতুন এই কমিটির ওপরেই নির্ভর করবে পরবর্তী জাতীয় নির্বাচনে আওয়ামী লীগ কোন কৌশলে এগোবে, তার অনেকটা।

 

 

যারা ছাত্ৰরাজনীতি করে মেইন স্টিম রাজনীতিতে আসেন,তাদের নিজ সংগঠনের প্রতি কমিটমেন্ট ও ভালবাসা অন্যদের তুলনায়
অনেক বেশি থাকে ;কাজেই বাংলাদেশ আওয়ামিলীগের একজন তৃণমূল কর্মী হিসাবে আমি মনে করি আগামীদিনের কমিটিতে সাবেক ছাত্ৰ নেতাদের সামনের সারিতে নিয়ে আসা উচিত |

 

 

যারা জীবন যৌবনের উজ্জ্বল দিনগুলি তরুণ বয়েসে রাজপথে কাটিয়েছেন ;তাদের সংগঠনের জন্য যে মায়ার টান থাকবে -একজন আমলার কোন অবস্থাতে এরকম টান-কিংবা ভালবাসা থাকবে না |

 

ইতি মধ্যি বিদেশী অনেক মেহমান এই অনাড়ম্ভর অনুষ্ঠানে আসার আগ্রহ দেখিয়েছেন |

বাংলাদেশ আওয়ামিলীগের সম্মেলন
ব্রিটিশ পার্লামেন্টের লেবার পার্টির এক জন এম.পি কে নিয়ে আগামীকাল বাংলাদেশে যাচ্ছেন,আমার খুব ঘনিষ্ঠ বন্ধু সিনিয়র ভাই যুক্তরাজ্য আওয়ামিলীগের মানবধিকার বিষয়ক সম্পাদক সারব আলী |

 

 

 

যাই হোক, একটি বিশেষ দিক ; আমাদের প্রত্যাশা সৈয়দ আশরাফকে আবারও পুনঃরায় বিশস্ত সিপাহসালার হিসাবে সাধারণ সম্পাদক পদে বহাল রেখে ,

আগামীর সুন্দর ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয়ে গৌরবময় স্বীকৃতির মর্যাদা অম্লান, অক্ষুণ্ন রেখে অনাবিল স্বপ্ন আর দিনবদলের অপরিমেয় প্রত্যাশার রক্তিম আলোয় উদ্ভাসিত অফুরন্ত প্রাণোন্মাদনা নিয়ে নতুন সূর্যের আলোয় অগ্রসর হবে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা এবং শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশ ;

 

সেই সাথে ২২-২৩ অক্টোবর,বাংলাদেশ আওয়ামিলীগের ২০তম জাতীয় সম্মেলন সফল ও সার্থক হবে ,এটাই আমাদের সবার কামনা ||

ধন্যবাদ

#জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু।
#জয়তু দেশরত্ন শেখ হাসিনা।

 

আলমগীর হোসাইন
ম্যানচেস্টার,ইংল্যান্ড |

৪৯২জন ৪৯২জন
2 Shares

২টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

লেখকের সর্বশেষ মন্তব্য

ফেইসবুকে সোনেলা ব্লগ